একজন মুসলিম হিসেবে ভারতে আমি নিরাপদ অনুভব করি

বিনোদন ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

আদনান সামি

walton

পাকিস্তানী বংশোদ্ভূত ‘ভারতীয়’ গায়ক-গীতিকার আদনান সামি বরাবরই বিস্ফোরক মতামত দিয়ে আলোচনা-সমালোচনার জন্ম দেন। ভারতজুড়ে যখন দিল্লির সহিংসতা নিয়ে উদ্বেগ, এমন সময়ে তিনি আবারও তার মন্তব্যের জন্য সংবাদশিরোনাম হলেন। তিনি জানান, একজন মুসলিম হিসেবে ভারতে নিজেকে নিরাপদ মনে করেন তিনি।

ভারতের নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন নিয়ে যে সহিংসতা হয়ে গেল, তার দগদগে ক্ষত দেখে বিহ্বল হয়ে পড়েছে উপমহাদেশ। এর মধ্যেই এই আইন নিয়ে মতপ্রকাশ করেছেন সংগীতশিল্পী আদনান সামি। তিনি বলেন, নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন তাদের জন্য যারা সংকটে পড়ে দ্রুত কোথাও আশ্রয় বা নাগরিকত্ব খুঁজছে। এটা বিদেশীদের জন্য, ভারতীয় নাগরিকদের জন্য নয়।

সম্প্রতি এক অনুষ্ঠানে গিয়ে প্রশ্নোত্তর পর্বে এসব কথা বলেন আদনান সামি।

২০১৫ সালে আলোচিত আমির খানের এক বক্তব্য বিষয়ে প্রশ্ন করা হয় আদনানকে। তখন আমির খানের স্ত্রী বলেছিলেন তিনি (কিরণ রাও) ভারতে নিরাপদ অনুভব করেন না। একথা সবার সামনে জানিয়েছিলেন আমির নিজেই। এ নিয়ে সামাজিক মাধ্যমে শোরগোল পড়ে গিয়েছিল।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে আদনান সামি বলেন, আমির খান যা-ই বলুক না কেন তা নিয়ে আমি মন্তব্য করতে চাই না। আমি যতটুকু বুঝি, আমি একজন মুসলিম। আমি সকল ধর্মকেই শ্রদ্ধা করি। সেসঙ্গে সবার উৎসবেও অংশ নিই। আমি সকল প্রকারে মানবতাকেই বরণ করি। আমার অনেক সুযোগ ছিল। কিন্তু একজন মুসলিম হয়েও আমি ভারতে আসারই সিদ্ধান্ত নিই। একজন মুসলিম হিসেবে ভারতে আমি নিরাপদ অনুভব করি।

দিল্লির সহিংসতা প্রসঙ্গে জিজ্ঞাসা করা হলে ৪৬ বছর বয়সী এই সংগীতশিল্পী বলেন, আমি আশা করি দ্রুতই শান্তি ফিরে আসবে। একজন শিল্পী হিসেবে আমি সবসময়ই প্রেম ও শান্তির কথা বলি। আমি সবাইকে অনুরোধ করি, জীবনকে শ্রদ্ধা করুন, দেশে শান্তি ফিরিয়ে আনুন।

আদনান সামির বাবা পাকিস্তান বিমান বাহিনীতে চাকরি করতেন। ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধের সময় ভারতের মাটিতে বোমাবর্ষণও করেছিলেন তার বাবা। এ নিয়ে ভারতীয়দের কটাক্ষের শিকারও হয়েছেন আদনান। বিশেষত এ বছর রাষ্ট্রীয় ‘পদ্মশ্রী’ সম্মাননা পাওয়ার পর সমালোচকরা তাকে এভাবেই নিশানা করেন। ২০১৫ সালে আদনান সামি ভারতীয় নাগরিকত্ব লাভ করেন। 

বাংলাদেশ সময়: ১২৫৭ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৯, ২০২০
এমকেআর

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: সংগীত
Nagad
ঈদুল আজহাকে কেন্দ্র করে সক্রিয় জালনোট প্রতারক চক্র
সিঙ্গাপুর থেকে ফিরলেন আটকে পড়া ১৬২ বাংলাদেশি
 হেফাজতের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র বরদাশত করা হবে না: আল্লামা শফী
জার্মান বিনিয়োগকারীদের গুরুত্বপূর্ণ গন্তব্য হবে বাংলাদেশ
স্বাস্থ্যসুরক্ষায় ডিআরইউর নতুন সংযোজন অক্সিজেন কনসেনট্রেটর


নোয়াখালীতে করোনায় আরো একজনের মৃত্যু, মোট ৫৩
১২ জুলাইয়ের আগে নিয়মিত কোর্ট খোলার দাবি আইনজীবীদের
৯ জুলাই থেকে দুবাই-আবুধাবি রুটে ফ্লাইট চালাবে বিমান 
শৈলকুপায় করোনা উপর্সগ নিয়ে এক ব্যক্তির মৃত্যু 
সিরাজগঞ্জে ছাত্রলীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৪০