র‌্যাম্প মডেল যখন গ্রামের মেয়ে

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

রঙিন পোশাকে আলো ঝলমল মঞ্চে উদ্দাম বিটের তালে ভুবনজয়ী ভঙ্গিতে হেঁটে বেড়ানো .... হ্যাঁ, মডেলিংয়ের এক বনেদী প্লাটফর্ম র‌্যাম্প। মডেলিংয়ের এই স্বতন্ত্র শাখায় নিজেকে দাঁড় করাতে লাগে আলাদা যোগ্যতা।

রঙিন পোশাকে আলো ঝলমল মঞ্চে উদ্দাম বিটের তালে ভুবনজয়ী ভঙ্গিতে হেঁটে বেড়ানো .... হ্যাঁ, মডেলিংয়ের এক বনেদী প্লাটফর্ম র‌্যাম্প। মডেলিংয়ের এই স্বতন্ত্র শাখায় নিজেকে দাঁড় করাতে লাগে আলাদা যোগ্যতা।

বাংলাদেশের র‌্যাম্প মডেলিংয়ে মাত্র দু’বছরে আইরিন সুলতানা নিজেকে নিয়ে গেছেন প্রথম সারিতে। দেশে বড় কোনো ফ্যাশন প্যারেড হলে এখন আয়োজকদের পছন্দের পয়লা তালিকায় থাকে তার নাম। শুধু র‌্যাম্পেই নয়, আইরিন বেশ কিছু বিজ্ঞাপন চিত্রের মডেল হয়েছেন। টিভিনাটকে নিয়মিত অভিনয়ও করছেন। এই ঈদের দুটি নাটকে তাকে দেখা যাবে।

‘ইউ গট দ্য লুক’ বাংলাদেশের একটি সাড়া জাগানো রিয়েলিটি ইভেন্ট। এই সৌন্দর্য প্রতিযোগিতার ২০০৮ এর আয়োজনে নেহাত শখে ছবি পাঠিয়েছিলেন আইরিন। ডাক পাবেন এরকম আত্মবিশ্বাস ছিল, কিন্তু ইভেন্টের বেস্ট স্মাইল খেতাব যে জিতে নিবেন তা ছিল ধারণার বাইরে। ওয়াইজিটিএল ইভেন্টের গ্রুমিং সেশনে ক্যাটওয়াকে তালিম নেন আইরিন। খেতাব বিজয়ের পরপরই প্রথম মিরর ব্রাইডাল শোর মধ্য দিয়ে কমার্শিয়াল র‌্যাম্পিংয়ে হাতেখড়ি হয় তার। দেশের আলোচিত তিন কোরিওগ্রাফার টুম্পা, জিয়া আর লুনার অনুপ্রেরণায় র‌্যাম্প মডেল হিসেবে আইরিন ক্যারিয়ার শুরু করেন। বাটেক্সপো, বিজেএমই, বেক্সিফেব্রিক্স, এনডিআই সহ দেশের বড় বড় সব আয়োজকের শোতেই পারফর্ম করেছেন । আকর্ষণীয় অভিব্যক্তি আর দেহবল্লরী তাকে করে তুলেছে এ সময়ের সবচেয়ে চাহিদাসম্পন্ন র‌্যাম্প মডেল। ফ্যাশন সেক্টরের অনেকেই বলছেন, আইরিন-ই আগামী দিনের র‌্যাম্পে হয়ে উঠবেন মূল ভরসা।

শুধু র‌্যাম্প মডেলিংয়েই নয়, বেশ কিছু বিজ্ঞাপনচিত্রে পারফর্ম করেও আইরিন ভালো পরিচিতি পেয়েছেন। আকতার ফার্নিচার, প্রাণ লাভক্যান্ডি, একটেল আর কোয়ালিটি আইসক্রীমের টিভিসিতে আইরিনকে এখন নিয়মিতই বিভিন্ন টিভি চ্যানেলে দেখা যাচ্ছে। আগামীতে তাকে আরো কিছু নামকরা ব্র্যা-ের বিজ্ঞাপনে দেখা যাবে।

বর্তমান সময়ে মডেলিংয়ে ব্যস্ততা একটু বেশি থাকলেও আইরিনের আসল গন্তব্য হলো, অভিনেত্রী হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত কর।আলোচিত নির্মাতা আশুতোষ সুজনের ধারাবাহিক নাটক ‘ম্যানপাওয়ার’- এর মধ্য দিয়ে গতবছর তার অভিনয়ে হাতেখড়ি হয়। নাটকে শান্তা চরিত্রে তার অভিনয় দেখে কে বলবে যে সে নতুন। এ নাটকে তার অভিনয় দেখে একদিন নির্মাতা আফসানা মিমি তাকে দেখা করতে বলেন। আইরিনকে মিমি পছন্দ করেন তার নতুন নাটক ‘পৌষ-ফাগুনের পালা’ এর গ্রাম্য মেয়ে স্বর্ণলতার চরিত্রে।

গজেন্দ্রকুমার মিত্রের ‘ত্রয়ী’ উপন্যাস কলকাতার কাছেই, উপকণ্ঠে ও পৌষ ফাগুনের পালা অবলম্বনে নির্মিত এই ধারাবাহিক নাটকটির প্রেক্ষাপট ষাটের দশক। ঐ সময়ের এক গ্রাম্য কিশোরীর চরিত্রে আইরিন সুলতানার হৃদয়ছোঁয়া অভিনয় দর্শকদের নজর কেড়েছে। কে বলবে, এই মেয়েটিই র‌্যাম্পের এই সময়ের সেনসেশন।

অভিনয়েও আইরিন যাবেন বহুদূর, ঝানু অভিনেত্রী ও নির্মাতা আফসানা মিমির এই অনুমান প্রমাণ করা এখন শুধু সময়ের ব্যাপার।

বাংলাদেশ স্থানীয় সময় ১৯৩০, সেপ্টেম্বর ০৬, ২০১০

চট্টগ্রামে করোনা চিকিৎসায় যুক্ত হচ্ছে ইম্পেরিয়াল-ইউএসটিসি
নিরানন্দ ঈদের দিনগুলোতে ফাঁকা সাভারের বিনোদন কেন্দ্র
যুক্তরাষ্ট্রে মৃত্যু সংখ্যা লাখ ছুঁই ছুঁই
হেরোইনসহ গ্রেপ্তারের পর ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ লঙ্কান পেসার
নদীর পাড়ে ঈদ বিনোদন


হবিগঞ্জে দু’পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১, আটক ৪
জেনারেল হাসপাতালে করোনায় আক্রান্ত রোগীর মৃত্যু
শুধু সাধারণ জীবাণু নয়, করোনা রুখতেও মাউথওয়াশ!
আনোয়ারা রাব্বীর মৃত্যুতে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর শোক
পালানোর চেষ্টা করোনা রোগীর, ধরে হাসপাতালে পাঠালো পুলিশ