php glass

পাঠক-দর্শনার্থীর পদভারে মুখর ময়মনসিংহের বইমেলা 

এম আব্দুল্লাহ আল মামুন খান, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বিভাগীয় বইমেলায় দর্শনার্থীদের ভিড়। ছবি: অনিক খান/বাংলানিউজ

walton

ময়মনসিংহ: মা-বাবার কোলে-পিঠে চড়ে বা হাত ধরে স্টলে স্টলে ঘুরছে শিশুরা। নেড়ে-চেড়ে বই-ও দেখছে। আবার বায়না ধরছে ‘এই বই কিনবো।’ উচ্ছ্বসিত বাবা-মা বায়না মেটাতেই পছন্দের বই বগলদাবা করে ছুটছে গন্তব্যে। 

প্রায় প্রতিটি স্টলেই ওদের আনাগোনা। আবার বইমেলার কোনো কোনো স্টলে নতুন বইয়ের গন্ধ শোকা খেলাতেও মেতে উঠছে শিশুরা। অপার আনন্দে আচ্ছন্ন হয়ে প্রতিটি শিশু মন চাঙ্গা হচ্ছে নতুন বইয়ের গন্ধে। 

শিশুদের পদচারণায় মুখর এই চিত্রটি ময়মনসিংহ শহরের টাউন হল মাঠের বিভাগীয় বইমেলার। ৬ দিনব্যাপী এই বইমেলার দ্বিতীয় দিনে মঙ্গলবার (২৬ মার্চ) সন্ধ্যার পর দেখা মিললো এমন চিত্রের। 

অবশ্য সময় গড়াতেই সব বয়সী পাঠকের ভিড়ও বাড়ছে। মেলায় ৭৬ টি স্টল রয়েছে। প্রতিদিন বিকেল ৩ টা থেকে রাত ৯ টা পর্যন্ত এবং ছুটির দিন সকাল ১১ টা থেকে রাত ৯ টা পর্যন্ত বইমেলা চলবে।  

আহমদ পাবলিকেশন্স হাউজ নামের ৪১ নম্বর স্টলে বাবা-মার সঙ্গে বই কিনতে এসেছে আফরিতা মোবাশ্যিরা (১০)। শহরের বিদ্যাময়ী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির এই শিক্ষার্থীর পছন্দের তালিকায় রয়েছে গল্পের বই। ৮ বছর বয়স থেকেই বই পড়ার অভ্যাস শিশুটির। 

আর বই পড়তে তাকে বরাবরই উৎসাহ দিয়েছেন এনজিও চাকুরে বাবা আহসান হাবিব (৪০) ও মা মাকছুদা বেগম (৩৫)। মোবাশ্যিরা বাংলানিউজকে বলে, গল্পের পাশাপাশি ছড়া, ধাঁধা ও কমিকসের বইও পছন্দ তার।

আলাপের সময়েই আফরিতা মোবাশ্যিরার সাড়ে ৩ বছর বয়সী ছোট ভাই জোনাইদ বিন আহসান বায়না ধরলো কমিকসের বই কিনবে। 

‘কমিকস হিটলু’ নামের বইটি হাতে নিয়ে বললো, ‘বাবা আমি এই বই কিনবো।’ মহান স্বাধীনতা দিবসে জামায় স্বাধীনতার ব্যাজ সাঁটিয়ে মেলায় এসেছে চঞ্চল এই শিশুটি। 

বইমেলায় অংশ নেওয়া স্টল। ছবি: অনিক খান/বাংলানিউজএই স্টলের মার্কেটিং ম্যানেজার মো. মনিরুজ্জামান বাংলানিউজকে বলেন, বই বিক্রি হচ্ছে কম। তবে সবাই আগ্রহ নিয়ে বই দেখছেন। শিশুদের আনাগোনাও আমাদের মুগ্ধ করেছে। 

খানিক দূরের বেহুলা বাংলা স্টলে দেখা হলো সপরিবারে মেলায় আসা ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের চিকিৎসক শাহ মো. আতিকুল হকের সঙ্গে। এনাটমি বিভাগের এই চিকিৎসক ল্যাটিন আমেরিকার অনুবাদগ্রন্থও পছন্দ করেন। 

স্ত্রীর কোলে চড়া শিশু কন্যা আলিশা মেহজাবিনও বাবার সঙ্গে বই নাড়িয়ে চাড়িয়ে দেখছে। 

