ঢাকা, শনিবার, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৫ আগস্ট ২০২০, ২৪ জিলহজ ১৪৪১

ফিচার

ইতিহাসের এই দিনে

চার্লস ডারউইনের প্রয়াণ

ফিচার ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০৩০ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৯, ২০২০
চার্লস ডারউইনের প্রয়াণ

ঢাকা: ইতিহাস আজীবন কথা বলে। ইতিহাস মানুষকে ভাবায়, তাড়িত করে। প্রতিদিনের
উল্লেখযোগ্য ঘটনা কালক্রমে রূপ নেয় ইতিহাসে। সেসব ঘটনাই ইতিহাসে স্থান পায়, যা
কিছু ভালো, যা কিছু প্রথম, যা কিছু মানব সভ্যতার আশির্বাদ-অভিশাপ।

ইতিহাসের দিনপঞ্জি মানুষের কাছে সবসময় গুরুত্ব বহন করে। এ গুরুত্বের কথা মাথায়
রেখে বাংলানিউজের পাঠকদের জন্য নিয়মিত আয়োজন ‘ইতিহাসের এইদিন’।

১৯ এপ্রিল ২০২০, রোববার। ০৬ বৈশাখ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ। এক নজরে দেখে নিন ইতিহাসের এই দিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য ঘটনা, বিশিষ্টজনের জন্ম-মৃত্যুদিনসহ গুরুত্বপূর্ণ আরও কিছু বিষয়।

ঘটনা

১৯৪৮- মিয়ানমার জাতিসংঘে যোগ দেয়।

১৯৭৫- ভারতের প্রথম কৃত্রিম উপগ্রহ আর্যভট্ট উৎক্ষেপণ করা হয়।  

জন্ম          

১৯৩১- মার্কিন সফটওয়্যার প্রকৌশলী ও কম্পিউটার বিজ্ঞানী ফ্রেড ব্রুক্‌স।

১৯৩৩- অবসরপ্রাপ্ত ও খ্যাতনামা ব্রিটিশ ক্রিকেট আম্পায়ার ডিকি বার্ড। তাকে ক্রিকেট বিশ্বের শ্রেষ্ঠ আম্পায়ার বলা হয়। আম্পায়ার হিসেবে ক্যারিয়ার শুরুর আগে তিনি যুক্তরাজ্যের লিগ ক্রিকেট খেলতেন। ১৯৭০ সালে প্রথমবারের মতো কাউন্টি ক্রিকেটে আম্পায়ার হিসেবে নিযুক্ত হন তিনি। ক্রিকেট ম্যাচে আম্পায়ারের ভূমিকায় তার মানসিক দৃঢ়তা ছিল উল্লেখ করার মতো। তিনি অনেক নামি-দামি খেলোয়াড়ের শ্রদ্ধার পাত্র ছিলেন। ১৯৯৬ সালে ডিকি বার্ড তার ৬৬তম ও চূড়ান্ত টেস্টে ইংল্যান্ড বনাম ভারতের মধ্যকার খেলা শেষে মাঠ থেকে চলে আসার সময় গার্ড অব অনার পান এবং স্টেডিয়ামে উপস্থিত দর্শকেরাও তাকে দাঁড়িয়ে শ্রদ্ধা প্রদর্শন করেন।

১৯৮৭- রুশ টেনিস খেলোয়াড় মারিয়া শারাপোভা। তিনি চারবারের গ্র্যান্ড স্ল্যাম সিঙ্গেলস চ্যাম্পিয়ন ও তিনবারের রানার আপ।
 

১৯৬৮- ভারতীয় চলচ্চিত্র অভিনেতা আরশাদ ওয়ার্সি।

মৃত্যু 

১৮২৪- অ্যাংলো-স্কটিশ কবি লর্ড বায়রন।  

১৮৮২- ব্রিটিশ জীববিজ্ঞানী এবং বিবর্তনবাদের প্রবর্তক চার্লস ডারউইন। যুক্তরাজ্যের এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে তার জন্ম। তার বাবা ছিলেন একজন নামকরা চিকিৎসক। তিনিই প্রথম প্রত্যক্ষ পর্যবেক্ষণের মাধ্যমে বিবর্তনবাদের ধারণা দেন। তিনিই সর্বপ্রথম অনুধাবন করেন সব ধরনের প্রজাতিই কিছু সাধারণ পূর্বপুরুষ থেকে এসেছে এবং তার এ পর্যবেক্ষণটি সাক্ষ্য-প্রমাণ দিয়ে প্রতিষ্ঠা করেন। প্রাণিজগতের শাখা-প্রশাখায় ভাগ হওয়ার বিষয়টাকে তিনি প্রাকৃতিক নির্বাচন হিসেবে অভিহিত করেন। তার জীবদ্দশাতেই বিবর্তনবাদ একটি তত্ত্ব হিসেবে বিজ্ঞানী সমাজ ও অধিকাংশ সাধারণ মানুষের কাছে স্বীকৃতি লাভ করে। তবে ১৯৩০ থেকে ১৯৫০ সালের দিকে আধুনিক বিজ্ঞানীরা বিবর্তনিক সংশ্লেষের মাধ্যমে বিবর্তন প্রক্রিয়ায় প্রাকৃতিক নির্বাচনের গুরুত্ব আরও ভালোভাবে অনুধাবন করা সম্ভব হয়। ডারউইনের আরেকটি বৈজ্ঞানিক আবিষ্কার-জীববিজ্ঞানের একত্রীকরণ তত্ত্ব, যা জীববৈচিত্র্যের ব্যাখ্যা দেয়। ১৮৮২ সালের ১৯ এপ্রিল ডারউইন মৃত্যুবরণ করেন।

ডারউইনকে ওয়েস্টমিনস্টার অ্যাবিতে বিজ্ঞানী জন হার্শেল ও আইজ্যাক নিউটনের সমাধির পাশে সমাহিত করা হয়।

১৯১৪- মার্কিন পদার্থবিজ্ঞানী ও দার্শনিক চার্লস স্যান্ডার্স পেয়ার্স।

১৯৫৮- বাঙালি ঔপন্যাসিক অনুরূপা দেবী।

১৯৫৮- ব্রিটিশ ফুটবলার বিলি মেরেডিথ।

বাংলাদেশ সময়: ০০২৭ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৯, ২০২০
টিএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa