ডাকসু নিয়ে সিদ্ধান্ত: ইতিবাচক ছাত্রলীগ, হতাশ অন্যরা

সাজ্জাদুল কবির, ইউনিভার্সিটি করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ডাকসু

walton

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়: দীর্ঘ ২৮ বছর পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ নির্বাচনের (ডাকসু) আয়োজনের কারণে বিভিন্ন ধরনের জটিলতা তৈরি হয়। যার কারণে গঠনতন্ত্র সংশোধন ও আচরণবিধি নিয়ে ক্রিয়াশীল ছাত্রসংগঠনগুলোর সঙ্গে দফায় দফায় মতবিনিময় করে প্রশাসন। 

তবে বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম সিন্ডিকেট সভার পর এসব বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে আসতে সক্ষম হয়েছে কর্তৃপক্ষ। নতুন করে নেওয়া এসব সিদ্ধান্তকে ইতিবাচকভাবে নিয়েছে সরকার সমর্থক ছাত্রসংগঠন ছাত্রলীগ। তবে অন্য ছাত্রসংগঠনগুলো এসব সিদ্ধান্তকে একপাক্ষিক অ্যাখ্যা দিয়ে আন্দোলন করার ঘোষণা দিয়েছে।

সংশ্লিষ্টরা জানায়, সিন্ডিকেট সভার আগে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে ছাত্রসংগঠনগুলো তাদের মতামত তুলে ধরে। এতে ছাত্রলীগসহ অন্যরা বয়স বাড়ানোর প্রস্তাব রাখে। তবে ভোটকেন্দ্র একাডেমিক ভবনে স্থানান্তর করা নিয়ে অন্য সব ছাত্রসংগঠন একমত পোষণ করলেও ছাত্রলীগ হলে কেন্দ্র করার অবস্থানে অনঢ় থাকে। তবে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সব কিছু পর্যালোচনার পর প্রার্থীদের বয়স ৩০ ও ভোটকেন্দ্র হলে রাখে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের এসব সিদ্ধান্তকে ইতিবাচকভাবে গ্রহণ করেছে ছাত্রলীগ। সংগঠনটির বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন বাংলানিউজকে বলেন, দীর্ঘ ২৮ বছর ধরে নির্বাচন হয়নি, অনেক ধরনের সীমাবদ্ধতা ছিল। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে সেটাতে বাস্তবতা প্রতিফলিত হয়েছে। সিন্ডিকেটের সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হয়েছে। আমরা আশা করছি প্রশাসন অতি দ্রুত তফসিল ঘোষণা করবে। প্রগতিশীল সংগঠনগুলোকে দায়িত্বশীল আচরণ করার আহ্বান জানাবো। 

তবে এটিকে একপাক্ষিক সিদ্ধান্ত হিসেবে অভিহিত করেছেন ছাত্র ইউনিয়নের ঢাবি সংসদের সভাপতি ফয়েজ উল্লাহ। বাংলানিউজকে তিনি বলেন, ‘আমরা সব বিষয়কে পুনর্বিবেচনা করার দাবি জানাচ্ছি। আমাদের কাছে মনে হয়েছে একটি বিশেষ ছাত্র সংগঠনের দাবি এখানে প্রতিফলিত হয়েছে। সাধারণ শিক্ষার্থীদের প্রত্যাশা পূরণ হয়নি। প্রশাসনকে দাবি জানাবো গণভোটের মাধ্যমে ভোটকেন্দ্র কোথায় হবে তার রায় নিশ্চিত করার।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক আবুল বাশার সিদ্দিকী বলেন, এ মুহূর্তে আমরা পুরোটা পর্যালোচনা করা ছাড়া বলতে পারছি না। আরেকটা আমাদের যে অন্যতম বিষয় ছিল অনুষদে ভোটকেন্দ্র স্থাপন সেটিও বাস্তবায়ন হয়নি। তাই হলে ভোটকেন্দ্র স্থাপন হলে নির্বাচন সুষ্ঠু হবে কি না তা নিয়ে শঙ্কায় রয়েছি।

বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা সভাপতি উম্মে হাবিবা বেনজীর বাংলানিউজকে বলেন, বয়সসীমা নিয়ে আমাদের কোনো আপত্তি নেই। নির্বাচন সুষ্ঠু না হলে বয়স প্রার্থী দিয়ে কি হবে? আমাদের দাবি ছিল ভোটকেন্দ্র হলের বাইরে করার। কিন্তু সে দাবি মানা হয়নি। আমরা কাল থেকে এ দাবিতে আন্দোলনের কর্মসূচি দেব। সবাইকে সঙ্গে নিয়ে অধিকার আদায় করবো। 

বাংলাদেশ সময়: ০০০৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৩০, ২০১৯
এসকেবি/আরআর

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ঢাবি ছাত্র সংসদ নির্বাচন
বীরবিক্রম শাফী ইমাম রুমীর জন্ম
সেই প্রবীণদের বাড়িতে ইউএনও, ফোনে কথা বললেন প্রতিমন্ত্রী
ইতালিতে করোনায় মৃত্যু ১০ হাজার ছাড়ালো
করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু: পুলিশি পাহারায় দাফন
যুক্তরাষ্ট্রে স্ত্রীসহ করোনায় আক্রান্ত কাজী মারুফ


করোনায় নাকাল দুস্থদের মধ্যে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ ইশরাকের
করোনা সন্দেহে মাদারীপুরে কলেজছাত্র আইসলেশনে
২০ হাজার পরিবারকে চাল-ডাল দেবেন মেয়র লিটন
করোনা আক্রান্ত ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীকে শেখ হাসিনার চিঠি
প্রধানমন্ত্রীর তহবিলে ১০ কোটি টাকা দিচ্ছে বসুন্ধরা গ্রুপ