কমনওয়েলথ ফেলোশিপ পেলেন অধ্যাপক তোফাজ্জল

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

যুক্তরাজ্যের কমনওয়েলথ একাডেমিক ফেলোশিপ ২০১২ লাভ করেছেন বিশিষ্ট কৃষিবিজ্ঞানী ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োটেকনোলজি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডক্টর তোফাজ্জল ইসলাম ।

ঢাকা: যুক্তরাজ্যের কমনওয়েলথ একাডেমিক ফেলোশিপ ২০১২ লাভ করেছেন বিশিষ্ট কৃষিবিজ্ঞানী ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োটেকনোলজি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডক্টর তোফাজ্জল ইসলাম ।

এই ফেলোশিপের অধীনে অধ্যাপক ইসলাম যুক্তরাজ্যের নটিংহাম বিশ্ববিদ্যালয়ের জলবায়ু পরিবর্তন বিভাগের প্রফেসর মিশেল ক্লার্ক’র সঙ্গে বাংলাদেশের জলবায়ু পরিবর্তন ও জীববৈচিত্র্য নিয়ে যৌথভাবে গবেষণা করবেন। চলতি বছরের অক্টোবর মাস থেকে এ গবেষণা কার্যক্রম শুরু হবে।

বৃটিশ কাউন্সিলের ইন্সপায়ার প্রোগ্রামের অর্থ সহায়তায় যুক্তরাজ্যের নটিংহাম বিশ্ববিদ্যালয় ও দেশের হাজী দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে যৌথভাবে ‘ক্লাইমেট চেঞ্জ: ফুড সিকিউরিটি, ওয়াটার রিসোর্সেস অ্যান্ড রুরাল রিসিলেন্স অব ওয়েস্টার্ন বাংলাদেশ প্রকল্পেরও কাজ করছেন অধ্যাপক তোফাজ্জল ইসলাম।

অধ্যাপক ইসলাম বিভিন্ন ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ চ্যান্সেলর পুরস্কার, ইউজিসি মেরিট অ্যাওয়ার্ড. অধ্যাপক করিম মেমোরিয়াল অ্যাওয়ার্ড এবং বিশ্ববিদালয় স্বর্ণপদক লাভ করেন। ১৯৯৪ সালে প্রভাষক (কৃষি) পদে বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে যোগদান করেন তোফাজ্জল ইসলাম। ১৯৯৭ সালে জাপান সরকারের মনবুশো বৃত্তির আধীনে তিনি হোক্কাইডো বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইকোলজিক্যাল কেমিস্ট্রি ও এপ্লাইড বায়োসাইন্সে যথাক্রমে এম.এস. (১৯৯৯) ও পিএইচ. ডি. (২০০২)  ডিগ্রি অর্জন করেন। একই বিশ্ববিদ্যালয়ে পোস্ট-ডক্টরাল গবেষণার জন্য তিনি জেএসপিএস ফেলোশিপ (২০০৩-২০০৫) লাভ করেন। তিনি আলেকজান্ডার ফন হুমবোল্ড ফাউন্ডেশন থেকে ফেলোশিপ নিয়ে ২০০৭-২০০৯ পর্যন্ত জার্মানির গটিংগেন বিশ্ববিদ্যালয়ে পোস্ট-ডক্টরাল গবেষণা সম্পন্ন করেন।

একাধিক আন্তর্জাতিক জার্নাল ও বুক সিরিজে অধ্যাপক ইসলামের একশ’র অধিক গবেষণা নিবন্ধ, বিজ্ঞানের বিভিন্ন শাখায় দেশের শীর্ষ দৈনিক ও সাময়িকীতে ৫৫টির অধিক প্রবন্ধ এবং ৭ টি বই প্রকাশিত হয়েছে।

মৌলিক গবেষণায় অবদানের জন্য ২০০৩ সালে তিনি জাপান সোসাইটি ফর বায়োসায়েন্স, বায়োটেকনোলজি এবং এগ্রোকেমিস্ট্রির শ্রেষ্ঠ তরুণ বিজ্ঞানীর পদক এবং ২০০৪ ও ২০০৮ সালে কৃষি বিভাগে ইউজিসি অ্যাওয়ার্ড এবং সিএসআরএল, অক্সফাম ও গ্রো এর ফুড অ্যান্ড এগ্রিকালচার অ্যাওয়ার্ড ২০১১ লাভ করেন।

তোফাজ্জল ইসলাম যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, জার্মানি, জাপান, ইতালি, ভারত, চীন, মালয়োশিয়া, হংকং, নেপাল ও জ্যামাইকসহ বহুদেশে আন্তজার্তিক সম্মেলন/সিম্পোজিয়ামে সক্রিয় অংশগ্রহণ করেছেন।

বর্তমানে তিনি অ্যাসোসিয়েশন অব হামবোল্ট ফেলোস বাংলাদেশ ও বাংলাদেশ জেএসপিএস অ্যলামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন।

১৯৬৬ সালে ব্রাহ্মণবাড়ীয়া জেলার শশই গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন এই কৃতি বিজ্ঞানী।  

বাংলাদেশ সময়: ২১০৩ ঘণ্টা, জুলাই ৯, ২০১২
এআই/ সম্পাদনা: জাকারিয়া মন্ডল, অ্যাসিসট্যান্ট আউটপুট এডিটর

কাস্টম হাউসে করোনার থাবা, শারীরিক দূরত্ব নিশ্চিতের দাবি
করোনায় দিশেহারা বোয়িং, ১২ হাজার কর্মী ছাঁটাই
কাঁঠালবাড়ী ঘাটে যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড় 
কমেছে মাছ-মুরগি-সবজির দাম
সোশ্যাল মিডিয়ার বিরুদ্ধে নির্বাহী আদেশে ট্রাম্পের স্বাক্ষর


চিকিৎসাধীন চট্টগ্রামের শীর্ষ তিন করোনাযোদ্ধা
শনির দশা কাটছে না রাজশাহীর আমের
লিবিয়ায় বেঁচে যাওয়া বাংলাদেশি যে লোমহর্ষক বর্ণনা দিলেন
স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না পরিচ্ছন্নতা কর্মীরা
পত্নীতলায় সড়ক দুর্ঘটনায় ২ ভাইয়ের মৃত্যু