যে তিন উপায়ে চারদিনেই করোনামুক্ত হচ্ছেন চীনারা

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: সংগৃহীত

walton

ঢাকা: করোনা ভাইরাসের বিষাক্ত ছোবলে বিশ্বব্যাপী প্রতি মুহূর্তে বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা। এরই মধ্যে বিশ্বের ২১৩টি দেশ ও অঞ্চলে একযোগে তাণ্ডব চালাচ্ছে নতুন এই ভাইরাস।

এখন পর্যন্ত শনিবার (১৬ মে) বিশ্বজুড়ে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে ৪৬ লাখ ২৯ হাজার ৪০৭ জন। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৩ লাখ ৮ হাজার ৬৭৬ জনের।

প্রাণঘাতী এই ভাইরাসের ধ্বংসযজ্ঞে অসহায় হয়ে পড়েছে আধুনিক চিকিৎসাবিজ্ঞান। কেননা, এখনো পর্যন্ত এই ভাইরাসের সফল কোনও প্রতিষেধক আবিষ্কার করা সম্ভব হয়নি। আর সে কারণেই দিন দিন বিশ্বব্যাপী দীর্ঘ হচ্ছে লাশের মিছিল। এমন পরিস্থিতিতে করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করতে কিছু ঘরোয়া কৌশল নিয়ে আলোচনা হচ্ছে ইন্টারনেট দুনিয়ায়।

ভারতীয় এক নাগরিক যিনি করোনার উৎপত্তিস্থল চীনের উহানে বসবাস করেন। তার ফেসবুক স্ট্যাটাসের বরাতে ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়েছে এই ঘরোয়া কৌশল। এই কৌশলে মাত্র ৪ দিনেই বিনাশ হচ্ছে করোনা ভাইরাস। ইতোমধ্যে সেই স্ট্যাটাসটি নেট দুনিয়ায় ভাইরাল হয়ে পড়েছে।

এতে বলা হচ্ছে, চীনের প্রতিটি বাড়িতেই করোনা আক্রান্ত রোগী আছে। কিন্তু সেখানকার বাসিন্দারা এই ভাইরাসের জন্য আর কোনো ওষুধ বা ভ্যাকসিন নিচ্ছেন না। তারা এর চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে যাওয়াও বন্ধ করে দিয়েছেন। এর পরিবর্তে তারা গরম পানির ভাপ দিয়ে এই ভাইরাসকে বিনাশ করছেন।

এতে আরও বলা হয়, এজন্য তারা মাত্র ৩টি কাজ করছেন।

সেগুলো-

১. তারা দিনে চার বার কেটলি থেকে গরম পানি ভাপ নিচ্ছেন।

২. দিনে চার বার গরম পানি দিয়ে গড়গড়া করছেন।

৩. আর দিনে চার বার গরম চা পান করছেন।

এভাবে টানা ৪ দিন এই ৩টি কাজ করেই ভাইরাসটিকে দমন করছেন তারা। এভাবেই ৫ দিনে হচ্ছেন করোনা নেগেটিভ বলে ওই স্ট্যাটাসে দাবি করা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৫৫ ঘণ্টা, মে ১৬, ২০২০
এএটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: করোনা ভাইরাস
ধুনটে বজ্রপাতে দুই ব্যবসায়ীর মৃত্যু
রাজশাহীর দুই ল্যাবে আরও ৭ জনের করোনা শনাক্ত
৮০ কিমি বেগে ঝড়ের আশঙ্কা, প্রবণতা থাকবে দু’দিন
ভারতে ফসলের মাঠ থেকে লোকালয়ে হানা দিচ্ছে পঙ্গপাল
পেছাচ্ছে না টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ


৩১ মে থেকে ‘সীমিত পরিসরে’ চলবে গণপরিবহন
রূপগঞ্জে দু’গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ২০
নওগাঁয় পৃথক ঘটনায় ২ জনের মৃত্যু
কাটছে ঈদের আমেজ, সড়ক-অলিগলিতে বাড়ছে ভিড়
নারী-শিশু নির্যাতনের ৬ ঘটনায় মহিলা পরিষদের উদ্বেগ