ছাত্রদের সমস্যার সমাধানে কার্যকর ভূমিকা রাখার অঙ্গীকার

সাজ্জাদুল কবির, ইউনিভার্সিটি করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

মো. মারিয়াম জামান খান (সোহান), মো. সিয়াম রহমান ও এম মোরশেদ সালাম

walton

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়: দীর্ঘ ২৮ বছর পর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদ নির্বাচন। নির্বাচনকে সামনে রেখে হলগুলোর শিক্ষার্থীদের মাঝে বিরাজ করছে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা। প্রার্থীরাও নানা প্রতিশ্রুতি নিয়ে হাজির হচ্ছেন ভোটারদের কাছে। আশ্বাস দিচ্ছেন শিক্ষার্থীদের নানাবিধ সমস্যা সমাধানেরও। ক্যাম্পাসের অন্যান্য হলের মতো মাস্টারদা সূর্য সেন হল সংসদে রয়েছে আবাসনসহ নানা সমস্যা। হল সংসদে নির্বাচিত হলে শিক্ষার্থীদের সমস্যা সমাধানে প্রশাসনকে সঙ্গে নিয়ে কার্যকর ভূমিকা রাখার অঙ্গীকার নিয়ে ভোটারদের কাছে হাজির হচ্ছেন ছাত্রলীগ মনোনীত সম্মিলিত শিক্ষার্থী সংসদের প্যানেলের শীর্ষ তিন প্রার্থী।

সমাজবিজ্ঞান বিভাগের মাস্টার্সের ছাত্র মো. মারিয়াম জামান খান (সোহান) এই হল সংসদে সহ-সভাপতি (ভিপি) প্রার্থী হয়েছেন। সাধারণ সম্পাদক (জিএস) প্রার্থী হয়েছেন ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড ভালনারেবেলিটি স্টাডিজ ২০১৪-১৫ সেশনের মো. সিয়াম রহমান। আর সহ-সাধারণ সম্পাদক (এজিএস) প্রার্থী হয়েছেন অ্যাকাউন্টিং অ্যান্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস বিভাগের ২০১৩-১৪ সেশনের ছাত্র এম মোরশেদ সালাম।

ভিপি প্রার্থী মারিয়াম জামান খান বাংলানিউজকে বলেন, অবস্থানগতভাবে বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যান্য হলের চেয়ে আমাদের হল গুরুত্বপূর্ণ। যদি সুযোগ পাই হলের ছাত্রদের নিয়ে কাজ করতে চাই। মাসিক সাধারণ সভার মাধ্যমে সবার মতামত গ্রহণ করবো। আবাসন সমস্যার সমাধান, ক্যান্টিনে খাবারের মান উন্নতকরণসহ প্রশাসনের কাছে শিক্ষার্থীদের যৌক্তিক দাবিগুলো জোরালোভাবে উপস্থাপন করবো। পাশাপাশি গণরুমের সংস্কৃতি দূর করার চেষ্টা করবো।

ইশতেহার নিয়ে মারিয়াম জামান খান বলেন, আমরা চাই শিক্ষার্থীদের দাবিগুলো আমাদের ইশতেহারে উঠে আসুক। এজন্য আমরা বক্স করেছি। যেখানে শিক্ষার্থীরা আগ্রহ নিয়ে জমা দিচ্ছেন। ছাত্রবান্ধব হবে আমাদের ইশতেহার।

জিএস প্রার্থী সিয়াম রহমান বলেন, সত্তরের দশকে দেশ স্বাধীনতার প্রেক্ষাপটে ডাকসু নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল। এবার ডিজিটাল বাংলাদেশ নির্মাণের প্রচেষ্টাকে এগিয়ে নেওয়া হবে মূল কাজ। মাস্টারদা সূর্য সেন হল নামেই ক্যাম্পাসের নিউক্লিয়াস হল হবে না, তথ্য প্রযুক্তির ছোঁয়ায় সব কিছুতে পরিবর্তন আসবে। এজন্য আমরা কর্তৃপক্ষকে অচল কম্পিউটার ল্যাব আসন বৃদ্ধিসহ সচল করার জন্য উদ্যোগ নিতে বলবো।

আবাসন সমস্যা নিয়ে পরিকল্পনার কথা জানিয়ে সিয়াম বলেন, যেহেতু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে এই আবাসন সুবিধার জন্য প্রাচ্যের অক্সফোর্ডের সঙ্গে তুলনা করা হয়, আমরা এই বিষয়টিতে গুরুত্ব দেবো। সব শিক্ষার্থীর জন্য আবাসন সুবিধা নিশ্চিতকরণে প্রশাসনসহ সবাইকে নিয়ে সম্মিলিতভাবে কাজ করবো। এতে একটি সুফল আসবে বলে আমি বিশ্বাস করি। হলের ছাত্রদের প্রতিনিধি হিসেবে ভূমিকার রাখার জন্য ভোটারসহ সবার সমর্থন কামনা করি।

এজিএস প্রার্থী মোরশেদ সালাম বাংলানিউজকে বলেন, আমরা ইতোমধ্যে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলেছি। আবাসন সমস্যাসহ কিছু কমন বিষয় উঠে এসেছে। নির্বাচিত হলে ছাত্রদের প্রতিনিধি হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবো। পাশাপাশি হলের অভ্যন্তরে শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ নিশ্চিত করার জন্য কাজ করবো।

আগামী ১১ মার্চ অনুষ্ঠেয় নির্বাচনে ছাত্রলীগের প্যানেল ছাড়াও প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে ছাত্রদল, কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ ও বাম জোটের প্রার্থীরা। সূর্য সেন হলে মোট ভোটার রয়েছেন ২ হাজার ১৭০ জন। তার মধ্যে অনার্স লেভেলে ১৬৭৭ জন, মাস্টার্সে ৩৩৬ জন এবং এমফিলে ১৫৭ জন।
 
বাংলাদেশ সময়: ০৭২৪ ঘণ্টা, মার্চ ০৪, ২০১৯
এসকেবি/এইচএ/

ক্ষুদ্র-মাঝারি উদ্যোক্তাদের জন্য তহবিল গঠনের আহ্বান 
বরিশাল বিভাগে ২৪৬৪ জনের হোম কোয়ারেন্টিন সম্পন্ন
যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় বিএনপি নেতার মৃত্যু, ফখরুলের শোক
সুন্দরগঞ্জে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মোটরসাইকেল আরোহী নিহত
লোহাগাড়ায় আমিনুল ইসলামের ত্রাণ পেলো ১৮শ কর্মহীন শ্রমজীবী 


ফেনীতে মারা যাওয়া সেই যুবকের করোনা নেগেটিভ
মিরপুর থানার ‘করোনা প্রতিরোধ প্লাটুন’
মার্টিন লুথার কিংয়ের প্রয়াণ
করোনা: সংহতি জানিয়ে চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে মোমেনের চিঠি
২৪ ঘণ্টায় ইতালির মৃত্যুর মিছিলে আরো ৭৬৬ জন