সংস্কৃতি রক্ষায় জাতিকে অনেক ত্যাগ স্বীকার করতে হয়েছে

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন

walton

চট্টগ্রাম: নিজস্ব সংস্কৃতি রক্ষায় বাঙালি জাতিকে অনেক ত্যাগ স্বীকার করতে হয়েছে মন্তব্য করে মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানই ছিলেন এ আন্দোলনের পুরোধা। তারই সুযোগ্য নেতৃত্বে বিশ্বের পরাক্রমশালী পাকিস্তানি বাহিনীকে পরাজিত করে আমরা আমাদের মাতৃভূমি স্বাধীন করেছি। তাই আমরা বীরের জাতি, আমরা বাঙালি।

php glass

রোববার (১৪ এপ্রিল) সকালে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন আয়োজিত তিন দিনব্যাপী বর্ষবরণ ও বিদায় অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় দিন প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র এসব কথা বলেন।

নগরের এমএ আজিজ স্টেডিয়ামের জিমনেসিয়াম চত্বরে আয়োজিত অনুষ্ঠানে মেয়র বলেন, বাংলা নববর্ষ এবং বাঙালির জাতীয়তাবাদ পরস্পর সম্পর্কযুক্ত। বৈশাখ মাস আসলেই বাংলা ভাষাভাষী সব ধর্ম-বর্ণের মানুষকে এক মঞ্চে ঐক্য ও ভ্রাতৃত্বের বন্ধনে আবদ্ধ করে তোলে। এদিনে সবাই সাম্য, সম্প্রীতি ও উদারতার মহান শিক্ষা অর্জন করে।

চসিকের প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা সুমন বড়ৃয়ার সভাপতিত্বে সভায় চসিক প্যানেল মেয়র কাউন্সিলর চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, কাউন্সিলর এইচএম সোহেল, শৈবাল দাশ সুমন ও চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ বিশেষ অতিথি ছিলেন।

মেয়র বলেন, আমরা বাঙালি, আমাদের মাতৃভাষা বাংলা। বাংলায় আমরা কথা বলি। ভাষার জন্য আমরা যে আত্মত্যাগ করেছি, তা পৃথিবীর ইতিহাসে বিরল। প্রতিটি জাতির কিছু নিজস্ব সংস্কৃতি থাকে। যা জাতিকে বিশ্বের কাছে পরিচয় করিয়ে দেয়। এসব সংস্কৃতিই বলে দেয় এক একটি জাতির নিজস্বতা। এমনকি প্রতিটি জাতিকে ভিন্নতা দেয় এ সংস্কৃতিই। তাই বলা হয় ভাষা, শিক্ষা ও সংস্কৃতি হলো একটি জাতিসত্তার প্রাণস্বরূপ।

বিদায়ী বছরের সব ভুল-ভ্রান্তি, ব্যর্থতা-গ্লানি এবং আক্ষেপ ভুলে নতুন বছরে নতুন উদ্যম ও উদ্দীপনায় নিজ নিজ ক্ষেত্রে দেশ গড়ার কাজে নিজেদের নিয়োজিত করার আহ্বান জানান মেয়র।

সোমবার (১৫ এপ্রিল) সমাপনী দিনে থাকবে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। বিকেল ৩টা থেকে ৫টা পর্যন্ত চসিক পরিচালিত স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থী, অতিথি শিল্পী, চট্টগ্রাম-পার্বত্য চট্টগ্রামের শিল্পীরা লোকগীতি, নৃত্য ও মরমি সঙ্গীত পরিবেশন করবেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৫০ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৪, ২০১৯
এআর/এসি/টিসি

ঝিনাইদহে দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১৫
ছোটপর্দায় আজকের খেলা
দৃশ্যমান হলো পদ্মাসেতুর ১৯৫০ মিটার
সরগরম খ্যাতির ‘চিকন সেমাইপল্লি’
সিলেটে মহাসড়কে খানাখন্দ, আঞ্চলিক সড়কের বেহাল দশা


‘কবি নজরুলের ইচ্ছা পূরণ হয়েছিল বঙ্গবন্ধুর মাধ্যমে’
চতুর্থ দিনের মতো ট্রেনের টিকিট বিক্রি শুরু
পুরনো রূপে কমলাপুর রেলস্টেশন, টিকিটপ্রত্যাশীদের স্রোত
নদীপাড়ের বাণিজ্যকেন্দ্র ঐতিহ্যবাহী উৎরাইল হাট!
বরিশালের সড়কে প্রথমবার থ্রিডি জেব্রা ক্রসিং