ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৭ মাঘ ১৪২৭, ২১ জানুয়ারি ২০২১, ০৭ জমাদিউস সানি ১৪৪২

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

চবি: অসমাপ্ত পরীক্ষা নিতে কর্তৃপক্ষকে ৭২ ঘন্টার আল্টিমেটাম

ইউনিভার্সিটি করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৩৫ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৫, ২০২০
চবি: অসমাপ্ত পরীক্ষা নিতে কর্তৃপক্ষকে ৭২ ঘন্টার আল্টিমেটাম

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়: করোনা মহামারিতে আটকে থাকা বিভিন্ন বিভাগের পরীক্ষা নিতে কর্তৃপক্ষকে ৭২ ঘন্টার আল্টিমেটাম দিয়েছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) শিক্ষার্থীরা। এসময়ের মধ্যে পরীক্ষার বিষয়ে কোন পদক্ষেপ না নিলে আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দেন তারা।

বুধবার (২৫ নভেম্বর) দুপুরে এ বিষয়ে বিভিন্ন বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, রেজিস্ট্রার, প্রক্টর ও পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক বরাবর স্মারকলিপি দেন।  

স্মারকলিপিতে শিক্ষার্থীরা উল্লেখ করেন, কোভিড-১৯ এর প্রাদুর্ভাবে গত ১৮ মার্চ বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ হওয়ার কারণে কয়েকটি বিভাগের চতুর্থ বর্ষের ফাইনাল পরীক্ষা শুরু হওয়ার পর মাঝপথেই থেমে যায়। আবার কিছু বিভাগে শুধু দুই-একটি পরীক্ষা বাকি রয়েছে।  

গত ১৫ নভেম্বরে অনুষ্ঠিত একাডেমিক কাউন্সিলের সভায় স্থগিত পরীক্ষাগুলো নেয়ার ব্যাপারে নীতিগত সিদ্ধান্ত নেয়া হলেও বিভাগ থেকে এখনও কোনো ধরণের অফিসিয়াল নোটিশ পাঠানো হয়নি। প্রশাসনের পক্ষ থেকে এ ব্যাপারে নোটিশ পৌঁছানোর পরেই বিভাগগুলো স্থগিত পরীক্ষাগুলো নেবে বলে শিক্ষার্থীদেরকে আশ্বস্ত করেছে।

ইতোমধ্যে বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি চাকরির প্রজ্ঞাপন জারি হয়েছে এবং অনেক ক্ষেত্রে পরীক্ষা হয়ে নিয়োগ প্রক্রিয়াও সম্পন্ন হয়েছে। গত সোমবার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় পিএসসিতে ৪৩ তম সাধারণ বিসিএস এর চাহিদাপত্র পাঠিয়েছে। সামনের সপ্তাহে ৪৩ তম বিসিএস পরীক্ষা সংক্রান্ত পিএসসির একটি সভা হওয়ার কথা রয়েছে।

আটকে থাকা পরীক্ষার কারণে আমরা এসব চাকরিতে আবেদন করার সুযোগ থেকে বঞ্চিত হচ্ছি। এর ফলে নিম্নবিত্ত, নিম্ন-মধ্যবিত্ত, মধ্যবিত্ত পরিবারের বেশীরভাগ শিক্ষার্থীই চরম হতাশায় ভুগছে।  

আমরা আশাকরি, প্রশাসনের পক্ষ থেকে সংশ্লিষ্ট বিভাগে স্থগিত পরীক্ষাসমূহ সরাসরি অথবা অনলাইনে নেয়ার বিষয়ে আগামী ৭২ ঘন্টার মধ্যে নোটিশ পাঠানো হবে। অন্যথায় আগামীতে আরও কঠোর পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হবো।  

চবির আইন বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী ফোরকানুল আলম বাংলানিউজকে বলেন, পরীক্ষা নেওয়ার বিষয়ে আমরা দ্বিতীয় দফায় স্মারকলিপি ও ৭২ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়েছি। এ সময়ের মধ্যে কর্তৃপক্ষ কোনো ব্যবস্থা না নিলে আমরা আন্দোলন করবো।

চবির ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর ড. আতিকুর রহমান বাংলানিউজকে বলেন, শিক্ষার্থীদের স্মারকলিপি আমরা পেয়েছি। কর্তৃপক্ষ ইতোমধ্যেই এ সংক্রান্ত একটি কমিটি গঠন করেছে। আশাকরি খুব দ্রুত এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে।

বাংলাদেশ সময়: ২০৩৫ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৫, ২০২০
এমএ/এসকে/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
welcome-ad
Alexa