বিকট শব্দে ঘুম ভেঙ্গে দেখে পাহাড় পড়েছে বাসার উপর

2260 | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton
টানা বর্ষণে চট্টগ্রাম নগরীর খুলশী থানার লালখান বাজার বাঘঘোনা এলাকায় পাহাড়ের একাংশ ধসে পড়েছে পাদদেশে থাকা দু’টি ভবনের পাশে। এতে দুই ভবনসহ আশপাশের বাসিন্দাদের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পড়েছে।

চট্টগ্রাম: টানা বর্ষণে চট্টগ্রাম নগরীর খুলশী থানার লালখান বাজার বাঘঘোনা এলাকায় পাহাড়ের একাংশ ধসে পড়েছে পাদদেশে থাকা দু’টি ভবনের পাশে। এতে দুই ভবনসহ আশপাশের বাসিন্দাদের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পড়েছে।

রোববার বিকেল ৩টার দিকে এ ঘটনা ঘটেছে। তবে পাহাড় ধসের কারনে হতাহতের কোন ঘটনা ঘটেনি।

স্থানীয় বাসিন্দারা ‍অভিযোগ করেছেন, বাঘঘোনা পাহাড়ের উপর জনৈক ইসমাইল কন্ট্রাক্টর পাঁচতলা ভবন নির্মাণ করায় পাহাড়ের ভিত্তি দুর্বল হয়ে পড়েছে। এ কারণে পাদদেশে বেশ কয়েকটি ভবন ঝুঁকির মধ্যে পড়েছে।

এছাড়া ধসের কারণে পাহাড়ের উপরে থাকা ইসমাইল কন্ট্রাক্টরের ভবনটিও ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে বলে জানান বাসিন্দারা।

ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা গেছে, বাঘঘোনা এলাকায় ১৬৮ নম্বর আকতারি বেগমের দোতলা ভবন এবং পাশের সুরাইয়া বেগমের মালিকানাধীন কানুনগো সাহেবের পাঁচতলা ভবনের উপরে পাহাড়ের একাংশ, মাটি, বালির বস্তা, কলাগাছ, কাঁঠাল গাছ ধসে পড়েছে। পাহাড়ের মাটি আর বালিতে পুরো ভবন কর্দমাক্ত হয়ে পড়েছে।

আকতারি বেগমের পুত্রবধ‍ূ জোহরা খানম বাংলানিউজকে বলেন, বিকেল ৩টার দিকে আমরা সবাই ঘুমাচ্ছিলাম। হঠাৎ বিকট শব্দ শুনে জেগে উঠি। ছাদে উঠে দেখি পাহাড়ের উপর থেকে মাটি, বালির বস্তা আর গাছপালা আমাদের ছাদের উপর পড়েছে। আমরা চিৎকার শুরু করি।

সুরাইয়া বেগমের মেয়ে তানিয়া আক্তার বাংলানিউজকে বলেন, শব্দ শুনে আমাদের বিল্ডিংয়ের ভাড়াটিয়া ছোট ছোট শিশুগুলো কান্না শুরু করে। আমাদের এখন বাসায় থাকাই দায় হয়ে পড়েছে।

জোহরা খানম বলেন, গত বৃহস্পতিবারও একবার পাহাড়ের কিছু অংশ ভেঙ্গে আমাদের ছাদে পড়েছিল। এরপর আমরা এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য ইসমাইল সাহেবকে অনেক অনুরোধ করেছিলাম। ২০১০ সালে তিনি যখন বিল্ডিং বানাচ্ছিলেন তখনও তাকে ভিত্তি শক্ত করার জন্য বলেছিলাম। কিন্তু তিনি ঠিকাদার হিসেবে দাপট দেখিয়ে বিল্ডিং বানিয়ে ফেলেছেন।

এ বিষয়ে বক্তব্য জানার জন্য বেশ কয়েকবার পাহাড়ের উপরের ভবন মালিক ইসমাইল কন্ট্রাক্টরকে ফোন করা হলেও তা বন্ধ পাওয়া গেছে।

এদিকে পাহাড় ধসের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যান নগর পুলিশের পাঁচলাইশ জোনের সহকারী কমিশনার দীপকজ্যোতি খীসা, স্থানীয় মহিলা কাউন্সিলর মনোয়ারা বেগম মণি এবং ফায়ার সার্ভিসের উপ সহকারী পরিচালক জসীম উদ্দিনের নেতৃত্বে একটি টিম।

এর আগে রোববার ভোরে নগরীর লালখান বাজারের কুসুমবাগ এলাকায় পাহাড়ের উপর থেকে একটি বাসার পাশে মাটি ধসে পড়ে। তবে এতে হতাহত কিংবা ক্ষয়ক্ষতির কোন ঘটনা ঘটেনি বলে জানিয়েছেন নগর পুলিশের পাঁচলাইশ জোনের সহকারী কমিশনার দীপকজ্যোতি খীসা।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৪০ঘণ্টা, জুন ২২,২০১৪

খুমেকে করোনার উপসর্গ নিয়ে একজনের মৃত্যু
সোমবার থেকে করোনা রোগী ভর্তি হচ্ছে রেলওয়ে হাসপাতালে
আমার ব্যক্তিগত পছন্দের একটি গান ‘বেঁচে নেই’: অটমনাল মুন
পদ্মাসেতুর সাড়ে ৪ কিলোমিটার দৃশ্যমান 
গ্রিসে ভ্রমণের অনুমতি পেল না যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, ইতালি


কাটছে না খুলনার উপকূলের দুর্গতদের দুঃখ-দুর্দশা!
লিবিয়ায় নিহত মাগুরার লালচাঁদ, আহত এক
করোনা হটাতে ১৯ হাজার কোটি টাকার ৪ প্রকল্প উঠছে একনেকে
শনিবার ভিডিও কনফারেন্সে ১৮ বিচারকের শপথ
সবকিছু খুলে দিলে বিপদ হবে ত্রিমুখী: ডা. লেলিন