php glass

নর্থ সাউথে শর্টফিল্ম নিয়ে সৃষ্টিশীল তারুণ্যের মিলনমেলা

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি ক্যাম্পাসে বৃহস্পতিবার বৃষ্টিভেজা বিকেলে বসেছিল সৃষ্টিশীল তারুণ্যের মিলনমেলা।

ঢাকা: বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি ক্যাম্পাসে বৃহস্পতিবার বৃষ্টিভেজা বিকেলে বসেছিল সৃষ্টিশীল তারুণ্যের মিলনমেলা।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত সবাই ছিলেন সৃষ্টিশীল মানুষ। কেউ বিখ্যাত চলচ্চিত্র নির্মাতা কেউ নতুন নির্মাতা, কেউবা চলচ্চিত্র কর্মী।

নবীণ এই স্পল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাতাদের মধ্য থেকেই আগামী দিনের জহির রায়হান, মোরশেদুল ইসলাম, চাষী নজরুল ইসলাম, আবু সাইয়িদদের মতো নির্মাতা তৈরি হবে বলে অতিথিদের প্রত্যাশা।

বৃহস্পতিবার বিকেলে নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি মিলনায়তনে ‘শর্টফিল্ম কি?’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি সিনে অ্যান্ড ড্রামা ক্লাব (এনএসইউসিডিসি) সেমিনারের আয়োজন করে। সেমিনারের মিডিয়া পার্টনার ছিলো বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম, দৈনিক কালের কণ্ঠ, ডেইলি সান ও চ্যানেল আই।

এতে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ফিল্ম সোসাইটির প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক আব্দুস সেলিম। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন চলচ্চিত্র নির্মাতা আবু সাইয়িদ ও গোলাম রাব্বানী বিপ্লব।

এনএসইউসিডিসি স্বল্পদৈর্ঘ চলচ্চিত্র প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে। এত ২৫টি স্বল্পদৈর্ঘ চলচ্চিত্র জমা পড়েছে। অতিথিরা এ প্রতিযোগিতার বিচারকের দায়িত্ব পালন করবেন।

অধ্যাপক আব্দুস সেলিম বলেন, ‘শর্টফিল্মকে কোনো সর্বজনগ্রহনীয় সংজ্ঞা দেওয়া যায় না। এটি কবিতার মতো সৃষ্টিশীল কাজ। যেসব শর্টফিল্ম জমা পড়েছে, দু’ থেকে দশ মিনিট বা ৩০ মিনিটের দৈর্ঘ্য এগুলোর। কিন্তু কি নেই এতে? কাহিনীর মোড়ে মোড়ে নাটকীয়তা, অসাধারণ ডিরেক্টিং আর চোখে লেগে থাকার মত অভিনয় সবই আছে এই শর্ট ফিল্মগুলোতে। চমৎকার কাহিনী নিয়ে গড়ে উঠেছে এসবের গল্প।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের সমাজে আমাদের চোখের আড়ালে এমন অনেক মানুষ রয়েছে, যাদের নিয়ে কারো কোনো মাথাব্যথা নেই। এমনকি সরকারেরও না। তাদের নিয়ে শর্টফিল্ম বানাতে হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘ক্যামেরাও মিথ্যে বলতে পারে। আমরা টিভিতে দেখি দেশে উন্নয়নের জোয়ার বাস্তবে কিছু নেই। পাকিস্তান আমলেও এমন ছিলো।’

আবু সাইয়িদ বলেন, ‘দেশে শর্টফিল্ম এগিয়ে যাচ্ছে। আমি আশা করবো এই স্বপ্নবান তরুণরা একদিন শিল্পকে জয় করবে।’

তিনি বলেন, ‘এদেশে শর্টফিল্মের জন্য তরুণদের উৎসাহ দেওয়ার কিংবা পৃষ্ঠপোষকতা করারও কেউ নেই। টাকা-পয়সা একটা বড় সমস্যা। একদিকে হ্যান্ডিক্যাম দিয়ে কাজ করলে তার মান ভালো হয় না, অন্যদিকে ক্যামেরা ভাড়া করাটাও সম্ভব হয় না। ফলে আমাদের ছবিতে ভালো ক্যামেরাও ব্যবহার করা যায় না। অথচ বিদেশি ফিল্মগুলোর কালার, কনসেপ্ট, সাউন্ড, মিউজিক সবকিছুই অনেক উন্নত। আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায়ও শর্টফিল্মেও আমাদের বিশেষ অবস্থান রয়েছে। তাই এখন এগিয়ে যেতে হবে।’

গোলাম রাব্বানী বিপ্লব বলেন, ‘মানুষ পথ চলে, তারা স্বপ্নও দেখে। অনেকে স্বপ্নের দ্বার থেকে ফিরে আসে। অনেকের স্বপ্ন ওই স্বপ্নাকাশেই থেকে যায়। চলচ্চিত্রকাররা স্বপ্নকে ক্যামেরার ফ্রেমে ধারণ করেন। শর্টফিল্মের সংজ্ঞা নয় শিল্পটাই প্রধান। আমি আশা করি, তরুণদের এই উদ্যোগ চলচ্চিত্রকে এগিয়ে নিয়ে যাবে।’

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন এনএসইউসিডিসির সভাপতি মাহজাবিন চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মাহাদী আজমসহ শর্টফিল্মেও অনান্য নির্মাতারা।

বাংলাদেশ সময়: ২০৩০ ঘণ্টা, জুলাই ২১, ২০১১

গৌরীপুরে ট্রাকচাপায় অটোরিকশা যাত্রী নিহত
একাদশে ইন সাইফ-মোসাদ্দেক, আউট রুবেল-সাব্বির
শায়েস্তাগঞ্জে বাসচাপায় পথচারী নিহত
শিগগিরই জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের নির্বাচন: মেয়র লিটন
সিকিউরিটি সুপারভাইজার নেবে ডিপিডিসি


নীলফামারীতে বঙ্গবন্ধুর মুর‌্যাল উদ্বোধন
ঋণখেলাপি নিয়ে ব্যাংকের নীতিমালায় আরো ২ মাস স্থিতাবস্থা
বাজেটে সংসদ সদস্যদের মতামত নেওয়া হয়নি: বাদশা
কোলে চড়ে ভোট দিলেন ৯৫ বছরের মোমেনা
হাতীবান্ধায় দু’পক্ষের সংর্ঘষে আহত ১৮