php glass

ডিসিসি ভোট নিয়ে বৃহস্পতিবার বৈঠকে বসবে ইসি

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

নির্বাচন কমিশন ভবনের ফাইল ছবি

walton

ঢাকা: ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচন নিয়ে বৃহস্পতিবার (৩১ অক্টোবর) বৈঠকে বসবে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদার নেতৃত্বে বৈঠকটি নির্বাচন ভবনে বেলা ১১টায় অনুষ্ঠিত হবে।

বৈঠকে ডিসিসি নির্বাচন ছাড়াও বেশ কয়েকটি এজেন্ডা রাখা হয়েছে।

ইসির নির্বাচন ব্যবস্থাপনা শাখা জানিয়েছেন, চলতি বছরের শেষের দিকে অথবা ২০২০ সালের জানুয়ারির শুরু দিকে ডিসিসি নির্বাচনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। আর চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনের জন্য ২০২০ সালের মার্চের কথা ভাবা হচ্ছে।

ইসির নির্বাচন ব্যবস্থাপনা শাখা জানিয়েছে, ২০১৫ সালের ২৮ এপ্রিল এই তিন সিটির নির্বাচন একযোগে সম্পন্ন করা হয়েছিল। সিটি করপোরেশন আইন অনুযায়ী, করপোরেশনের মেয়াদ হচ্ছে প্রথম সভা থেকে পরবর্তী পাঁচ বছর। আর ভোটের আয়োজন করতে হবে মেয়াদ পূর্তির পূর্ববর্তী ১৮০ দিনের মধ্যে। সে অনুযায়ী ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়াদ শেষ হবে ২০২০ সালের ১৩ মে, ঢাকা দক্ষিণ সিটির মেয়াদ শেষ হবে ২০২০ সালের ১৬ মে। আর চট্টগ্রাম সিটির মেয়াদ শেষ হবে ২০২০ সালের ৫ আগস্ট।
 
এই হিসাবে ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনের সময় গণনা শুরু হবে আগামী মধ্য নভেম্বরে। আর চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচনের সময় গণনা শুরু হবে ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহে।

২০১৫ সালে ঢাকা উত্তরে মেয়র হিসাবে নির্বাচিত হয়েছিলেন ব্যবসায়ী নেতা আনিসুল হক। তার মৃত্যুতে উত্তরসূরী আরেক ব্যবসায়ী নেতা আতিকুল ইসলাম বর্তমান মেয়র। আর চট্টগ্রামে মেয়র হিসেবে নির্বাচিত হয়ে এখনও দায়িত্বরত আছেন আ জ ম নাসির উদ্দিন।

এই তিন সিটি নির্বাচনেও ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন ব্যবহার করা হতে পারে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৯০৮ ঘণ্টা, অক্টোবর ৩০, ২০১৯
ইইউডি/জেডএস

বিনা টিকিটে ট্রেন ভ্রমণের দায়ে ৬৭০ যাত্রীকে জরিমানা
পূর্ণাঙ্গ ক্ষমতায় অ্যান্টি টেররিজম ইউনিট
প্রথমবারের অভিজ্ঞতায় দ্বিতীয়বার আশাবাদী বন্ডস্টাইন
‘গ্যারেথ বেলের উচিৎ পুনরায় টটেনহামে ফিরে যাওয়া’ 
নওগাঁ-ঢাকা রুটে বাস চললেও এখনো বন্ধ অভ্যন্তরীণ রুটে


বাংলাদেশে পর্যটকদের মাত্র ২ শতাংশ বিদেশি!
রায়পুরে গণপিটুনিতে ডাকাত নিহত
‘হাল ছাড়া সহজ, লেগে থাকা কঠিন, কিপ প্যাডেলিং’
বছরে ১৪ মিলিয়ন পর্যটক আসে হা লং-এ: ডং হুই হাউ
ভ্রমণে হাত বাড়ালেই ‘ট্যুরিস্ট পুলিশ’