মোরা একই বৃন্তে দুটি কুসুম হিন্দু-মুসলমান আর নই

বিনোদন ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

মিমি ও দেব

walton

দিল্লি জ্বলছে আর পুরো ভারত জুড়ে চলছে চরম অস্থিরতা। পরিস্থিতি জটিল হলেও, প্রতিবাদ থামেনি। ক্রমেই বাড়ছে হিংসায় মৃতের সংখ্যা। এবার দিল্লির জ্বলন্ত পরিস্থিতি নিয়ে মুখ খুললেন ভারতীয় বাংলা সিনেমার দর্শকপ্রিয় দুই মুখ তথা তৃণমূলের সংসদ সদস্য দেব ও মিমি।

যাদবপুরের তৃণমূল সংসদ মিমি নিজের টুইটারে লেখেন, ভালো হয়েছে কবিগুরু আজ তুমি বেঁচে নেই। ভালো হয়েছে কবি নজরুল ইসলাম তুমি বেঁচে নেই।কারণ মোরা একই বৃন্তে দুটি কুসুম হিন্দু-মুসলমান আর নই, মোরা রাম আর রহিম ভাই ভাই আর নই। যেটা আমরা এখন, সেটা আর যাই হোক- মানুষ আর নই।

দিল্লির বর্তমান হিংসাত্মক পরিস্থিতিতে বেশ মর্মাহত দেব। ঘাটালের তৃণমূল সংসদ টুইটারে লেখেন, আমি দিল্লিকে শুধু জ্বলতে দেখছি না…আমি দেখছি মনুষ্যত্ব পঙ্গু হয়ে যাচ্ছে। এটা ভগবান ঠিক করেননি। এটা বন্ধ হওয়া দরকার। না হলে আমরা একটা জাতি হিসাবে ব্যর্থ হবো।

জ্বলন্ত দিল্লি আর গোটা ভারতের পরিস্থিতি নির্ণয়ে এটা স্পষ্ট যে, সিএএ-এনআরসি বিরোধী আন্দোলন এখন হিংসায় রূপ নিয়েছে। প্রতি মুহুর্তে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে মৃতের সংখ্যা। এখনো পর্যন্ত হিংসার বলি হয়েছেন ৩২ জন। আহত হয়েছেন ২৫০ জন। আর এ ঘটনায় এখনো পর্যন্ত গ্রেফতার হয়েছে শতাধিক মানুষ। তবুও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নয়। 

দিল্লির উত্তপ্ত পরিস্থিতি নিয়ে প্রতিবাদে সরব দেশের শিল্পীমহল। বাদ নেই টলিগঞ্জের শিল্পীরাও। এর আগে দিল্লির হিংসা নিয়ে প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন নুসরাত-সৃজিত-পরমব্রত-অনির্বাণরা।

পরিস্থিতি যতই ভয়ঙ্কর হোক, প্রতিবাদ ঠিক নিজের ভাষা খুঁজে নিচ্ছে। যে যার অবস্থান থেকে বিরোধিতা করছেন হিংসা, বিভেদের রাজনীতির। আশার কথা সেটাই।

বাংলাদেশ সময়: ১৩১৬ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২০
ওএফবি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: টলিউড
মাদারীপুরে দুই গৃহবধুর মরদেহ উদ্ধার
রাতের আঁধারে বাড়ি বাড়ি খাবার নিয়ে সাংবাদিক ইদ্রিস
বগুড়ায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে যুবককে পিটিয়ে হত্যা
একা প্লেনে করে মায়ের কাছে ফিরলো পাঁচ বছরের বিহান
২০০ এতিম শিশুদের নিয়ে ঈদ উদযাপন


নজরুলজয়ন্তীতে ছায়ানটের নিবেদন
মঈনুল আহসান সাবেরের জন্ম
ইতিহাসের এই দিনে

মঈনুল আহসান সাবেরের জন্ম

চট্টগ্রামে ঈদের দিন করোনায় আক্রান্ত ১৭৯ জন
গান-আড্ডায় করোনা রোগীদের ঈদ উদযাপন ফিল্ড হাসপাতালে
প্লেন চালুর শুরুতেই ধাক্কা ভারতে, একের পর এক ফ্লাইট বাতিল