php glass

ইতিহাসের এই দিনে

কবি কামিনী রায়ের জন্ম

ফিচার ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

কবি কামিনী রায়

walton

ঢাকা: ইতিহাস আজীবন কথা বলে। ইতিহাস মানুষকে ভাবায়, তাড়িত করে। প্রতিদিনের উল্লেখযোগ্য ঘটনা কালক্রমে রূপ নেয় ইতিহাসে। সেসব ঘটনাই ইতিহাসে স্থান পায়, যা কিছু ভালো, যা কিছু প্রথম, যা কিছু মানবসভ্যতার আশীর্বাদ-অভিশাপ।

তাই ইতিহাসের দিনপঞ্জি মানুষের কাছে সব সময় গুরুত্ব বহন করে। এ গুরুত্বের কথা মাথায় রেখে বাংলানিউজের পাঠকদের জন্য নিয়মিত আয়োজন ‘ইতিহাসের এই দিন’।

১২ অক্টোবর ২০১৯ শনিবার। ২৭ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ। ১২ সফর ১৪৪০ হিজরি। এক নজরে দেখে নিন ইতিহাসের এ দিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য ঘটনা, বিশিষ্টজনের জন্ম-মৃত্যুদিনসহ গুরুত্বপূর্ণ আরও কিছু বিষয়।

ঘটনা
১৪৯২- পর্তুগিজ নাবিক কলম্বাস পশ্চিম ভারতীয় দ্বীপপুঞ্জে (ওয়েস্ট ইন্ডিজ) পৌঁছান, আবিষ্কার হয় আমেরিকা মহাদেশ।
১৯৬৪- তিন রুশ নভোচারী ভ্লাদিমির কোমানভ, কন্সতান্তিন ফিওক্তিস্তভ ও বোসি ইয়োগোরভ নভোযান ভস্তক-২৪ এ মহাশূন্যে পাড়ি দেন। তারা ২৪ ঘণ্টা ১৭ মিনিট মহাশূন্যে ভ্রমণ শেষে ভূপৃষ্ঠে অবতরণ করেন।
১৯৮৬- এল সালভেদরে ভূমিকম্পে ১৮০০ লোকের প্রাণহানি।

জন্ম
১৮৬৪- বাঙালি কবি কামিনী রায়।

তিনি তৎকালীন ব্রিটিশ ভারতের প্রথম নারী স্নাতক ডিগ্রিধারী ব্যক্তিত্ব। কলকাতার বেথুন কলেজ থেকে তিনি ১৮৮৬ সালে সংস্কৃত ভাষায় স্নাতক সম্মান ডিগ্রি লাভ করেন। কৈশোরেই কামিনী রায় সাহিত্য রচনা শুরু করেন এবং কবিত্ব শক্তির প্রকাশ ঘটান। মাত্র ১৫ বছর বয়সে তার প্রথম কাব্য ‘আলো ও ছায়া’ (১৮৮৯) প্রকাশিত হয়। তিনি সেসময় ‘জনৈক বঙ্গমহিলা’ ছদ্মনামে লিখতেন। তার লেখা কাব্যের মধ্যে ‘নির্মাল্য’, ‘পৌরাণিক’, ‘মাল্য ও নির্মল্য’, ‘দীপ ও ধুপ’, ‘জীবন পথে’ ও ‘শ্রাদ্ধিকী’ উল্লেখযোগ্য। অমিত্রাক্ষর ছন্দে রচিত ‘মহাশ্বেতা’ ও ‘পুণ্ডরীক’ তার দু’টি প্রসিদ্ধ দীর্ঘ কবিতা।

এছাড়াও ১৯০৫ সালে তিনি শিশুদের জন্য ‘গুঞ্জন’ নামের কবিতা সংগ্রহ ও ‘বালিকা শিক্ষার আদর্শ’ নামের প্রবন্ধ গ্রন্থ রচনা করেন। ১৯২৯ সালে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় কামিনী রায়কে জগত্তারিণী স্বর্ণপদক দেয়। তিনি ১৯৩০ সালে বঙ্গীয় লিটারারি কনফারেন্সের সভাপতি হিসেবে নির্বাচিত হন।
১৮৬৫- নোবেলজয়ী ব্রিটিশ জীবরসায়নবিদ আর্থার হার্ডেন।
১৮৯৬- নোবেলজয়ী ইতালিয়ান কবি ও গল্পকার ইউজিনিও মন্তাল।
১৯২৪- রবীন্দ্রসংগীত শিল্পী কণিকা বন্দ্যোপাধ্যায়।
১৯৩১- নরওয়েজিয়ান কম্পিউটার বিজ্ঞানী উলাহ্ ইয়োহান ডাল।
১৯৬৮- ঘানা স্পেনের কাছ থেকে স্বাধীনতা অর্জন করে।

মৃত্যু
১৯২৪ - ফরাসি লেখক আনতোল ফ্রাস।
১৯৬৮- ইরানের মিনিয়েচার শিল্পের অন্যতম স্থপতি হোসেইন বেহজাদ। ১৯৮১- ভারতের পদার্থবিদ ও রসায়নবিদ ড. গুরুপ্রসাদ চট্টোপাধ্যায়।

বাংলাদেশ সময়: ০০০৮ ঘণ্টা, অক্টোবর ১২, ২০১৯
টিএ/এএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ইতিহাসের এই দিনে
বরিশালে দ্বিতীয় দিনে ৬১ লাখ টাকা কর আদায়
ভারতে ৩ ট্রেনে বাড়ানো হলো খাবারের দাম
ফিট উইলিয়ামসন, নিউজিল্যান্ড টেস্ট দলে লোকি ফার্গুসন
রানের মায়ায় মায়াঙ্ক
গোবিন্দগঞ্জে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে কৃষকের মৃত্যু


অক্ষয়ের নায়িকা হচ্ছেন মানুষী
বঙ্গমাতার সমাধিতে বশেফমুবিপ্রবি উপাচার্যের শ্রদ্ধা
পেঁয়াজে কোনো ইমপোর্ট ডিউটি নেই: অর্থমন্ত্রী
রান পাহাড়ে ভারত, হতাশার আরও একটি দিন
জলাবদ্ধতা নিয়ে অপরাজনীতি বাঞ্ছনীয় নয়: মেয়র নাছির