কিডজি ইন্টারন্যাশনাল চেইন স্কুলের পল্লবী শাখার উদ্বোধন

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

নতুন শতকের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার প্রত্যয় নিয়ে কিডজি ইন্টারন্যাশনাল চেইন স্কুলের পল্লবী শাখার উদ্বোধন করা হয়েছে।

ঢাকা: নতুন শতকের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার প্রত্যয় নিয়ে কিডজি ইন্টারন্যাশনাল চেইন স্কুলের পল্লবী শাখার উদ্বোধন করা হয়েছে। বুধবার সকালে কেক কেটে এক অনাড়ম্বরপূর্ণ অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়।

রাজধানীর মিরপুর-১২ নম্বরের পল্লবীতে ছয়তলা ভবনজুড়ে (বাসা-৬৭, রোড-৪, ব্লক-বি, সেকশন-১২, পল্লবী, মিরপুর, ঢাকা-১২১৬) স্থাপিত স্কুলের দ্বিতীয় এ শাখার ২০১২-১৩ শিক্ষাবর্ষের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। একই দিনে একই ভবনে অটিস্টিক ও প্রতিবন্ধী শিশুদের বিশেষ স্কুল- ‘কিডজকেয়ার’ এবং ইংরেজি মাধ্যম স্কুল- ব্রাইটন স্কুল অ্যান্ড কলেজও যাত্রা শুরু করেছে।
একদল উদ্যমী, উচ্চশিক্ষিত এবং প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত শিক্ষক-শিক্ষয়িত্রী এবং থেরাপিস্ট নিয়ে কিডজি’র দ্বিতীয় ক্যাম্পাসের কার্যক্রম সমন্বিতভাবে চলবে।

দোয়া-মিলাদ মাহফিল, কেক কাটা এবং মিষ্টি বিতরণের মধ্যে দিয়ে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শুরু হয়। বর্ণিল ফেস্টুন, ব্যানার ও শিশুদের কোলাহলে পুরো ক্যাম্পাস এ সময় উৎসবমুখর হয়ে উঠে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান এবং নির্বাহী কর্মকর্তা লায়ন মোহাম্মদ এরশাদ হোসেন রানা, পরিচালক এএফএম জুলফিকার, ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট রিয়াজ হোসেন সিদ্দিক, একাডেমিক কাউন্সিলর সোহানা ইসলাম, অ্যাডমিন অফিসার তাওহিদী রউফ এবং ক্ষুদে শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকরা উপস্থিত ছিলেন।

লায়ন মোহাম্মদ এরশাদ অনুষ্ঠানে আগত অভিভাবকদের স্বাগত জানিয়ে প্রতিষ্ঠানটিকে আন্তজার্তিক মানের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পরিণত করার জন্য সকলের সর্বাত্মক সহযোগিতা এবং পরামর্শ কামনা করেন। এ ব্যাপারে কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে সেবার ক্ষেত্রে কোনো ত্রুটি হবে না বলেও তিনি উপস্থিত সকলকে আশ্বস্ত করেন।

স্কুলের একাডেমিক কাউন্সিলর সোহানা ইসলাম কিডজি স্কুলের শিক্ষাদান পদ্ধতি এবং আগামী দিনগুলোর বিভিন্ন কার্যক্রম সম্পর্কে সম্যক ধারণা তুলে ধরে অভিভাবকদের সামনে পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন দেন।

প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান ঘোষণা করেন, কিডজি, কিডজকেয়ার এবং ব্রাইটন স্কুল অ্যান্ড কলেজের উন্নত সেবা এবং শিক্ষা সকলের কাছে পৌঁছে দেওয়ার জন্য পর্যায়ক্রমে ঢাকা শহরের বিভিন্ন স্থানে আরো ৬টি শাখা খোলা হবে।

বনানীতে এই স্কুলের প্রধান শাখা রয়েছে।

কিডজি স্কুলে প্লে থেকে সিনিয়র কেজি পর্যন্ত শিক্ষার্থী ভর্তি করানো হচ্ছে। কিডজ কেয়ারে প্রতিবন্ধী এবং অটিস্টিক শিশুদের জন্য বিশেষ পদ্ধতিতে শিক্ষা দেওয়ার ব্যবস্থা রয়েছে। ব্রাইটন স্কুল অ্যান্ড কলেজে ইংলিশ মিডিয়ামে স্ট্যান্ডার্ড ওয়ান থেকে ‘ও’ লেভেল এবং ন্যাশনাল কারিকুলামে (ইংলিস ভার্সন) ক্লাস ওয়ান থেকে টেন পর্যন্ত ভর্তি করানো হবে।

