নানচাকু ধ্যানে অ্যাডিসন’স ডিজিজ জয় করলেন সুস্মিতা সেন

বিনোদন ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

সুস্মিতা সেন

walton

২০১৪ সাল থেকেই অ্যাডিসন’স ডিজিজে ভুগছিলেন সাবেক মিস ইউনিভার্স ও বলিউড অভিনেত্রী সুস্মিতা সেন। দীর্ঘদিনের প্রচেষ্টায় ধীরে ধীরে সেরে উঠেছেন তিনি। ভক্তদের সঙ্গে তার সেই দুঃসাধ্য সংগ্রামের কথাই ভাগ করেছেন অভিনেত্রী।

ফিটনেসের প্রতি সবসময়ই সচেতন সাবেক বিশ্বসেরা সুন্দরী সুস্মিতা সেন। সম্প্রতি তার ইউটিউব চ্যানেলে একটি ভিডিও প্রকাশ করে তার প্রেরণাদায়ক সংগ্রামের কথা জানিয়েছেন ভক্তদের। সেখানে তিনি জানান মার্শাল আর্টের অস্ত্র নানচাকুর সঙ্গে তিনি কিভাবে ধ্যান করেছেন। 

সুস্মিতা বলেন, ২০১৪ সালের সেপ্টেম্বরে যখন আমার অ্যাডিসন’স ডিজিজ অর্থাৎ অটো ইম্যুন পরিস্থিতি ধরা পড়ে, তখন মনে হয়েছিল আমার সব শেষ। হতাশা আর বিষাদে আমার দেহ অবষন্ন হয়ে পড়ে। চোখ ঘিরে কালো দাগ পড়ে। কিন্তু চার বছরের ভোগান্তির বর্ণনা এত সামান্য কথায় প্রকাশ করা সম্ভব না। স্টেরয়েড সাবস্টিটিউট গ্রহণ করা ও এর পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া সহ্য করা চাট্টেখানি কথা ছিল না। দীর্ঘমেয়াদী অসুখ ভোগ করার যে কী কষ্ট তা হাড়ে হাড়ে বুঝেছি। 

এরপর তিনি লেখেন, আর সহ্য করা যাচ্ছিল না। এরপর আমি আমার মনকে শক্ত করার পথ খুঁজি, আমার শরীরকে আরও উপযুক্ত করার উপায় বেছে নিই। আমি ধ্যানের জন্য নানচাকুর আশ্রয় নিই। অসুখের বিরুদ্ধে আমি পাল্টা সংগ্রাম শুরু করি। সময়ের সাথে সাথে আমার অ্যাড্রেনাল গ্রন্থি সক্রিয় হয়ে ওঠে। আর স্টেরয়েড নেওয়ার দরকার পড়ে না। সেসাথে অটো ইম্যুন অবস্থাও দূর হয়ে যায়।

এর থেকে একটি শিক্ষা নেওয়ার কথা বলেন সুস্মিতা, ‘আপনার চেয়ে আপনার শরীরকে আর কেউ বেশি বোঝে না। শরীরের কথা শুনুন। আমাদের প্রত্যেকের মাঝেই একজন যোদ্ধা আছে। কখনো হাল ছাড়বেন না। 

বাংলাদেশ সময় ১৫২০ ঘণ্টা, মে ১৮, ২০২০
এমকেআর

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: বলিউড
ঈদের বন্ধেও পর্যটকশূন্য বান্দরবান
খুলনা জেলা ক্রিকেট দলের অধিনায়ক কাজল আর নেই
শেবাচিম হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে পুলিশ কনস্টেবলের মৃত্যু
সুবর্ণচরে সরকারি চাল জব্দ, ক্রেতাকে অর্থদণ্ড
টর্নেডোয় 'মোর সব শ্যাষ কইর‌্যা দ্যাছে'


রাজধানীতে বাড়ছে করোনার সংক্রমণ
কক্সবাজারে আরো ৪৬ জন করোনা আক্রান্ত
শ্রীমঙ্গলে ৬৭ মামলায় ৭৫ হাজার টাকা জরিমানা
আড়াইহাজারে দগ্ধ আরও একজনের মৃত্যু
সিলেটে ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত ৪৮ জন