শিমুল বনে লাগলো যে দোল

হোসাইন মোহাম্মদ সাগর, ফিচার রিপোর্টার | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

শিমুল ফুল। ছবি: শাকিল আহমেদ

walton

ঢাকা: দুর্বা সবুজ ঘাসের উপর যে ফুলটি রাখলে একটা বাংলাদেশ আঁকা হয়, বাংলাদেশের পতাকা মনে হয় তার নাম শিমুল ফুল। টকটকে লাল রঙের এই ফুলটির গন্ধ না থাকলেও প্রকৃতিকে বিমোহিত করে রাঙিয়ে তোলে তার রূপলাবণ্য দিয়ে।

শিমুল ফুল। ছবি: শাকিল আহমেদশীতের পরেই বসন্তের আগমন বার্তা বয়ে আনে এই শিমুল ফুল। গ্রাম বাংলার মানুষ ক্যালেন্ডারের তারিখ গণনা করতে না পারলেও শিমুল গাছে ফুল এলেই বলতে পারে এখন ফাল্গুন মাস এসেছে। গাঢ় লাল রঙের পাপড়ি আর সবুজ রঙের বোঁটায় শোভিত এক অপরূপ ফুলের নাম শিমুল।শিমুল ফুল। ছবি: শাকিল আহমেদইটকাঠের এই শহরে অপরূপ সাজে সজ্জিত শিমুল গাছ এখন বিলুপ্তপ্রায়। তবুও মাঝেমধ্যে চোখে পড়ে অল্প। সেই অল্প একটু রূপের ঝলকেই উঁচু গাছের ডালে ডালে লাল আগুন ছাড়িয়ে তাবৎ মুগ্ধতা ছড়িয়ে শিমুল ফুল জানান দেয় বসন্তের। নিঃসঙ্গ পথের পাশে শিমুলের গাছ যেন অনন্য সৌন্দর্য।

ফুলটি প্রসঙ্গে বাংলাদেশ ন্যাশনাল হারবেরিয়ামের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা খন্দকার কামরুল ইসলাম বলেন, শিমুল পাতাঝরা বৃক্ষ জাতীয় উদ্ভিদ। গাছের উচ্চতা ১৫ থেকে ২০ মিটার। কাণ্ডের চারপাশে সুবিন্যস্ত থাকে শাখা-প্রশাখা, তবে সংখ্যা তুলনামূলকভাবে কম। বৃহদাকার শিমুল গাছে অধিমূল জন্মে। গাছের গায়ে কাঁটা থাকে যার গোড়ার অংশ বেশ পুরু। তবে বয়স্ক গাছে তেমন কাঁটা থাকে না। শীতের শেষে পাতা ঝরে যায়, ফাল্গুনে ফুল ফোটে। ফল মোচাকৃতি। চৈত্র বা বৈশাখ মাসে ফল ফেটে শিমুল তুলা বেরিয়ে আসে।শিমুল ফুল। ছবি: শাকিল আহমেদতিনি বলেন, শীতের শেষে এই গাছের পাতা ঝরে যায়। ফাল্গুন মাসে ফুলের কুঁড়ি আসে এবং চৈত্র মাসে বড় এবং উজ্জ্বল রঙের লাল ফুল ফোটে। এরপর গাছের পাতা গজানো শুরু হয়। ফুলের পাপড়ি ১০ থেকে ১২ সেন্টিমিটার লম্বা হয়। এর পুংকেশের অনেক থাকে। এর স্ত্রীকেশর পুংকেশর অপেক্ষা লম্বায় বড় হয়।

শিমুল ফুল নিয়ে রাজধানীর একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ফাতেমা ইভা বলেন, পথের ধারে শিমুল ফুল পথচারীদের আকৃষ্ট করে। বাংলাদেশের প্রায় সব অঞ্চলে দেখা যায় ফুলটি। তবে বাংলার মাঠে-ঘাটে রাস্তার পাশে অনাদর অবহেলায় বেড়ে উঠে শিমুল গাছ। শিমুল ফুল। ছবি: শাকিল আহমেদকিন্তু সে গাছের সবুজ পাতা, মুকুল, ফুল আর কোকিলের ডাক মনে করিয়ে দেয় বসন্তের বার্তা। আমসহ, লিচু লেবু ও বিভিন্ন গাছের পাতা ও মুকুল দেখে বোঝা যায় শীত বিদায় নিয়ে আবার এলো ফাগুন, এলো বসন্ত।

সত্যিই তাই, বসন্তে শিমুল গাছে রক্ত কবরী লাল রঙের ফুল ফোটে, দৃষ্টি কেড়ে নেই সবার মন। কিছুদিন পরে রক্তলাল থেকে সাদা ধূসর হয়ে তৈরি হয় তুলা। সেই তুলা বাতাসে ভেসে ভেসে দোলা দেয় বসন্তের গায় ও শিমুলের বনে।

বাংলাদেশ সময়: ১০১৮ ঘণ্টা, মার্চ ০৫, ২০২০
এইচএমএস/এএটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ফিচার
করোনা ইউনিটে নেয়ার পরেই রোগীর মৃত্যু
করোনা: একদিনের বেতন দান করল আইইউবিএটি
স্বাস্থ্যকর্মী-সাংবাদিকদের পিপিই দিবে ‘স্নোটেক্স’
আজমিরীগঞ্জে ৭ খুনের পর ফের সংঘর্ষ
ফেনী শহর জীবাণুমুক্ত করতে মাঠে ফায়ার ব্রিগেড


খাদ্য সহায়তা নিয়ে মধ্যরাতে দরিদ্রদের দরজায় কড়া নাড়ছেন এসপি
বরিশালের বিভিন্ন উপজেলায় ত্রাণ বিতরণ
ফেনীতে নিম্ন আয়ের মানুষের পাশে থাকবে জেলা প্রশাসন
সরকারি কর্মচারীদের দায়িত্ব পালনে মানবিক হওয়ার আহ্বান
ফতুল্লার গার্মেন্টসে শ্রমিক অসন্তোষ