বুধবার মিরপুরের পল্লবীতে বি ব্লকের ৪ নম্বর রোডের ৬৭ নম্বর বাসায় স্কুল ভবনে গিয়ে দেখা গেছে, বিভিন্ন তলায় স্কুলের শিক্ষার্থীদের ক্লাসরুম ছাড়াও ব্যায়ামাগার, বিনোদন কক্ষ, খেলার কক্ষসহ আনুষঙ্গিক সুযোগ-সুবিধার জন্য বিভিন্ন কক্ষ মনোরম পরিবেশে সাজানো রয়েছে।

কিডজ কেয়ারের বিভিন্ন কক্ষ ঘুরে দেখা গেছে, প্রতিবন্ধী এবং অটিস্টিক শিশুদের অত্যন্ত নিবিড় পরিবেশে শিক্ষা ও স্বাস্থ্যসেবা দেওয়ার দৃশ্য। এই শাখায় অকুপেশনাল থেরাপিস্ট, স্পিচ থেরাপিস্ট, সাইক্লোজিক্যাল থেরাপিস্টরা বিশেষ পদ্ধতিতে প্রতিবন্ধী শিশুদের শিক্ষা দিচ্ছেন।

পরিচালক এএফএম জুলফিকার বাংলানিউজকে বলেন, ব্যবসায়িক নয়, উন্নতমানের সেবাদানের উদ্দেশ্যে এ স্কুল প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। তিনি জানান, ইংল্যান্ডের দুটি স্কুলের সঙ্গে কিডজি স্কুলের তথ্য আদান-প্রদান করা হয়ে থাকে, যাতে শিক্ষার্থীরা আধুনিক শিক্ষার নির্যাস ভোগ করতে পারে।

তিনি জানান, কিডজ কেয়ার স্কুলে প্রতিবন্ধী শিশুদের বিশেষ যত্নের সঙ্গে শিক্ষাদান, তাদের মনো-চাহিদা পূরণ করে স্বাভাবিক করে তোলার জন্য বিভিন্ন থেরাপিস্ট এবং স্পেশালিস্টদের মাধ্যমে যত্ন নেওয়া হয়।

স্কুলে ভর্তিসহ বিভিন্ন তথ্যের জন্য ০১৭৩১৬৫৫৭৫৭, ০১৭৩১৬২৯৭৯৭, ৮০৩৩৯৮১, ৯৮৬১০৭২ এবং ৯৮৬৩২২৫ নম্বরে যোগাযোগ করা যাবে। এছাড়া www.kidzcareschool.com ওয়েবসাইটে বিভিন্ন তথ্য পাওয়া যাবে।

বাংলাদেশ সময়: ১১১০ ঘণ্টা, জুলাই ১১, ২০১২
এমআইএইচ/সম্পাদনা: অশোকেশ রায়, অ্যাসিসট্যান্ট আউটপুট এডিটর

মিরপুর ও নারায়ণগঞ্জে করোনা পরিস্থিতি ভয়ংকর
ঢাকার বাইরে করোনা রোগী বেড়েছে
এটিএম বুথগুলোর সামনে ‘সামাজিক দূরত্ব’ মানা হচ্ছে না!
ফেনীতে করোনা উপসর্গ নিয়ে একজনের মৃত্যু
বগুড়ায় হতদরিদ্রদের ৫০ বস্তা চালসহ কৃষক লীগ নেতা আটক


সাহায্যের জন্য নগদ অর্থ সংগ্রহ করবেন না: মুখ্যমন্ত্রী
সিলেটে প্রবাস ফেরত যুবককে কুপিয়ে খুন
নারায়ণগঞ্জে বিভিন্ন বাসার ছাদে সারারাত জামাতে নামাজ আদায়
রাজশাহীতে ৩৩৭ জনের নমুনা সংগ্রহ
করোনা মোকাবিলায় ফেনীর প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগের সহায়তা