বইপ্রেমী চিকিৎসক শাহ মো. আতিকুল হক বাংলানিউজকে জানান, অমর একুশে বইমেলায় প্রতিবারই যাওয়া হয় তার। আর ময়মনসিংহে বইমেলা হলে বইয়ের গন্ধেই ছুটে আসেন। বাবা-মার বই পড়া দেখে আগ্রহ জাগছে শিশু আলিশারও। 

এই স্টলের দায়িত্বে থাকা কবি আলী আশরাফ বাংলানিউজকে বলেন, এখনো পুরোদমে মেলা জমে উঠেনি। আয়োজকরা প্রচারণা কম চালানোর কারণে পাঠকদের কাছে বইমেলার আওয়াজ তেমনভাবে পৌঁছেনি। ত

বে বুধবার থেকে মেলায় বইপ্রেমীদের উপস্থিতি সন্তোষজনক হতে পারে বলে মনে করেন তিনি। 

বেহুলা বাংলার এই স্টলেই পাওয়া যাচ্ছে কবি জুয়েল মাজহারের নির্বাচিত কবিতা’ ও ‘কবিতার ট্রান্সট্রোমার’ নামের দু’টি বই। ‘বেহুলাবাংলা’ থেকে এই দু’টি বই প্রকাশিত হয়েছে। এর মধ্যে ‘নির্বাচিত কবিতা’য় রয়েছে ১৪১টি কবিতা। 

আর ২০১১ সালে সাহিত্যে নোবেলজয়ী সুইডিশ কবি টোমাস ট্রান্সট্রোমারের বাছাই করা কবিতার অনুবাদ সংকলনটিতে ১২৭টি কবিতা রয়েছে। আকর্ষণ হিসেবে আছে টোমাস ট্রান্সট্রোমারের সাক্ষাৎকারও। 

সেরা ১০ টি বই ৬ দিনব্যাপী এই বইমেলায় উল্লেখযোগ্য বই এসেছে। পাঞ্জেরি থেকে প্রকাশিত সেরা ১০ টি বইয়ের একটি তালিকা বাংলানিউজকে দিয়েছেন প্রকাশনা সংস্থাটির মার্কেটিং অফিসার মো. আসিফ আহমেদ। 

এর মধ্যে রয়েছে বিভূতিভূষণ বন্দোপাধ্যায়ের ‘শ্রেষ্ঠ অতিপ্রাকৃত গল্প’, সেলিনা হোসেনের ‘গল্পের নদীতে খেয়াঘাট’, মাহবুবুল হকের ‘গল্পে গল্পে ভাষা আন্দোলন’, খসরু চৌধুরীর ‘পৃথিবীর সেরা সায়েন্স ফিকশন গল্প’, ন.সিদ্দিকীর ‘মা ও রোবট’, জামাল রেজা’র ‘টিনএজ’, অরুণ কুমার বিশ্বাসের ‘ওরা ডিটেকটিভ’, শাহরিয়ারের ‘বেসিক আলী হ্যাকারের খপ্পরে’ ও ‘বেসিক আলী ১১’। 

বাংলাদেশ সময়: ২০৪৮ ঘণ্টা, মার্চ ২৬, ২০১৯
এমএএএম/এমএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ময়মনসিংহ
সাভারে ‘ছেলেধরা’ সন্দেহে দম্পতিকে গণপিটুনি
অর্ধশতক পর ৫২ নাবিকসহ উধাও ফরাসি ডুবোজাহাজের সন্ধান
প্রিয়া সাহার বক্তব্যে চক্রান্ত আছে কিনা খতিয়ে দেখতে হবে
বোয়ালখালীতে যুবকের মরদেহ উদ্ধার
ক্রিকেটে আমরা সবাই একটি পরিবারের মতো: তামিম 


পদ্মার পানি কমায় চরভদ্রাসনে তীব্র ভাঙন
গোবিন্দগঞ্জে ইউপি চেয়ারম্যান পদে উপনির্বাচন স্থগিত
চাকতাই খালে ৬০টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ
জাবিতে গাছ কেটে হল নির্মাণের প্রতিবাদে বিক্ষোভ
লিটন-রিভা গাঙ্গুলী বৈঠক: নৌ-আকাশ-রেল যোগাযোগ চালুতে মত