বিসিসি নির্বাচনে গণসংযোগে ব্যস্ত মেয়রপ্রার্থীরা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বিসিসি নির্বাচনে গণসংযোগে ব্যস্ত মেয়রপ্রার্থীরা। ছবি: বাংলানিউজ

walton

বরিশাল: বরিশাল সিটি করপোরেশন (বিসিসি) নির্বাচনে প্রচার-প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করছেন কাউন্সিলর ও মেয়র প্রার্থীরা। রাত-দিন রোদ-বৃষ্টি কিছুই বাধ সাধছে না প্রচার-প্রচারণায়। কখনও পিচঢালা পথ, আবারও কখনও কর্দমাক্ত কিংবা হাঁটুপানি সমান পথ পাড়ি দিয়ে ভোটারদের কাছে যাচ্ছেন প্রার্থীরা।

মেয়রপ্রার্থীদের পক্ষে স্থানীয় নেতাকর্মীদের পাশাপাশি নিজ দলীয় ও জোটের কেন্দ্রীয় নেতারাও আসছেন বরিশালে ও চালিয়ে যাচ্ছেন গণসংযোগ। বিগত দিনের উন্নয়ন আর ভবিষ্যতের পরিকল্পনার কথা তুলে ধরে প্রার্থীরা ভোটারদের দিচ্ছেন বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি।

যদিও এরইমধ্যে পাল্টাপাল্টি আচরণ-বিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ তুলে রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে লিখিত দিয়েছেন বিএনপি ও আওয়ামী লীগ। পাশাপাশি জাতীয়পার্টি (জাপা), বাসদ ও সিপিবি ক্ষমতাসীন দলের বিরুদ্ধে মৌখিক বিভিন্ন অভিযোগও তুলেছেন।

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ছাড়া বিএনপি-জাপাসহ সব দল প্রচার-প্রচারণার শুরু থেকেই নির্বাচন নিয়ে শঙ্কার কথা বলে বেড়াচ্ছেন।

এরইমধ্য দিয়ে প্রতিটি প্রার্থীই প্রচারণার অষ্টম দিন মঙ্গলবার (১৭ জুলাই) দুপুর পর্যন্ত ব্যস্ত সময় পার করেছেন। বরিশালের অলি-গলি চষে বেড়াচ্ছেন। পরিকল্পিত উন্নয়নের জন্য ধানের শীষের পক্ষে ভোট চেয়ে মঙ্গলবার সকাল ১১টায় নগরের বাংলাবাজার এলাকায় লিফলেট বিতরণ ও গণসংযোগ করেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী অ্যাডভোকেট মজিবর রহমান সরওয়ার।

গণসংযোগকালে মজিবর রহমান সরওয়ার বলেন, নির্বাচন কমিশন খুলনা এবং গাজীপুরেও সুষ্ঠু নির্বাচনের আশ্বাস দিয়েছিল। কিন্তু তারপরও ওই দু’সিটির ভোটে কারচুপি হয়েছে। তাই শুধু আশ্বাস নয়, নির্বাচন কমিশনের সুষ্ঠু ভোটের প্রতিশ্রুতির বাস্তবায়ন চাই।

এছাড়া ধানের শীষের প্রার্থীর পক্ষে সকালে সদর রোডে গণসংযোগ করেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট নজরুল ইসলাম খান, যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, বাংলাদেশ লেবারপার্টির চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান ইরান প্রমুখ।

অপরদিকে সকালে সংসদীয় বিরোধী দল জাপার মেয়রপ্রার্থী ইকবাল হোসেন তাপস নগরের কাঠপট্টি এলাকায় গণসংযোগ করেন। নগরকে আধুনিক হিসেবে গড়ে তুলতে লাঙল প্রতীকের প্রার্থীকে ভোট দিয়ে বিজয়ী করার আহ্বান জানান তিনি।

তিনি বলেন, জনগণের মধ্যে সুষ্ঠু নির্বাচন হওয়ার ও করার প্রবণতা আছে। কিন্তু জনগণ সন্দেহের মধ্যে আছে যে প্রশাসন কতটুকু সুষ্ঠু নির্বাচন করবে কিংবা তাদের আন্তরিকতা কতটুকু থাকবে। বর্তমানে একজন বিশেষ প্রার্থীর পক্ষে প্রশাসনের একটা সফট কর্ণার দেখা যাচ্ছে। নির্বাচনী এলাকায় এমপিরা ঘোরাফেরা করছে। যা আচরণ বিধি লঙ্ঘন বলে আমার মনে হয়।

এদিকে দুপুরে আওয়ামী লীগের মেয়রপ্রার্থী সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ গণসংযোগে নামেন। এ সময় তিনি নগরবাসীকে নিয়ে নগর উন্নয়নের মধ্য দিয়ে দৃষ্টিনন্দন ও আধুনিক বরিশাল গড়ে তোলার কথা বলেন।

এর আগে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে ভোটারদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, বিএনপি বিগত সময়েও এখনকার মতো বিভিন্ন অভিযোগ তুলেছেন, বলেছে শঙ্কার কথা। আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় থাকাকালীন সেসব নির্বাচনে যেই তাদের প্রার্থীর বিজয় হয়েছে সঙ্গে সঙ্গে তাদের সুরও পাল্টে গেছে। ৩০ জুলাই নির্বাচনে ভোটাররা ভোট দিতে কেন্দ্রে যাবেন ও আপনাদের কাছে যাকে যোগ্য মনে হবে তাকে ভোট দেবেন।

সোমবার (১৬ জুলাই) বিকেলে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের নিয়ে এক মতবিনিময় সভায় বরিশাল সিটিতে সুষ্ঠু ভোটের আশ্বাস দেন নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার।

বাংলাদেশ সময়: ২০৫৮ ঘণ্টা, জুলাই ১৭, ২০১৮
এমএস/এএটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: বরিশাল সিটি নির্বাচন
করোনা মোকাবিলায় অর্থনৈতিক গতিশীলতা ধরে রাখতে হবে
চলে গেলেন রিয়াল, বার্সা, অ্যাতলেটিকোর সাবেক কোচ অ্যান্টিচ
করোনা: বরিশাল জেলায় প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা
সাজেকে ‘হাম-রবেলা’ টিকা ক্যাম্পেইন শুরু
ত্রিপুরায় করোনায় আক্রান্ত একজন শনাক্ত


বিনিয়োগ বাড়লেও ইপিজেডে কমেছে জনবল
করোনা: লালমনিরহাটে বেগুনের কেজি ২ টাকা!
হাসপাতাল থেকে ফিরিয়ে দেওয়ায় রাস্তায় ইজিবাইকে জন্ম নিলো শিশু
‘করোনা’ গুজব ঠেকাতে ফেসবুকের সমন্বিত উদ্যোগ
নারায়ণগঞ্জ হাসপাতালের জরুরি বিভাগ বন্ধ ঘোষণা