ত্রাণ তহবিলে ফেনী মাধ্যমিক শিক্ষা বিভাগের ১ দিনের বেতন 

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

...

walton

ফেনী: করোনা ভাইরাস প্রাদুর্ভাব মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রীর পাশে থাকতে সারাদেশের মতো একদিনের বেতন দিলেন ফেনীর মাধ্যমিক স্কুল ও কলেজ পর্যায়ের সরকারি-বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারীরা।

রোববার (২৬ এপ্রিল) দুপুরে জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা কাজী সলিম উল্যাহ জানান, বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি স্কুল, মাদ্রাসা ও বেসরকারি কলেজ শিক্ষক-কর্মচারীরা স্বেচ্ছায় এগিয়ে এসেছেন। একদিনের সমপরিমাণ বেতন আর্থিক সহায়তা হিসেবে ১৬৩টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ১৬ লাখ ৮০ হাজার ৩৭৪ টাকা মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর মহাপরিচালকের ব্যাংক হিসাবে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত জমা দিয়েছে।

জেলা শিক্ষা কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্র জানায়, ফেনী সদর উপজেলায় এমপিওভুক্ত মাধ্যমিক স্কুল, ২টি সরকারি স্কুল ও ৩টি বেসরকারি কলেজসহ ৫৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, কর্মচারীরা জমা করেছে ৬ লাখ ৫০ হাজার ৩৬৭ টাকা। ছাগলনাইয়া উপজেলাধীন ২৮টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে জমা দেওয়া হয় ২ লাখ ৩৪ হাজার ১৭৬ টাকা। দাগনভূঞার ২৬ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে জমা দেওয়া হয় ২ লাখ ৬১ হাজার ৮৯৪ টাকা। ৩টি বেসরকারি কলেজসহ ফুলগাজী উপজেরার ২৪ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হতে জমা দেয়া হয় ২ লক্ষ ৬৪ হাজার ৬৮ টাকা। সোনাগাজীতে ১৯ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হতে জমা হয় ১ লাখ ৬৯ হাজার ৭৭৪ টাকা। পরশুরাম উপজেলায় ১৩ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান দেয় ১ লাখ ৬৯৫ টাকা। এছাড়াও জেলা শিক্ষা অফিস ও ৬ উপজেলা অফিসে কর্মরত জনবল একদিনের সমপরিমাণ বেতন হিসেবে জমা দেয় ৩২ হাজার ৬২০ টাকা।

ফেনী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সুব্রত নাথ বলেন, আমাদের স্কুলের ৩৪ জন শিক্ষক-কর্মচারীর একদিনের বেতন ৩৬ হাজার ২শ টাকা জমা দিয়েছি। বিশ্বব্যাপী এ দুর্যোগকালে সবার উচিত দেশের স্বার্থে প্রধানমন্ত্রীর পাশে দাঁড়ানো।

ফেনী সরকারি পাইলট হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক হোসনে আরা বেগম বলেন, স্কুলের ৩২ জন জনবলের পক্ষে ৩৩ হাজার ৩০ টাকা জমা দেওয়া হয়েছে। মানবিক কারনে সবার দায়িত্ব পালনের সময় এসেছে।

ফেনী সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ে কর্মরত পরিচ্ছন্নতাকর্মী আবদুর রউফ সহায়তা করেন ৪৭০ টাকা। তিনি বলেন, দেশের প্রয়োজনে সবার এগিয়ে আসা উচিত।

এর আগে সরকারের পাশে থাকতে ফেনীতে প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগে কর্মরত শিক্ষা কর্মকর্তা, শিক্ষক ও কর্মচারীরা ২০ লাখ ৪৯ হাজার ৭শ ১৮ টাকা সহায়তা দেয়।

এ প্রসঙ্গে জেলা প্রাথমিক শিক্ষাকর্মকর্তা নূরুল ইসলাম বলেন, সবাই বৈশাখী উৎসব ভাতার ২০ শতাংশ টাকা আর্থিক সহায়তা হিসেবে দিয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ২০৩৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ২৬, ২০২০
এসএইচডি/এএ

পাথরঘাটায় হরিণের মাথা-চামড়া জব্দ
রাজনীতির ইতিহাসে কালজয়ী জিয়া: এলডিপি
ফেরিঘাট দেখে সারাদেশ মূল্যায়ন করা যাবেনা
করোনাকালে বাল্যবিয়ের চেষ্টা, বর-কনের অভিভাবকের জরিমানা
বশেমুরবিপ্রবির উপ-পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের করোনা শনাক্ত


পাইলটের করোনা, মাঝপথ থেকে ফিরলো এয়ার ইন্ডিয়ার ফ্লাইট
চাই না হতে মর্গে পচা লাশ!
করোনায় পার্বত্য এলাকায় রেড ক্রিসেন্ট-রেড ক্রসের সহায়তা
২ জুন বশেমুবিপ্রবির দাপ্তরিক কার‌্যক্রম খুলছে না
ইকার্দির সঙ্গে স্থায়ী চুক্তি করছে পিএসজি