‘কেড়ে নাও এ যৌবন ফিরিয়ে দাও শৈশব’

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

ওঁর গায়কী অনেকের মতো আমাকেও জাদুমুগ্ধতায় আচ্ছন্ন করে। হিন্দুস্থানী কলাকারদের মধ্যে বোধকরি এমন মদির অথচ শানদার কণ্ঠ বিরল। নিস্তব্ধ চাঁদনি রাতে চুইয়ে পড়া শিশিরের মতোই যা মনকে সিক্ত করে- এক ধরনের খোয়াবি এসে ভর করে দেহ-মনে।

ওঁর গায়কী অনেকের মতো আমাকেও জাদুমুগ্ধতায় আচ্ছন্ন করে। হিন্দুস্থানী কলাকারদের মধ্যে বোধকরি এমন মদির অথচ শানদার কণ্ঠ বিরল। নিস্তব্ধ চাঁদনি রাতে চুইয়ে পড়া শিশিরের মতোই যা মনকে সিক্ত করে- এক ধরনের খোয়াবি এসে ভর করে দেহ-মনে। তারই কণ্ঠে মির্জা গালিবের সেই উপলব্ধির মতো- ‘ফির কুচ ইস দিল কি বেকারারি হ্যায়...’

হালে বাংলাদেশে গজলের শ্রোতা নেহাত কম নয়। ’৭০-এর দশকের মাঝামাঝি এক নাগরিক মেজাজ লক্ষ্য করা যায় গজলে। আখতারি বাঈ-মেহেদি হাসানের ম্যায়ফিল, সমঝদারিত্বের সেই পরম্পরা যেন আরও একটু বিস্তৃত হলো সেসময়। এর পরবর্তঅ পর্যায়ের গজলে এক নতুন গায়নশৈলির প্রাঞ্জলতায় আপ্লুত হলো শ্রোতারা। জগজিৎ ছিলেন এ নতুন ধারার পুরোধা। এই দিকপাল গায়ক অসাধারণ মুন্সিয়ানায় হিন্দুস্থানি শাস্ত্রীয় সঙ্গীতের তুলনামূলক চটুল এ গানকে সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে পেরেছিলেন।
 
কিন্তু জগজিতের এ সাফল্য তার কন্ঠের মতো মসৃণ ছিল না; বন্ধুর পথ অতিক্রম করতে হয়েছে তাকে। এ পথচলার অনিবার্য বাস্তবতায় যশ-খ্যাতি-সাফল্যও পেয়েছিলেন ঢের। কিন্তু শিখ বালক জিৎ কীভাবে হয়ে উঠলেন গজল সম্রাট জগসিৎ সিং- এ কৌতূহল তার সব শ্রোতা-ভক্তেরই ছিল। বাংলাদেশে তিনি একাধিক কনসার্ট করেছেন। বিভিন্ন মিডিয়ায় সেসব অনুষ্ঠান কভারেজও পেয়েছিল; কিন্তু তার জীবন সম্পর্কে বিস্তারিত কোথাও তেমন চোখে পড়েনি। সেই অপূর্ণতা দূর হয়ে গেলো ১০ অক্টোবর তার মৃত্যুর সংবাদ নিয়ে বাংলানিউজে আহ্সান কবীরের  ‘কেড়ে নাও এ যৌবন ফিরিয়ে দাও শৈশব’ শীর্ষক বিশেষ প্রতিবেদনটি পড়ে। এমন একজন শিল্পীর সারাজীবনের খুঁটিনাটি নিয়ে এতো সবিস্তার বর্ণনা এর আগে আমার চোখে পড়েনি এদিশি মিডিয়ায়। এখানেই শিল্পী জগজিৎ সিংয়ের সার্থকতা। ভিনদেশে, ভিন্ন ভাষা ও সাংস্কৃতিক পরিম-লে তার এমন বোদ্ধা শ্রোতা, তার যাপিত জীবনের দরদি ব্যাখ্যাতাও আছেন।

অন্যদিকে পাঠকভাবনায় নিছক ‘খবরের ফেরিওয়ালা’ একজন সাংবাদিকের মধ্যে শাস্ত্রীয় সংগীতের প্রতি এমন অনুরাগ ও সমঝদারি আমাদের শিল্পভাবনায় প্রণোদনা জোগাবে নিঃসন্দেহে। প্রকৃত প্রস্তাবে প্রফেশনের সাথে প্যাশনের এ মেলবন্ধন না ঘটলে ‘সৃজনশীলতা’ শব্দটি ঠুনকো হয়ে যায়। ধন্যবাদ আহ্সান কবীর।

রোকনুল ইসলাম কাফী
সাংবাদিক, যশোর

বাংলাদেশ সময়: ১২৪৮ ঘণ্টা, অক্টোবর ১১, ২০১১

করোনা: আইনজীবীদের প্রণোদনা দেওয়ার দাবি
মোবাইল কলে জানালে পৌঁছে যা‌বে সহায়তা
ক্ষুদ্র-মাঝারি উদ্যোক্তাদের জন্য তহবিল গঠনের আহ্বান 
বরিশাল বিভাগে ২৪৬৪ জনের হোম কোয়ারেন্টিন সম্পন্ন
যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় বিএনপি নেতার মৃত্যু, ফখরুলের শোক


সুন্দরগঞ্জে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মোটরসাইকেল আরোহী নিহত
লোহাগাড়ায় আমিনুল ইসলামের ত্রাণ পেলো ১৮শ কর্মহীন শ্রমজীবী 
ফেনীতে মারা যাওয়া সেই যুবকের করোনা নেগেটিভ
মিরপুর থানার ‘করোনা প্রতিরোধ প্লাটুন’
মার্টিন লুথার কিংয়ের প্রয়াণ