php glass

ফেসবুক পোস্টের জেরে বশেমুরপ্রবির ৬ শিক্ষার্থী বহিষ্কার

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

walton

গোপালগঞ্জ: গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) শ্রেণিকক্ষে পরিচ্ছন্নতা নিয়ে ফেসবুকে স্ট্যাস্টাস দেওয়ায় ৬ শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন মেয়াদে বহিষ্কার করা হয়েছে।

বহিষ্কৃত শিক্ষার্থীরা হলেন- ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী হাবিবুল্লা নিয়ন, মো. রাশেদ হাসান, মুনিম ইসলাম হীরা, ঝিলাম হালদার, ফাহমিদা বৃষ্টি ও দেবব্রত রায়। 

এর মধ্যে হাবিবুল্লা নিয়নকে দুই সেমিস্টারের জন্য অর্থাৎ এক বছরের জন্য এবং বাকি পাঁচ শিক্ষার্থীকে এক সেমিস্টারের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে।

গত ৪ সেপ্টেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রফেসর ড. নুরউদ্দিন আহমেদ স্বাক্ষরিত এক আদেশে ওই শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে এ সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়। 

বহিষ্কার আদেশ (স্মারক নং-বশেমুরবিপ্রবি/ব/একা/৪১/৮৭৮(১০) সূত্রে জানা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের তৃতীয় বর্ষের (২০১৬-১৭) ছাত্র  হাবিবুল্লা নিয়ন বিভাগীয় ক্লাসরুম ১০৩ এর পরিচ্ছন্নতা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি যেন নষ্ট না হয় এই মর্মে বিভাগীয়  চেয়ারম্যান তাদের সতর্ক করেন। পরে এক শিক্ষার্থী ফেসবুকে আরেকটি স্ট্যাটাস দেন। সেখানে নিয়ন এবং তার কয়েকজন সহযোগী কিছু মন্তব্য লিখেন। 

‘এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি নষ্ট হয়েছে, যা শৃঙ্খলা পরিপন্থি এবং গর্হিত কাজ। এমন গর্হিত কাজের জন্য এ সংক্রান্ত ঘটনা তদন্তের জন্য বিভাগীয় একাডেমিক কমিটির সুপারিশ অনুসারে কর্তৃপক্ষ ছয় শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করেছে।’ বলা হয় ওই আদেশে।

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার নুরউদ্দিন আহমেদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বাংলানিউজকে জানান, শিক্ষার্থীদের সঙ্গে তাদের আপত্তিকর ফেসবুক স্ট্যাটাস নিয়ে আলোচনা করেই বিভাগীয় একাডেমিক কমিটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ওই ৬ শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করে চিঠি ইস্যু করে আমাকে দিয়ে স্বাক্ষর করানো হয়েছে। এ বিষয়ে আমি কিছুই জানি না। 

দুই সেমিস্টারের জন্য বহিষ্কৃত শিক্ষার্থী হাবিবুল্লা নিয়ন বাংলানিউজকে বলেন, এ বিষয়ে আমাদের কিছু বলার নেই। আমরা ভিসি স্যারের কাছে ক্ষমা চাইবো।

এ বিষয়ে ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) বিভাগের অধ্যাপক বিলাস কান্তি বালার সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তিনি ফোন ধরেননি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর মোহাম্মদ আশিকুজ্জামান ভূঁইয়া জানিয়েছেন, বিভাগের প্রধান প্রফেসর ড. বিলাস কান্তি বালাকে নিয়ে বিভিন্ন বিরূপ মন্তব্য করায় এবং ফেসবুকে বিভিন্ন আপত্তিকর পোস্ট দেওয়ায় একাডেমিক বোর্ড ওই ৬ শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে বহিষ্কার আদেশ দিয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৯১৫ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ০৬, ২০১৯
জেডএস

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: গোপালগঞ্জ
ksrm
দুর্নীতির দায়ে ডোমারে রেল স্টেশন বুকিং সহকারী বরখাস্ত
রাবির চিত্রকলা বিভাগের ফল পুনঃমূল্যায়নের দাবি
গণধর্ষণ মামলায় ১৬ আসামির বিরুদ্ধে আদালতে চার্জ গঠন
ফের হাতি, আতঙ্কে ৬ গ্রামের প্রায় ১৫ হাজার মানুষ
যাত্রী ছাউনিতে জন্ম নেয়া শিশুকে পরিবারের কাছে হস্তান্তর


মধুপুরে প্রাথমিক শিক্ষকদের মানববন্ধন
নেতাকে কুপিয়ে আহতের ঘটনায় ৩ যুবলীগ নেতা বহিষ্কার
শুরু হলো জাতীয় নারী দাবা প্রতিযোগিতা
সিনিয়র ক্রিকেটাররাই ভালো খেলতে সাহায্য করেছেন: আমিনুল
ইউরোপা লিগে আর্সেনাল-ম্যানইউ’র শুভ সূচনা