করোনা সংক্রমণ থেকে বাঁচতে যে পরামর্শ দিলেন মিথিলা

বিনোদন ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

মিথিলা

walton

এক করোনা আতঙ্কে এখন কাঁপছে সারা বিশ্ব। এর জেরে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ এরই মধ্যে সব ধরনের আর্থিক বাজার বন্ধ ঘোষণা করেছে।

মরণব্যাধী এই করোনা ভাইরাস থেকে রক্ষা পেতে তিনটি পরামর্শ মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছেন মডেল-অভিনেত্রী রাফিয়াথ রশিদ মিথিলা। বৃহস্পতিবার (১৯ মার্চ) মধ্যরাতে ফেসবুকে এক ভিডিও বার্তায় এসব পরামর্শ দেন দর্শকপ্রিয় এই অভিনেত্রী।

https://www.facebook.com/rafiathrashidmithilaofficial/videos/567112374221313/ মিথিলা বলেন, পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের মতো ছড়িয়ে পড়েছে কোভিড-১৯। এই করোনা আতঙ্ক থেকে বাঁচার একমাত্র উপায় হলো- নিজেদের সচেতনতা। আমাদেরকে সহজ তিনটি বিষয় মেনে চলতে হবে, তাহলে এর সংক্রমণ রোধ করা সম্ভব।

মিথিলার পরামর্শ তিনটি হলো- প্রথমত. সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা। অনেকে বাড়ি থেকে কাজ করছি। স্কুল-কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ। এই অবস্থায় জনসমাগম এড়িয়ে চলতে পারলে নিজেদের রক্ষা করতে পারব। দুই. পার্সনাল হাইজিন মেইটেইন করা। অর্থাৎ পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখা। বারবার সাবান দিয়ে হাত ধোয়া। মুখ ঢেকে হাঁচি-কাশি দেওয়া। তিন. পরিবারের কেউ যদি বিদেশফেরত হয় কিংবা নিজেই যদি বিদেশ থেকে এসে থাকেন, তাহলে অবশ্যই নিজেকে ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখুন। যদি বিদেশফেরত নাও হন কিন্তু জ্বর, সর্দির উপসর্গ দেখা যায় তাহলেও নিজেকে ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকুন। এই তিনটি বিষয় মেনে চললে নিজেকে, পরিবারকে, দেশকে, পৃথিবীকে করোনা প্রকোপ থেকে বাঁচানো সম্ভব।

এদিকে মিথিলার বর সৃজিত মুখার্জি বর্তমানে কলকাতায় হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন। বৃহস্পতিবার (১৯ মার্চ) আফ্রিকা থেকে কলকাতায় ফিরেই হোম কোয়ারেন্টাইনে যান এই নির্মাতা।

বাংলাদেশ সময়: ১১৪৪ ঘণ্টা, মার্চ ২০, ২০২০
ওএফবি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: নাটক
কাভার্ডভ্যান-মোটরসাইকেল সংঘর্ষে নিহত ১
করোনা: বরিশালে নির্দেশনা না মানায় ৩৪ জনকে জরিমানা
নারায়ণগঞ্জে নতুন করে আরও ৬ করোনা আক্রান্ত শনাক্ত
মহিলা হোস্টেল ব্যবহার হবে কোয়ারেন্টিনে
গৃহহীনদের রান্না করা খাবার দিচ্ছে ‘সাফিয়া ফাউন্ডেশন’


চীন ছাড়া সব রুটে ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত নিষেধাজ্ঞা
বান্দরবানে ওএমএস’র চাল বিক্রি শুরু
বগুড়ায় রাজমিস্ত্রি-দিনমজুরদের ত্রাণ দিল বসুন্ধরা সিমেন্ট
গার্মেন্টস খোলা-বন্ধ নিয়ে সমালোচনার ঝড়
সরকারকে চাপে ফেলে প্রণোদনার টাকা নিতে শ্রমিকদের আনা হয়েছে