php glass

২০১০ সালে বিনিয়োগকারী বেড়েছে সাড়ে ১৩ লাখ

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

পুঁজিবাজারে সক্রিয় বিনিয়োগকারীর সংখ্যা ৩২ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। সেন্ট্রাল ডিপোজেটরি বাংলাদেশ লিমিটেডের (সিডিবিএল) সর্বশেষ তথ্যে একথা জানাগেছে।

ঢাকা: পুঁজিবাজারে সক্রিয় বিনিয়োগকারীর সংখ্যা ৩২ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। সেন্ট্রাল ডিপোজেটরি বাংলাদেশ লিমিটেডের (সিডিবিএল) সর্বশেষ তথ্যে একথা জানাগেছে।

সিডিবিএল সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, ২৯ ডিসেম্বর বুধবার পর্যন্ত পুঁজিবাজারে মোট বিনিয়োগকারীর সংখ্যা ৩২ লাখ ৬০ হাজার ১৬৮ জন। অর্থাৎ চলতি বছর বাজারে বিনিয়োগকারীর সংখ্যা বেড়েছে প্রায় সাড়ে ১৩ লাখ।

২০১০ সালের ১ জানুয়ারি পর্যন্ত পুঁজিবাজারে মোট বিনিয়োগকারীর সংখ্যা ছিল ১৯ লাখ ৩৫ হাজার ৩৮৯ জন। আর ২৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত নতুন বিনিয়োগকারী প্রবেশ করেছে ১৩ লাখ ২৪ হাজার ৭৭৯ জন। এর মধ্যে বছরের প্রথম ছয় মাসে ৬ লাখ ৩১ হাজার জন এবং শেষ ছয় মাসে ৬ লাখ ৯৩ হাজার ৭৭৯ জন নতুন বিনিয়োগকারী বাজারে প্রবেশ করেছে।

চলতি বছরে পুঁজিবাজারে প্রায় সাড়ে ১৩ লাখ নতুন বিনিয়োগকারী প্রবেশ করার পাশাপশি ২৪ টি নতুন কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ড তালিকাভুক্ত হয়েছে। একই সময়ে ২২ টি কোম্পানির ২ হাজার ৪৭২ কোটি ৫ লাখ ২ হাজার টাকার রাইট শেয়ার অনুমোদন দেয় সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (এসইসি)। ওই বিপুল পরিমাণ শেয়ার বাজারে আসার পরেও বাজারে শেয়ার সংকট থেকেই যায়। ফলে সারা বছর ধরে বাজারে এক ধরনের শেয়ার সংকট সৃষ্টি হয়।

অন্যদিকে বিপুল সংখ্যাক বিনিয়োগকারী প্রবেশের কারলে বাজারে শেয়ারের চাহিদা বেড়ে যায়। কিন্তু চাহিদার তুলনায় সরবরাহ পর্যাপ্ত না হওয়ায়  বাজারে লেনদেন হওয়া  বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ারের দাম অতিমুল্যায়িত হয়ে পড়ছে। আর এই অতিমুল্যায়িত শেয়ার কিনে নিজেদের বিনিয়োগকে ঝুঁকির মধ্যে ফেলে দিয়েছেন সাধারণ বিনিয়োগকারীরা। আরই এরই পরিনতিতে চলতি মাসে ৮, ১২ ও ১৯ ডিসেম্বর বাজারে বড় ধরনের দরপতন হয়।

ডিএসইর সভাপতি মো. শাকিল রিজভী বাংলানিউজকে বলেন, বাজারে প্রতিনিয়ত নতুন বিনিয়োগকারীর সংখ্যা বাড়ছে এটি পুঁজিবাজরের জন্য অত্যান্ত ভালো দিক। কিন্তু বিনিয়োগকারীদের ধরে রাখার জন্য বাজারে শেয়ারের সরবরাহ আরো বাড়াতে হবে। অন্যথায় বিনিয়োগকারীদের ধরে রাখা যাবে না।

ডিএসইর সাবেক সভাপতি মো. রকিবুর রহমান বাংলানিউজকে বলেন, চলতি বছরে বাজারে প্রচুর বিনিযোগকারী প্রবেশ করেছে। এটা পুঁজিবাজারের জন্য অত্যান্ত ভালো দিক। এই বিনিয়োগকারীদের ধরে রাখার জন্য চলতি বছরে বাজারে রেকর্ড পরিমাণ, রাইট শেয়ার, বুক বিল্ডিং ও নির্ধারিত মূল্য পদ্ধতিতে অনেক বড় বড় কোম্পানি বাজারে এসেছে এবং এই ধারা আগামীতে অব্যাহত থাকবে বলে আমি আশা করি।

বাংলাদেশ সময়ঃ ১৮২৪ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৯, ২০১০

খুলনায় আ’লীগের তৃণমূল নেতাকর্মীদের প্রযুক্তির প্রশিক্ষণ
সিলেটে লবণ বিক্রেতাকে জরিমানা
লবণের কৃত্রিম সংকট সৃষ্টির চেষ্টা, হবিগঞ্জে আটক ৪
‘খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার অধিকার থেকে বঞ্চিত করছে সরকার’
আবাসন খাতে সর্বোচ্চ করদাতা র‌্যাংগস প্রপার্টিজ লিমিটেড


‌সিলেটের বাজারে লব‌ণ সংকটের গুজব
মিরপুরে ছুরিকাঘাতে ২ শিক্ষার্থী আহত
লিবিয়ায় বিমান হামলায় এক বাংলাদেশি নিহত, আহত ১৫
৬০ বিঘা জমির আম গাছ কাটার ঘটনায় গ্রেফতার এক
গোলাপি বলে বাড়তি সুবিধা দেখছেন মিরাজ