ঢাকা, বুধবার, ১৫ আশ্বিন ১৪২৭, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১ সফর ১৪৪২

ফিচার

ইতিহাসের এই দিনে

তারেক মাসুদ-মিশুক মুনীরের প্রয়াণ

ফিচার ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০২৩ ঘণ্টা, আগস্ট ১৩, ২০২০
তারেক মাসুদ-মিশুক মুনীরের প্রয়াণ

ইতিহাস আজীবন কথা বলে। ইতিহাস মানুষকে ভাবায়, তাড়িত করে।

প্রতিদিনের উল্লেখযোগ্য ঘটনা কালক্রমে রূপ নেয় ইতিহাসে। সেসব ঘটনাই ইতিহাসে স্থান পায়— যা কিছু ভালো, যা কিছু প্রথম, যা কিছু মানব সভ্যতার আশীর্বাদ-অভিশাপ।

ইতিহাসের দিনপঞ্জি মানুষের কাছে সবসময় গুরুত্ব বহন করে। এ গুরুত্বের কথা মাথায় রেখে বাংলানিউজের পাঠকদের জন্য নিয়মিত আয়োজন ‘ইতিহাসের এই দিন’।

১৩ আগস্ট ২০২০, বৃহস্পতিবার। ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ। এক নজরে দেখে নিন ইতিহাসের এই দিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য ঘটনা, বিশিষ্টজনের জন্ম-মৃত্যুদিনসহ গুরুত্বপূর্ণ আরও কিছু বিষয়।

ঘটনা
•    ১৬৪৫- সুইডেন ও ডেনমার্ক শান্তি চুক্তি সম্পন্ন।
•    ১৭৪০- রটারড্যামে অনশন ধর্মঘট শুরু।
•    ১৭৮৪- ইংল্যান্ডের পার্লামেন্টে ভারত আইন গৃহীত।
•    ১৭৯২- ফ্রান্সের বিপ্লবীরা রাজপরিবারের লোকদের বন্দি করে।
•    ১৯৬০- মধ্য আফ্রিকান প্রজাতন্ত্র ফরাসি উপনিবেশ থেকে স্বাধীনতা লাভ করে।
•    ১৯৬১- বার্লিন প্রাচীর নির্মাণ কাজ শুরু করে।

জন্ম
•    ১৮৪৮- সাহিত্যিক ও ঐতিহাসিক রমেশ চন্দ্র দত্ত।
•    ১৮৮৮- টেলিভিশনের আবিষ্কারক জন বেয়ার্ড।
•    ১৮৯৯- ইংরেজ চলচ্চিত্র নির্দেশক ও প্রযোজক স্যার আলফ্রেড যোসেফ হিচকক।
•    ১৯২৬- সমাজবাদী কিংবদন্তি বিপ্লবী ও কিউবার প্রয়াত প্রেসিডেন্ট ফিদেল কাস্ত্রো।

মৃত্যু
•    ১৯৪৬- ইংরেজ ঔপন্যাসিক এইচ জি ওয়েল্স।
•    ২০১১- বাংলাদেশের বিশিষ্ট চলচ্চিত্র পরিচালক, প্রযোজক, চিত্রনাট্যকার, লেখক ও গীতিকার তারেক মাসুদ।

মাটির ময়না তার প্রথম ফিচার চলচ্চিত্র, যার জন্য তিনি ২০০২ সালে কান চলচ্চিত্র উৎসবে ডিরেক্টর ফোর্টনাইটসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক খ্যাতি অর্জন করেন এবং এটি বাংলাদেশের প্রথম চলচ্চিত্র হিসেবে সেরা বিদেশি ভাষার চলচ্চিত্রের জন্য একাডেমি পুরস্কারে মনোনীত হয়। বাংলাদেশের বিকল্প ধারার চলচ্চিত্র নির্মাতাদের সংগঠন শর্ট ফিল্ম ফোরামের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য তিনি। তার সর্বশেষ ফিচার চলচ্চিত্র রানওয়ে মুক্তি পায় ২০১০ সালে। ২০১২ সালে তাকে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মান একুশে পদক দেওয়া হয়। তারেক মাসুদ ১৯৫৭ সালে ফরিদপুরের ভাঙ্গায় নূরপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। মায়ের নাম নুরুন নাহার মাসুদ ও বাবার নাম মশিউর রহমান মাসুদ। ২০১১ সালের ১৩ আগস্ট কাগজের ফুল নামক চলচ্চিত্রের লোকেশন নির্বাচন শেষে ঢাকা ফেরার পথে মানিকগঞ্জে দুপুর ১২টা ২৫ মিনিটে সড়ক দুর্ঘটনায় তারেক মাসুদ, মিশুক মুনীরসহ পাঁচজন ঘটনাস্থলেই মারা যান।

•    ২০১১- সম্প্রচার সাংবাদিকতার রূপকার, চিত্রগ্রাহক ও সাংবাদিক ব্যক্তিত্ব মিশুক মুনীর।

তার পুরো নাম আশফাক মুনীর চৌধুরী। তিনি শহীদ বুদ্ধিজীবী মুনীর চৌধুরীর মেজ ছেলে। মিশুক মুনীর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর পাস করেন। পড়ালেখা শেষ করে একই বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিক বিভাগে শিক্ষকতা শুরু করেন। ১৯৯৮ সালে তিনি শিক্ষকতা ছেড়ে পুরোদস্তুর সাংবাদিকতায় যুক্ত হন। মিশুক মুনীর ১৯৯৯ সালে একুশে টেলিভিশনের প্রথম যাত্রায় হেড অব নিউজ অপারেশনের দায়িত্ব নিয়ে দেশে আন্তর্জাতিক ধারার টেলিভিশন সাংবাদিকতার সূচনা করেন। ২০০৭ সালে কানাডিয়ান সাংবাদিক পল জেয়োর সঙ্গে প্রতিষ্ঠা করেন আন্তর্জাতিক সংবাদ টেলিভিশন রিয়েল নিউজ নেটওয়ার্ক। ২০১১ সালের ১৩ই আগস্ট মানিকগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় তারেক মাসুদের সঙ্গে তিনিও নিহত হন।

বাংলাদেশ সময়: ০০১০ ঘণ্টা, আগস্ট ১৩, ২০২০
টিএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa