মাতৃভাষা দিবসে ক্যাম্পস’র ফ্রি স্বাস্থ্য সেবা

396 | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton
দেশের সর্ববৃহৎ ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্পে সাড়ে তিন হাজার দরিদ্র ও চিকিৎসা সুবিধাবঞ্চিত রোগিদের বিভিন্ন বিভাগে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা দেওয়া হয়েছে। বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়াও এসব রোগিদের প্রয়োজনীয় ল্যাব টেস্ট ও ওষুধপত্র বিনামূল্যে বিতরণ করা হয়।

ঢাকা: দেশের সর্ববৃহৎ ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্পে সাড়ে তিন হাজার দরিদ্র ও চিকিৎসা সুবিধাবঞ্চিত রোগিদের বিভিন্ন বিভাগে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা দেওয়া হয়েছে। বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়াও এসব রোগিদের প্রয়োজনীয় ল্যাব টেস্ট ও ওষুধপত্র বিনামূল্যে বিতরণ করা হয়।

প্রতিবছরের মতো এবারও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে কিডনি এওয়ারনেস মনিটরিং অ্যান্ড প্রিভেনশন সোসাইটি (ক্যাম্পস) ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প ও স্বাস্থ্য শিক্ষামেলার আয়োজন করে। শনিবার (২১ ফেব্রুয়ারি) টাঙ্গাইলের সখিপুর উপজেলার হাতিবান্ধা গ্রামের তালিম ঘর প্রাঙ্গণে দিনব্যাপী এ কমসূচি পালিত হয়েছে। বিগত ১০ বছরের ধারাবাহিকতায় এবারও এ কর্মসূচি পালিত হলো।

দেশের শীর্ষস্থানীয় কিডনি বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. এম এ সামাদের প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধানে অনুষ্ঠিত দিনব্যাপী এ কর্মসূচির অংশ হিসেবে ‘সবার জন্য সুস্থ কিডনি: প্রয়োজন গণসচেতনতা’ শীর্ষক একটি আলোচনা সভাও অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্পে আসা রোগিদের কিডনি, হার্ট, লিভার, গাইনি, অর্থপেডিক, গ্যাস্ট্রএন্টোলজি, ডায়াবেটিস, নাক কান গলা, সার্জারি, মেডিসিন, ডেন্টাল, বাত ব্যথা প্যারালাইসিস, নাক কান গলাসহ সব বিভাগে চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হয়। এছাড়া ২৫০’র অধিক চক্ষু রোগিদের চোখের ছানি অপারেশন ও লেন্স প্রতিস্থাপনের ব্যবস্থা করা হয় এবং প্রয়োজনীয় রক্ত পরীক্ষা, ইউরিন পরীক্ষা, রক্তের ক্রিয়েটিনিন পরীক্ষা, ডায়াবেটিস পরীক্ষা, আলট্রাসনোগ্রাম ও ইসিজি বিনামূল্যে সম্পন্ন করা হয়।

স্বাস্থ্য মেলার উদ্বোধন করেন- বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক গাজী আশরাফ হোসেন লিপু। এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন- অধ্যাপক ডা. কাজী রফিকুল আবেদীন, পরিচালক, ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব কিডনি ডিজিজেস অ্যান্ড ইউরোলজি, বুরো বাংলাদেশ’র নির্বাহী পরিচালক মো. জাকির হোসেন, টাংগাইল জেলার সিভিল সার্জন ডা. সৈয়দ ইবনে সাঈদ।

ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্পের উপদেষ্টা এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক মহাব্যবস্থাপক মো. আব্দুল মালেক মিঞার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ আলোচনা সভায় কিডনি বিষয়ের ওপর মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ক্যাম্পস’র সভাপতি ও ল্যাবএইড স্পেশালাইজড হাসপাতালের চিফ কনসালটেন্ট ও বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডা. এম এ সামাদ।

সভায় গাজী আশরাফ হোসেন লিপু বলেন, আমাদের দেশের অধিকাংশ মানুষই স্বাস্থ্য সেবা থেকে বঞ্চিত। গ্রাম-বাংলার প্রতিটি অঞ্চলে এ ধরনের মহৎ উদ্যোগ গ্রহণ করা হলে স্বাস্থ্য ঝুঁকি এড়ানো সম্ভব। এক্ষেত্রে ব্যক্তি, সরকার ও বেসরকারি পর্যায়ে সহযোগিতা অতিব জরুরি। পাশাপাশি তিনি বিশেষভাবে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন অধ্যাপক ডা. এম এ সামাদকে তার এই কল্যাণমুখী কর্মকাণ্ডের জন্য।

সভায় মূল আলোচক বিশিষ্ট কিডনি রোগ বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. এম এ সামাদ বলেন, ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধার্থেই ক্যাম্পস গত ১১ বছর ধরে দরিদ্রদের মধ্যে এই স্বাস্থ্য সেবা প্রদানের আয়োজন করে থাকে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে প্রায় দুই কোটি লোক কোনো না কোনো কিডনি রোগে আক্রান্ত। কিডনি রোগে আক্রান্ত হয়ে প্রতি ঘন্টায় মৃত্যুবরণ করছে ৫ জন লোক। সাধারণত ৭৫ ভাগ কিডনি নষ্ট হওয়ারর আগে রোগি বুঝতেই পারে না যে, সে ঘাতক ব্যাধিতে আক্রান্ত। কিডনি যখন বিকল হয়ে যায় তখন বেঁচে থাকার একমাত্র উপায় ডায়ালাইসিস অথবা কিডনি সংযোজন। তাই কিডনি সম্পর্কে জনসচেতনতা সৃষ্টি করতে প্রাথমিক অবস্থায় কিডনি রোগের কারণ ও কিডনি রোগ শনাক্ত করে কিডনি বিকল রোগিদের চিকিৎসা প্রদানের লক্ষেই গঠন করা হয় ক্যাম্পস।

অনুষ্ঠানের সভাপতি আব্দুল মালেক তার বক্তব্যে বলেন, আমরা বিশেষ বিশেষ দিনগুলোকে সামনে রেখে যদি এই ধরনের উদ্যোগ নিতে পারি তবে গ্রামের অনেক অসহায় রোগি তারা চিকিৎসা সেবা গ্রহণ করতে পারবে।

ফ্রি মেডিকেল ও চক্ষু ক্যাম্পের আলোচনা অনুষ্ঠানে ক্যাম্পস, ব্যবস্থাপনা পরিচালক, নাসরিন বেগম স্বাস্থ্য মেলায় আগত সবাইকে ধন্যবাদ জানান। 

বাংলাদেশ সময়: ২০০৪ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০১৫ 

ফায়ার সার্ভিসের ল্যান্ড ফোন বিকল
মিরপুর ও নারায়ণগঞ্জে করোনা পরিস্থিতি ভয়ংকর
ঢাকার বাইরে করোনা রোগী বেড়েছে
এটিএম বুথগুলোর সামনে ‘সামাজিক দূরত্ব’ মানা হচ্ছে না!
ফেনীতে করোনা উপসর্গ নিয়ে একজনের মৃত্যু


বগুড়ায় হতদরিদ্রদের ৫০ বস্তা চালসহ কৃষক লীগ নেতা আটক
সাহায্যের জন্য নগদ অর্থ সংগ্রহ করবেন না: মুখ্যমন্ত্রী
সিলেটে প্রবাস ফেরত যুবককে কুপিয়ে খুন
নারায়ণগঞ্জে বিভিন্ন বাসার ছাদে সারারাত জামাতে নামাজ আদায়
রাজশাহীতে ৩৩৭ জনের নমুনা সংগ্রহ