php glass

লাগামহীন পেঁয়াজের দাম

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

লাগামহীনভাবে বেড়ে চলেছে পেঁয়াজের দাম। গত দু’দিনের ব্যবধানে পেঁয়াজের দাম কেজিতে প্রায় দ্বিগুণ বেড়েছে। বাড়তির দিকে চালের দামও। তবে সরকার নির্ধারিত দামেই বিক্রি হচ্ছে ভোজ্যতেল। কমছে আদা, রসুন, আলু ও শাকসবজির দাম।

ঢাকা: লাগামহীনভাবে বেড়ে চলেছে পেঁয়াজের দাম। গত দু’দিনের ব্যবধানে পেঁয়াজের দাম কেজিতে প্রায় দ্বিগুণ বেড়েছে। বাড়তির দিকে চালের দামও। তবে সরকার নির্ধারিত দামেই বিক্রি হচ্ছে ভোজ্যতেল। কমছে আদা, রসুন, আলু ও শাকসবজির দাম।

বৃহস্পতিবার বাজারে পুরনো পেঁয়াজ ৭০ টাকা এবং নতুন পেঁয়াজ ৬০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছে। দু’ তিনদিন আগেও এই পেঁয়াজের দাম ছিল যথাক্রমে ৪০ ও  ৩৬ টাকা।

হঠাৎ করে পেঁয়াজের দাম এভাবে দ্বিগুণ হওয়ার কারণ জানতে চাইলে বিক্রেতারা জানালেন, ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ করে দেওয়াই দাম বৃদ্ধির কারণ।

পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধে ভারতের ঘোষণার পর থেকে মন প্রতি পাঁচ থেকে ছয়শ’ টাকা বেড়েছে বলে জানালেন কারওয়ান বাজারের আড়তদার জাকির হোসেন।

তবে ভারত থেকে পণ্য আমদানি করার আগেই কেন স্থানীয় বাজারে পেঁয়াজের দাম বেড়ে গেল এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ভারতের ঘোষণা শোনার পর স্থানীয় ব্যবসায়ীরা হয়তো মজুদ শুরু করেছে যার কারণে দাম বেড়েছে।

এদিকে সপ্তাহের ব্যবধানে চালের দামে খুব একটা হেরফের না হলেও নতুন অর্ডারে চালভেদে বস্তাপ্রতি ২০ থেকে ৫০ টাকা বাড়তি দিতে হচ্ছে বলে জানালেন পাইকারী ব্যবসায়ীরা।

কারওয়ান বাজারের মেঘনা রাইস এজেন্সির বিক্রেতা মো. আলী হোসেন জানান, নতুন মাঝারি ধানের চাল আগে বিক্রি হয়েছে ৩৫ থেকে ৩৭ টাকা। এখন এই চাল ৪০ টাকা পর্যন্ত বিক্রি হচ্ছে।

বোতলজাত সয়াবিন তেল সরকার নির্ধারিত দামেই বিক্রি হতে দেখা গেছে।
খোলা সয়াবিন তেল প্রতি লিটার ৯০, পাম তেল ৮৬ টাকায় খুচরা বাজারে বিক্রি হচ্ছে।

বাজারে চিনি বিক্রি হচ্ছে ৫৪ থেকে ৫৬ টাকা কেজি দরে। রসুনের দাম কিছুটা কমেছে। ভারতীয় রসুন ১২০ টাকা ও দেশি রসুন ১৫০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। আদা মানভেদে ৭০ থেকে ৯০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

ডাল  মোটা ৮০, দেশি ১০০ ও ক্যাঙ্গারু ১০৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। বাজারে ডিমের হালি বিক্রি হচ্ছে ২০ থেকে ২৪  টাকায়। মুরগি ব্রয়লার ১২০ টাকা ও লেয়ার ১৪৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

বাজারে গরুর মাংস ২৬০,  খাশির মাংস ৩৮০ থেকে ৪০০ ও ছাগলের মাংস ৩২০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

বাজারে সবধরনের সবজির দামই কমের দিকে। তবে বাজার ভেদে সবজির দরে কিছুটা তারতম্য লক্ষ্য করা গেছে। কাচাঁমরিচ ৩০-৪০, বেগুন ৩০-৩৫,  পটল ২৬, ঢেঁড়স ৪০, করলা ৫০, কচুর ছড়া ৪০, সিম ৩০, শশা ৩০, চিচিঙ্গা ৪০,  টমেটো ৩৫, পেঁপে ১০, মুলা ১২, গাজর ২৪, , আলু পুরনো ১৮, নতুন ২০, ফুলকপি ২০, বাঁধাকপি ২০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে।  

বাংলাদেশ সময়: ১৫৫৫ ঘণ্টা, ডেসেম্বর ২৩, ২০১০

শ্রীমঙ্গলে ক্রেতা সেজে দুটি ডাহুক উদ্ধার
গোলাপি বলের প্রথম দিনে ‘ব্যর্থ’ বাংলাদেশ
৪১ বছরে ইবি, শিক্ষার্থী ৩০০ থেকে ১৪ হাজার 
কৃষক-শ্রমিকের মুক্তি ছিল ভাসানীর রাজনীতির মূলমন্ত্র
ইবতেদায়ি পরীক্ষার্থীকে কেন্দ্র থেকে বের করে দেয়ার অভিযোগ


ইসরায়েলের জেলে নায়েলের ৪০ বছর, আশাবাদী পরিবার
রাজশাহীতে আখমাড়াই শুরু
যেন এক টুকরো চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়!
হাত হারিয়ে পা দিয়েই পিইসি পরীক্ষা দিচ্ছে মুক্তামনি
উইকেটে জেঁকে বসা পূজারাকে ফেরালেন এবাদত