বরিশালের আসনগুলোতে স্ত্রীর তুলনায় প্রার্থীদের সম্পদ কম

স্টাফ ক‌রেসপ‌ন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: বাংলানিউজ গ্রাফিক্স

walton

বরিশাল: আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বরিশালের ছয় আসনে মনোনয়নপত্র দাখিলকারী ৫১ জন প্রার্থীর বেশিরভাগই সম্পদশালী। আবার প্রার্থী হিসেবে মাঠে নামা অনেকেই তাদের স্ত্রীদের তুলনায় কম সম্পদের মালিক রয়েছেন।

রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে মনোনয়নপত্রের সঙ্গে জমা দেওয়া হলফনামায় প্রার্থীদের উল্লেখ করা তথ্যানুযায়ী,

বরিশাল-১ আসনে বিএনপির প্রার্থী আবদুস সোবাহান পেশা হিসেবে নিজেকে সাংসারিক ব্যক্তি হিসেবে উল্লেখ করেছেন। আবদুস সোবাহানের থেকে তার স্ত্রীর স্থাবর সম্পদের পরিমাণ যেমন বেশি তেমন বছরে তার আয়ের থেকে নির্ভরশালীদের আয়ও বেশি। বাড়ি-অ্যাপার্টমেন্ট-দোকান বা অন্যান্য ভাড়া, ব্যবসা অন্যান্যভাবে তার বছরে আয় ৬ লাখ ৭৮ হাজার ৫৯৫ টাকা এবং তার ওপর নির্ভরশালীদের বছরে আয় ৮ লাখ ৮৬ হাজার ৬০৫ টাকা। স্থাবরের মধ্যে তার ৫৬ লাখ ৩৯ হাজার ৯৬০ টাকার ও তার স্ত্রীর ১ কোটি ৩ লাখ ৩৬ হাজার ৩৪৭ টাকার সম্পত্তি রয়েছে।

নিজেকে অবসরপ্রাপ্ত ব্যবসায়ী এবং হলফনামায় আয়ের কথা উল্লেখ করেননি বরিশাল-২ আসনে বিএনপির প্রার্থী সরফুদ্দিন সান্টু। এমনকি তার থেকে তার স্ত্রীর স্থাবর-অস্থাবর সম্পদের পরিমাণ বেশি। অস্থাবরের মধ্যে তার রয়েছে ১ কোটি ৪৫ লাখ ২১ হাজার ৭২৮ টাকার সম্পত্তি ও তার স্ত্রীর ৪ কোটি ৫৭ লাখ ৫১ হাজার ৮৫ টাকার সম্পত্তি রয়েছে। স্থাবরের মধ্যে রয়েছে ১৬ বিঘার ওপরে কৃষিজমি, একটি দোতলাবাড়ি ছাড়াও ৩ লাখ ৪০ হাজার ৫২৮ সম্পত্তি ও তার স্ত্রীর ৬ কোটি ১৮ লাখ ৪১ হাজার ৯৪৭ টাকার সম্পত্তি রয়েছে। ফলে প্রার্থীর থেকে তার স্ত্রীর সম্পদের পরিমাণই বেশি।

এই আসনে বিএনপির সৈয়দ শহিদুল হক জামাল পেশায় পরামর্শদাতা। এই প্রার্থীর থেকে তার স্ত্রীর বেশি স্থাবর-অস্থাবর সম্পদ রয়েছে। অস্থাবরের মধ্যে রয়েছে ১ কোটি ৬ লাখ ৪৯ হাজার ৬০১ টাকার সম্পত্তি ও তার স্ত্রীর ১ কোটি ৯৯ লাখ ৫৩ হাজার ৫০৪ টাকার সম্পত্তি রয়েছে। স্থাবরের মধ্যে রয়েছে ১৬ বিঘার ওপরে কৃষি জমি, একটি দোতলাবাড়ি ছাড়াও ৩ লাখ ৪০ হাজার ৫২৮  সম্পত্তি ও তার স্ত্রীর ৬ কোটি ১৮ লাখ ৪১ হাজার ৯৪৭ টাকার সম্পত্তি রয়েছে। যেখানে তার স্ত্রীর সম্পদের পরিমানই বেশি।

বরিশাল-৬ আসনে বিএনপির অধ্যক্ষ মো. আব্দুর রশীদ খান পেশায় একজন আইনজীবী। ১৮ লাখ ৭০ হাজার টাকার অস্থাবর সম্পদ রয়েছে প্রার্থীর নিজের এবং তার স্ত্রীর ১৮ লাখ টাকার সম্পদ ও বিয়েকালীন ১০ ভরি অলংকার রয়েছে। পাশাপাশি স্থাবর সম্পদে ৪ লাখ টাকার একটি বাড়ি ও আড়াইলাখ টাকার জমি রয়েছে প্রার্থীর নিজ নামে, এছাড়া স্ত্রীর নামে ৪৬ লাখ টাকার জমি ও দালান এবং নির্ভরশীলদের নামে ৪০ হাজার টাকা মূল্যের জমি রয়েছে। একই আসনে জাসদের মো. মোহসীন ডিপ্লোমা ইন কমার্স পেশায় একজন ব্যবসায়ী। ১১ লাখ ৩৩ হাজার ৩৯৮ টাকার অস্থাবর সম্পদ রয়েছে প্রার্থীর নিজের এবং তার স্ত্রীর নামে ১৮ লাখ ১০ হাজার টাকার সম্পদ রয়েছে। স্থাবর সম্পদে প্রার্থীর নিজের নামে ১ লাখ ২৫ হাজার টাকার একটি পিস্তল ও স্ত্রীর নামে একটি ফ্ল্যাট রয়েছে।

বাংলা‌দেশ সময়: ১৭০৫ ঘন্টা, ডিসেম্বর ০১, ২০১৮
এমএস/এএটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: বরিশাল একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন
পীরগাছায় ট্রেনের ইঞ্জিনের ধাক্কায় নিহত ৪
রাজশাহীতে বিদেশফেরত ৫১৯ জন হোম কোয়ারেন্টিনে
বগুড়ায় নতুন করে আইসোলেশনে আরও ১ জন
করোনায় থেমে গেছে রিকশার টুংটাং শব্দ
ছুটি বাড়ানোর গুঞ্জন


ভোমরা বন্দর দিয়ে প্রবেশ করছে শত শত যাত্রী, বাড়ছে আতঙ্ক
করোনা: জয়পুরহাটে এমপি দুদুর অনুদান
এবার আক্রান্তের সংখ্যায় চীনকে ছাড়িয়ে স্পেন, মৃত্যু ৭৩৪০
সঙ্কটকালে নার্সের পেশা বেছে নিলেন অভিনেত্রী
লিভারপুলের হাতে শিরোপা দেখতে চায় সিটির মিডফিল্ডার