মতি মধুর প্রতি বোতলে ৫০ টাকা ছাড়!

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

মতি অ্যান্ড সন্সের স্টলে মধু ক্রেতাদের ভিড়। ছবি: সুমন শেখ

ঢাকা: সরিষা, কালোজিরা ও লিচু ফুল থেকে উৎপাদিত উৎকৃষ্ট জাতের প্রতিবোতল মধুতে ৫০ টাকা মূল্যছাড় দিচ্ছে শ্রেষ্ঠ মৌচাষীর খ্যাতিপ্রাপ্ত মতি অ্যান্ড সন্স। ফুড অ্যান্ড অ্যাগ্রো বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল এক্সপো উপলক্ষে কোম্পানিটি তাদের উৎপাদিত মধুর ৬০ গ্রামের বোতল থেকে শুরু করে ১০০০ গ্রাম বা এক কিলোগ্রাম বোতল পর্যন্ত এই মূল্যছাড় দিচ্ছে।

বৃহস্পতিবার (২২ মার্চ) রাজধানীর আন্তর্জাতিক কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) আয়োজিত ফুড অ্যান্ড অ্যাগ্রো বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল এক্সপো, তৃতীয় অ্যাগ্রোক্যাম বাংলাদেশ এক্সপো ও তৃতীয় ইন্টারন্যাশনাল পোল্ট্রি অ্যান্ড লাইভস্টক বাংলাদেশ এক্সপোতে মতি অ্যান্ড সন্সের স্টলে ঘুরে এ তথ্য জানা যায়।

স্টলের কর্মকর্তারা জানান, এই প্রদর্শনীতে সরিষা, কালোজিরা ও লিচু ফুলের উৎকৃষ্ট জাতের মধু নিয়ে এসেছে মতি অ্যান্ড সন্স। মুন্সীগঞ্জ, শরীয়তপুর ও গাজীপুরে যথাক্রমে সরিষা, কালোজিরা ও লিচু ফুলের মধু উৎপাদিত হয়। প্রতিকেজি সরিষা ফুলের মধু ৫০ টাকা মূল্যছাড় দিয়ে ৫৫০ টাকা, কালোজিরা ফুলের মধু ৫০ টাকা মূল্যছাড় দিয়ে ৭৫০ টাকা ও লিচু ফুলের মধু ৫০ টাকা মূল্যছাড় দিয়ে ৫৫০ টাকা করে বিক্রি হচ্ছে।

তবে মতি অ্যান্ড সন্সের প্রতি বোতল মধুতে এই মূল্যছাড়ের অফার কেবল প্রদর্শনী চলাকালে থাকবে জানিয়ে স্টল কর্মীরা বলেন, ২০১১ সালে জাতীয় মৌচাষী সম্মেলনে তৎকালীন বাণিজ্যমন্ত্রী ফারুক খানের কাছ থেকে জাতীয় শ্রেষ্ঠ মধু হিসেবে পুরস্কার লাভ করে মতি মধু। এছাড়া ২০১৭ সালে বাংলাদেশ সরকারের কৃষি ও পুষ্টি মেলায় মতি মধু প্রথম পুরস্কার লাভ করে। তাই ক্রেতারা নিশ্চিন্ত মনে শতভাগ মতি মধু খেতে পারবেন।

মতি অ্যান্ড সন্সের ব্যবস্থাপক পাভেল বাংলানিউজকে বলেন, আমাদের মধু সারাদেশে পরিচিত এবং বিশুদ্ধতায় মানুষের আস্থা অর্জন করতে পেরেছে। এছাড়া আমরা আমাদের মধু জাপান ও ভারতে রপ্তানি করছি। দেশীয় ও আন্তর্জাতিক ক্রেতাদের উৎকৃষ্ট মানের মধু দেওয়ার প্রচেষ্টা আমরা সবসময় করি।

মতি অ্যান্ড সন্সের মধু প্রদর্শনীতে ভালো কেনা-বেচা হচ্ছে বলেও জানান পাভেল।

কনফারেন্স অ্যান্ড এক্সিবিশন ম্যানেজমেন্ট সার্ভিসেস লিমিটেডের (সেমস গ্লোবাল) আয়োজনে ২১ মার্চ শুরু হওয়া এ প্রদর্শনী চলবে আগামী ২৪ মার্চ (শ‌নিবার) পর্যন্ত। প্রদর্শনী প্রতিদিন সকাল সাড়ে ১০টা থেকে রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত সবার জন্য উন্মুক্ত থাকছে।

আ‌য়োজকরা জানান, এবারের প্রদর্শনীতে বাংলাদেশ ছাড়াও থাইল্যান্ড, ইন্দোনেশিয়া, যু্ক্তরাষ্ট্র, শ্রীলঙ্কা, চীন, রাশিয়া, ভিয়েতনাম ও ভারতের খাদ্যপণ্য, কৃষিজাত উপকরণ উৎপাদন ও প্রক্রিয়াজাতকরণ শিল্পের খ্যাতনামা প্রায় ১৩০টি প্র‌তিষ্ঠানের ১৮০টি স্ট‌ল অংশ নিয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৪৩ ঘণ্টা, মার্চ ২২, ২০১৮
এমএসি/এইচএ/

বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক আরো শক্তিশালী হয়েছে 
নায়ক-গায়ক জাফর ইকবালের জন্ম
এনটিআরসিএ’র নতুন চেয়ারম্যান খান মোহাম্মদ বিলাল
আমার বক্তব্যের ভুল ব্যাখ্যা করা হয়েছে: ড. কামাল
আবুল হাসান সাহিত্য পুরস্কার-সম্মাননায় ৪ সাহিত্যিক ভূষিত
ছাত্রদল-যুবদলের ৯ নেতাকর্মী কারাগারে
বিদ্যুৎ খাতকে ত্রুটিমুক্ত রাখতে হবে
সিআরবিতে ইয়াং বাংলার ‘লেটস টক’
ট্রেনের ছাদ থেকে ছাত্রকে ফেলে দিলো ছিনতাইকারীরা
রোহিঙ্গা সঙ্কট সমাধানে প্রধানমন্ত্রীর তিন প্রস্তাব