php glass

নদী গবেষণায় আন্তর্জাতিক পুরস্কার লাভ

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

প্রযুক্তি ব্যবহার করে নদীর পরিবেশ রক্ষায় কাজ করেন মো: মঞ্জুরুল কিবরিয়া। অনলাইনে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে তিনি সবার মাঝে নদী রক্ষায় সচেতনতা তৈরি করার চেষ্টা করে যাচ্ছেন। আর এ চেষ্টাই তাঁকে এনে দিয়েছে ‘দ্য ম্যানথান সাউথ এশিয়া অ্যাওয়ার্ড ২০১১’।

প্রযুক্তি ব্যবহার করে নদীর পরিবেশ রক্ষায় কাজ করেন মো: মঞ্জুরুল কিবরিয়া। অনলাইনে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে তিনি সবার মাঝে নদী রক্ষায় সচেতনতা তৈরি করার চেষ্টা করে যাচ্ছেন। আর এ চেষ্টাই তাঁকে এনে দিয়েছে ‘দ্য ম্যানথান সাউথ এশিয়া অ্যাওয়ার্ড ২০১১’।

মো: মঞ্জুরুল কিবরিয়া পেশায় একজন শিক্ষক। তিনি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক। গত ২ ডিসেম্বর ভারতের নয়াদিল্লীতে ইঞ্জিনিয়ার হেভিটেইট সেন্টারে জাঁকজমকপূর্ণ এক অনুষ্ঠানে তিনি এ পুরস্কারটি গ্রহণ করেন।

সোমবার মঞ্জুরুল দেশে ফিরেই নিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে যান। সেখানে অপেক্ষা করছিলেন তার শিক্ষার্থীরা সহ উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো: আলাউদ্দিন। অধ্যাপক মঞ্জুরুলের এ সফলতায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য বলেন, ‘তাঁর এ অর্জন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সবাইকে সম্মানিত করেছে। ভবিষতে মঞ্জুরুল কিবরিয়া তাঁর গবেষণার কাজ নিরলসভাবে চালিয়ে যাবেন। এমনটাই আমরা আশি করি।’

ড. আলাউদ্দিন আশা প্রকাশ করে আরো বলেন, ‘প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে দেশের সাধারণ মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনে এ গবেষণা উল্লেখযোগ্য অবদান রাখবে।’   

পুরস্কার প্রাপ্তি বিষয়ে মঞ্জুরুল কিবরিয়া বলেন, ‘হালদা নদীর ওয়েবসাইটের জন্যে আমরা আন্তর্জাতিক পুরস্কার পেলাম। এটা হালদাপ্রেমী ও সকলের জন্যে উল্লেখযোগ্য অর্জন। এমন অর্জন শুধু হালদা নদী নয়; দেশের সব নদী রক্ষায় সচেতনতা গড়ে তুলতে সহায্য করবে।’

আন্তর্জাতিক এ পুরস্কার সম্পর্কে কিবরিয়া জানান, ‘সার্কভূক্ত দেশগুলোর মধ্যে থেকে ৪৮৫ টি আইটি নির্ভর গবেষণা জমা পড়ে। শেষ পর্ব ৮৫ গবেষণা নির্বাচিত হয়। এখান থেকেই ১৫ টি ক্যাটাগরিতে ৩৮টি পুরস্কার দেওয়া হয়। এর মধ্যে বাংলাদেশ ১১ টি পুরস্কার পেয়ে ২য় স্থান অর্জন করেছে। সার্কভূক্ত দেশগুলোতে শ্রীলংকা ৪টি ও আফগানিস্তান এবং নেপাল ১ টি করে পুরস্কার পায়। এছাড়াও মালদ্বীপ এবং ভূটান কোন পুরস্কার পায়নি। দক্ষিণ এশিয়ায় সার্কদেশ সমূহের মধ্যে তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহারের অবদানের জন্য এটাই সর্বোচ্চ পুরস্কার।’

অধ্যাপক কিবরিয়ার হালদার উপর লিখিত ‘হালদা পুনরুদ্ধার প্রকল্পঃ জনপ্রত্যাশা ও বাস্তবতা’ বিষয়ক প্রকাশনাও রয়েছে। যাতে হালদার খুঁটিনাটি সব পাওয়া যাবে। যে ওয়েবসাইটের জন্যে তিনি আন্তর্জাতিক সম্মানে ভূষিত হলেন তার লিংক হলো http://www.haldariver.org/ ।

উল্লেখ্য, অধ্যাপক মঞ্জুরুল কিবরিয়া জাতীয় ডিজিটাল উদ্ভাবনী পুরস্কার-২০১১ এবং জাতীয় পরিবেশ পদক-২০১১ লাভ করেন ।

বাংলাদেশ সময়: ১৯০১ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১৩, ২০১১

চিলিতে বিক্ষোভে নিহত ২৪, আটক ৬ হাজার
কাতার বিশ্বকাপের দর্শকরা পাবে প্রমোদতরীর স্বাদ
আইসিটি সেক্টরে আরও ১০ লাখ লোকের কর্মসংস্থান হবে: পলক
প্রেমের কথা স্বীকার করলেন জয়া আহসান
দণ্ডিত সেই শিশুদের মুক্তির বিষয়ে জানতে চান হাইকোর্ট


সেঞ্চুরিতে বিশ্ব রেকর্ড হৃদয়ের
৭ম বাপা ফুডপ্রো ইন্টারন্যাশনাল এক্সপো শুরু বৃহস্পতিবার
চুয়াত্তরের দুর্ভিক্ষের ছায়া দেখতে পাচ্ছি: সেলিমা রহমান
খুলনার অভ্যন্তরীণ রুটে বুধবার থেকে চলবে বাস
লবণের সংকট নিয়ে গুজব, বাজারে বাজারে অভিযান