নতুন ভোটার ফ্যাক্টে পাল্টে যাবে চিত্র

শাহজাহান মোল্লা, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

বরিশাল থেকে: বরিশাল সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোটার মোট ২ লাখ ৪২ হাজার ১৬৬ জন। এর মধ্যে ৩০ হাজার ৯০৯ জন আছেন যারা প্রথম ভোটার হয়েছেন। বাকি ১৭ হাজার ৯৮ জন নারী ভোটার এবং ১৩ হাজার ৮১১ জন পুরুষ ভোটার।

বরিশাল নির্বাচনী মাঠে একটা কথা বেশ চাউর আছে এই নতুন ভোটাররাই ফ্যাক্টর গড়ে দেবেন। তারা যেদিকে যাবে সেদিকেই জয়ের পাল্লা ভারি হবে। তবে নতুন ভোটারদের মধ্যে যারা সরাসরি ছাত্র তাদের মধ্যে দুই ভাগ আছে। অনেকে কোটা আন্দোলন ইস্যুতে নৌকার প্রতি বিরূপ। আবার অনেকে আছেন তরুণ প্রার্থী সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহর পক্ষে।

তরুণ সমাজের প্রার্থী হিসেবে নতুন মুখ সাদিক আব্দুল্লাহর প্রতি নতুন ভোটারদের আগ্রহের কারণ সে সহজেই সবাইকে আপন করে নিতে পারেন। তাছাড়া তার কাছে সবাই সরাসরি যেতে পারেন।

অন্যদিকে বিএনপি সমর্থিত মেয়র প্রার্থী মজিবর রহমান সরোয়ার অহংকারী বলে ধারণা তরুণদের। তিনি সাবেক মেয়র এবং চার বারের এমপি হওয়ায় সাধারণ ভোটাররা তার কাছে যেতে পারেন না বা তিনি ভেরেনও না।

প্রথম ভোটার জিয়াউল করিম বাংলানিউজকে বলেন, আমরা আগেও মেয়র দেখেছি। আসলে সরোয়ার সাহেব উল্লেখ করার মতো কোন কাজ করেননি। এই মহানগরীতে যে কাজ হয়েছে তার সবই হিরণ সাহেবের সময়। আর তিনি বয়স্ক মানুষ কাজ করতেও পারেন না। তাই আমরা চাই নতুন কেউ আসুক।

তিনি বলেন, তরুণ সমাজের প্রতিনিধি হিসেবে সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ সবার কাছে জনপ্রিয়। তিনি বরিশালে কোন ঝামেলা করতে দেননি। এই কয়েক বছরে বরিশালের পরিবেশ খুবই শান্ত ছিল। আর যেভাবে মানুষের সঙ্গে মিশে যান তাতে মনে হয়েছে মেয়র হিরণের মতই কাজ করবেন তিনি।

আরেক তরুণ ভোটার কাওসার হোসেন সোহান বাংলানিউজকে বলেন, এবার নতুন ভোটার যেদিক যাবে, সেদিকই বিজয় লাভ করবে। তবে মনে হয় সাদিক আব্দুল্লাহ বেশি ভোট পাবেন। কারণ সে তরুণ হিসেবে সবার সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করছেন।

অন্যদিকে তরুণদের বেশির ভাগই যেহেতু নারী ভোটার তাই তাদের গুরুত্বটাও বেশি ছাড়া, কম না। তবে তারা মুখ খুলতে নারাজ। ছাত্রীদের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে যদি ভোটের আগেই জানতে পারে তাহলে ভোটের ঝামেলা হতে পারে। তাই কিছু বলতে চান না।

সরকারি বরিশাল কলেজের ছাত্র সাব্বির হোসেন জানান, আমরা চাই তরুণ প্রতিনিধিত্ব। তাছাড়া সাদিক আব্দুল্লাহ ঘোষণা দিয়েছেন বিজয়ী হলে তরুণদের নিয়ে আলাদা করে পরিকল্পনা করবেন। তাই আমার কাছে মনে হয় তিনিই হবেন মেয়র হিরণের যোগ্য উত্তরসূরি।

বিএম কলেজের ছাত্র সাইফুল ইসলাম ও আব্দুল্লাহ আল মামুনও চান তরুণ প্রতিনিধিত্ব।

তবে আওয়ামী লীগের এক নেতা বলেন, তরুণ ভোটারদের বেশিরভাগ সাদিকের পক্ষে থাকলেও কোটা আন্দোলনের কারণে অনেকে ভোট নাও দিতে পারে। এই সংখ্যাও কম নয়।

সুশিল সমাজের প্রতিনিধি অ্যাডভোকেট মু. ইসমাইল হোসেন নেগাবান বাংলানিউজকে বলেন, দুই দলের প্রার্থীরাই অভিযোগ করছে। তবে এখন পর্যন্ত তেমন কোন পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়নি যে সুষ্ঠ ভোটের অন্তরায় হবে। আর এবারের ভোটে ৩০ হাজারের অধিক তরুণ নতুন ভোটার আছে তাদের ভোটটা ফ্যাক্টর হবে। তারা যেদিকে গড়বে তারই জয় হবে।

বাংলাদেশ সময়: ২২৪০ ঘণ্টা, জুলাই ২৩, ২০১৮
এসএম/বিএসকে

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: বরিশাল সিটি করপোরেশন
করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ডিজিটাল ম্যাপ সমৃদ্ধ করছে যুবকরা
করোনায় বাবার পর ইতালিয়ান সাবেক অ্যাথলেটের মৃত্যু
কর্ণফুলীতে ‘প্রমোদ’ ভ্রমণ, আটকালেন ম্যাজিস্ট্রেট
বরিশালে পৃথক দুর্ঘটনায় শিক্ষিকাসহ ২ নারীর মৃত্যু
শেবাচিমের করোনা ওয়ার্ড থেকে পালালো ২ রোগী!


বরিশাল বিভাগে হোম কোয়ারেন্টিন শেষে ছাড়পত্র পেলেন ৩ হাজার
কয়রায় বেড়িবাঁধে ভাঙন, আতঙ্কে ৫ গ্রামের মানুষ
ইরানে করোনায় মৃত্যু ৪ হাজার ছুঁইছুঁই, ঋণসহায়তা চান রুহানি
ফেনীতে করোনায় মৃত ব্যক্তির দাফনে আগ্রহী ২০ আলেম
দেশে কোয়ারেন্টিন ছাড়লো ৫৮১৬৭ জন