ইতিহাসের এই দিনে

আলবার্ট আইনস্টাইনের জন্ম

ফিচার ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

আলবার্ট আইনস্টাইন

walton

ঢাকা: ইতিহাস আজীবন কথা বলে। ইতিহাস মানুষকে ভাবায়, তাড়িত করে। প্রতিদিনের উল্লেখযোগ্য ঘটনা কালক্রমে রূপ নেয় ইতিহাসে। সেসব ঘটনাই ইতিহাসে স্থান পায়, যা কিছু ভালো, যা কিছু প্রথম, যা কিছু মানব সভ্যতার আশীর্বাদ-অভিশাপ।

ইতিহাসের দিনপঞ্জি মানুষের কাছে সবসময় গুরুত্ব বহন করে। এ গুরুত্বের কথা মাথায় রেখে বাংলানিউজের পাঠকদের জন্য নিয়মিত আয়োজন ‘ইতিহাসের এইদিন’।

১৪ মার্চ ২০২০, শনিবার। ২৮ ফাল্গুন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ। একনজরে দেখে নিন ইতিহাসের এইদিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য ঘটনা, বিশিষ্টজনের জন্ম-মৃত্যুদিনসহ গুরুত্বপূর্ণ আরও কিছু বিষয়।

ঘটনা
১৯২৫- প্রথম ট্রান্স-আটলান্টিক রেডিও সম্প্রচার শুরু।
১৯৩৯- কলকাতায় ‘নাট্যনিকেতন’ রঙ্গমঞ্চের উদ্বোধন।
১৯৫৫- ভিয়েতনামে ঐতিহাসিক দিয়েন বিয়েন ফুয়ের যুদ্ধ শুরু।
১৯৭৫- রোম সম্রাট প্রথম কার্দিনান্দ পোপের অনুমতি ছাড়াই অভিষেক অনুষ্ঠান করেন।
১৯৯০- মিখাইল গর্বাচেভ সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন।
১৯৯২- সোভিয়েত ইউনিয়নের ‘প্রাভদা’ পত্রিকার প্রকাশ বন্ধ হয়ে যায়।


জন্ম
১৮৭৯- নোবেলজয়ী পদার্থবিজ্ঞানী আলবার্ট আইনস্টাইন।
অনেকের মতে তিনি সর্বকালের সেরা বিজ্ঞানী। আপেক্ষিকতার তত্ত্ব এবং ভর-শক্তি সমতুল্যতার সূত্র আবিষ্কারের জন্য তিনি বিখ্যাত। তিনি পদার্থবিজ্ঞানের বিভিন্ন ক্ষেত্রে প্রচুর গবেষণা করেছেন। তার উল্লেখযোগ্য অবদানগুলোর মধ্যে রয়েছে আপেক্ষিকতাভিত্তিক বিশ্বতত্ত্ব, কৈশিক ক্রিয়া, ক্রান্তিক উপলবৎ বর্ণময়তা, পরিসাংখ্যিক বলবিজ্ঞানের চিরায়ত সমস্যাসমূহ ও কোয়ান্টাম তত্ত্বে তাদের প্রয়োগ, অণুর ব্রাউনীয় গতির একটি ব্যাখ্যা, আণবিক ক্রান্তিকের সম্ভ্যাব্যতা, আণবিক গ্যাসের কোয়ান্টাম তত্ত্ব, পদার্থবিজ্ঞানের জ্যামিতিকীকরণ প্রভৃতি।

১৯৩৩ সালে এডলফ হিটলার জার্মানিতে ক্ষমতায় থাকাকালে তিনি বার্লিন একাডেমি অব সায়েন্সের অধ্যাপক ছিলেন। ইহুদি হওয়ার কারণে আইনস্টাইন সে সময় দেশত্যাগ করে যুক্তরাষ্ট্রে চলে যান এবং পরে আর জার্মানিতে ফিরে যাননি। ১৯৫৫ সালে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি প্রিন্সটন বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনস্টিটিউট অব অ্যাডভান্সড স্টাডির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। তিনি ১৯২১ সালে পদার্থবিজ্ঞানে নোবেল পুরস্কারে ভূষিত হন। ১৯৯৯ সালে টাইম সাময়িকী আইনস্টাইনকে ‘শতাব্দীর সেরা ব্যক্তি’ ঘোষণা করে।

১৯৬৫- বলিউডের জনপ্রিয় নায়ক আমির খান। 
তিনি প্রযোজক, পরিচালক, চিত্রনাট্য লেখক এবং টেলিভিশন উপস্থাপকও। হিন্দি চলচ্চিত্রে সফল কর্মজীবনের মাধ্যমে আমির খান নিজেকে ভারতীয় চলচ্চিত্রের সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং প্রভাবশালী অভিনেতাদের একজন হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। তিনি চারটি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার এবং সাতটি ফিল্মফেয়ার পুরস্কারসহ অসংখ্য পুরস্কার এবং সম্মাননা অর্জন করেছেন। শিল্পকলার প্রতি তার অবদানের জন্য ভারত সরকার তাকে ২০০৩ সালে পদ্মশ্রী পদক এবং ২০১০ সালে পদ্মভূষণ পদকে ভূষিত করেন। ২০১৩ সালে টাইম ম্যাগাজিনের বিশ্বের সবচেয়ে প্রভাবশালী ১০০ ব্যক্তির তালিকায় তিনি ছিলেন।

মৃত্যু
১৬৮২- সপ্তদশ শতকের প্রখ্যাত ওলন্দাজ চিত্রশিল্পী ইয়াকব ভ্যান রাইস্‌ডেল।
১৮৮৩- প্রভাবশালী জার্মান সমাজবিজ্ঞানী ও মার্ক্‌সবাদের প্রবক্তা কার্ল মার্কস।
১৮৯৯- জার্মান ভাষাতাত্ত্বিক ও দার্শনিক হের্মান স্টাইন্‌টল।
১৯৮১- বিখ্যাত ব্রিটিশ ক্রিকেটার কেন ব্যারিংটন।
১৯৯৫- নোবেলজয়ী মার্কিন পদার্থবিজ্ঞানী উইলিয়াম আলফ্রেড ফোলার।

বাংলাদেশ সময়: ০০৪১ ঘণ্টা, মার্চ ১৪, ২০২০
টিএ/এএ

লাঞ্ছিত না করে শ্রমজীবী মানুষকে খাদ্য দিন: ক্ষেতমজুর সমিতি
সরকারি খাস জমিতে বাড়ি পাচ্ছেন সেই বৃদ্ধ
ছিন্নমূল মানুষকে একবেলা খাবার দেবে ডিএমপি
টিভিতে ‘আমার ঘরে আমার ক্লাস’ শুরু সকাল ৯টায়
ভূতুড়ে নগরী ঢাকা


সংকট মোকাবিলায় জনগণ জাতীয় ঐক্য স্থাপন করেছে: জেএসডি
নারায়ণগঞ্জে পর্যাপ্ত পিপিই মজুদ আছে: ডিসি
বগুড়ায় দিনমজুরদের খাদ্যসামগ্রী দিলেন আ’লীগ নেতা রনি
বগুড়ায় হোম কোয়ারেন্টিনে ৭৫২, ছাড়পত্র পেয়েছে ১৬১ জন
করোনা ইউনিটে নেয়ার পরেই রোগীর মৃত্যু