php glass

পৃথিবীর সবচেয়ে খাটো মানুষ জুনরে বালাউইং

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

এক লিটার কোকের বোতলের মতো উচ্চতা নিয়ে জন্মগ্রহণ করেছিল ফিলিপাইনের এক শিশু। নাম জুনরে বালাউইংয়। ক্ষুদ্রাকৃতির এই শিশুটির আকৃতি নিয়ে প্রথম থেকেই চিন্তায় পড়ে যায় তার বাবা-মা। তারউপর একটু একটু করে যখন সে হাঁটতে শুরু করে তখনই তার দৈহিক বৃদ্ধিও বন্ধ হয়ে যায়।

এক লিটার কোকের বোতলের মতো উচ্চতা নিয়ে জন্মগ্রহণ করেছিল ফিলিপাইনের এক শিশু। নাম জুনরে বালাউইংয়। ক্ষুদ্রাকৃতির এই শিশুটির আকৃতি নিয়ে প্রথম থেকেই চিন্তায় পড়ে যায় তার বাবা-মা। তারউপর একটু একটু করে যখন সে হাঁটতে শুরু করে তখনই তার দৈহিক বৃদ্ধিও বন্ধ হয়ে যায়। তার দৈহিক বৃদ্ধির জন্য ডাক্তার দেখানো হয়, কিন্তু কিছুতেই কোনো কাজ হয় না। ১২ জুন রোববার এই জুনরে পা রাখলো ১৮ বছর বয়সে। উচ্চতা মাত্র ২৩.৫ ইঞ্চি, ওজন ৫ কেজি।

আনন্দের বিষয় হলো, ১৮তম জন্মদিনে তার নাম যোগ হয়ে গেল গিনেস বুক অব দ্য ওয়ার্ল্ড রেকর্ড বুকে। এদিন ঘোষণা করা হয়, বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে খাটো মানুষ হচ্ছেন জুনরে বালাউইং এবং তার হাতে তুলে দেওয়া হয় ক্ষুদ্রতম মানবের সনদ।

জুনরে বর্তমানে তার  বাবা মা এবং ছোট তিন ভাই-বোনের সাথে ফিলিপাইনের উপকূলীয় সিন্দাগান গ্রামে থাকে। যখন তার অন্যান্য ভাই-বোনেরা স্কুলে যায় তখন তার সময় কাটে বাড়িতেই মায়ের সাথে। জুনরেকে নিয়ে তার বাবা-মার অনেক গর্ব। তারা জানান, জুনরের জন্মের আগে তাদের পরিবারের অর্থনৈতিক অবস্থা ছিল খুবই খারাপ এবং তা ক্রমশ খারাপের দিকে যাচ্ছিল। কিন্তু জুনরের জন্মের পর তাদের ভাগ্যের পরিবর্তন হয়, অর্থনৈতিক সচ্ছলতা বৃদ্ধি পায়।

জুনরের বাবা রেনালদো জানান, দু’বছর বয়স থেকে জুনরের শারীরিক বৃদ্ধি বন্ধ হয়ে যায়। সে ঠিক মত হাঁটতে পারে না। বেশি সময় দাঁড়িয়ে থাকলে মেরুদণ্ডে ব্যথা অনুভব করে। এরপরও তিনি বিশ্বাস করেন, তার ছেলে এ পৃথিবীর সাধারণ কেউ নন, বিশেষ একটা কিছু। তিনি বলেন ‘আমার ছেলেক বিশ্বের সবচেয়ে খাটো মানুষ হিসেবে স্বিকৃতি দেয়ায় সকলকে ধন্যবাদ। জুনরে আমাদের পরিবারের সৌভাগ্যের জাদুকাঠি।’
তার মা বলেন ‘আজ আমরা আনন্দিত। আমারা জুনরের জন্য গর্ব অনুভব করছি।’

জুনরের প্রিয় খাদ্য হচ্ছে শুকরের মাংস। সে টিভিতে যুদ্ধের সিনেমা দেখতে বেশি ভালোবাসে। জুনরে বালাউইং তার অনুভূতি প্রকাশ করেন এভাবে- ‘আমি ছোট। কিন্তু আমি একজন মানুষ। আমার সুন্দর একজন স্ত্রী প্রয়োজন। আশা করি সে আমার চেয়ে লম্বা হবে’।

জুনরের আগে ২০১০ সালে বিশ্বের সবচেয়ে খাটো মানুষ হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছিল নেপালের খগেন্দ্র খাপা মগরের নাম। খগেন্দ্রর উচ্চতা ২৬ ইঞ্চি। সে জুনরের চেয়ে ২. ৫ ইঞ্চি বেশি লম্বা।

গিনেজ বুক অফ দ্য ওয়ার্ল্ড রেকর্ডের এডিটর ইন চিফ ক্যারেইগ গেলেনডি বলেন ‘অফিসিয়ালি সে (জুনরে) বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে খাটো মানুষ।’

সূত্র : এ এফ পি, ডেইলি মেইল

বাংলাদেশ সময়  ১২১০, জুন ১৪, ২০১১

কসবায় দুইটি ট্রেনের সংঘর্ষে নিহত ১০
আসামি ধরতে গিয়ে হামলায় ৩ পুলিশ জখম
আড়িয়াল বিলে বিমানবন্দরের সম্ভাবনা বহু দূরে চলে গেছে 
রাস্তায় আন্দোলন করে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা যাবে না
বাংলাদেশে বিনিয়োগের পরিবেশ এখন ভালো: গণপূর্তমন্ত্রী


মুক্তি পেল দণ্ডিত ১২১ শিশু
বড় ভাইকে গলা কেটে হত্যা, সৎভাই আটক
উন্মোচিত হলো নুমাইর আতিফ চৌধুরীর ‘বাবু বাংলাদেশ’
চুরির দায়ে বেনাপোল কাস্টমস হাউজের ৫ সদস্য বরখাস্ত 
বিএনপি জাতীয়তাবাদী শক্তির প্লাটফর্ম: গয়েশ্বর