‘প্রকৃতি থেকে শিক্ষা নিয়ে সমাজের হিংসা, বিদ্বেষ, হানাহানি দূর করুন’

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক প্রকৃতি থেকে শিক্ষা নিয়ে সমাজের হিংসা, বিদ্বেষ, হানাহানি দূর করতে অব্যাহতভাবে কাজ করার জন্য শিক্ষার্থীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।



ঢাবি : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক প্রকৃতি থেকে শিক্ষা নিয়ে সমাজের হিংসা, বিদ্বেষ, হানাহানি দূর করতে অব্যাহতভাবে কাজ করার জন্য শিক্ষার্থীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

বুধবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মাহমুদ-উল-আমীন মিলনায়তনে প্রাণিবিদ্যা বিভাগের নবীনবরণ ও বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ আহ্বায়ক জানান।

উপাচার্য বলেন, ‘আমাদের সমাজে প্রতিদিন মানুষের হাতে মানুষ খুন হচ্ছে। অথচ জঙ্গলের কোনো পশু নিজ প্রজাতির প্রাণিকে হত্যা করে না। সৃষ্টির সেরা জীব হয়েও যে মানুষ অন্য মানুষকে হত্যা করে, সে অমানুষ। তার তুলনা পশুর সঙ্গে দেওয়া উচিৎ নয়।’

তিনি বলেন, ‘জঙ্গলে যে মানুষ নিরাপদে চলাচল করতে পারে না, তাকে নিজ বাসায় পরিবারের সদস্যদের হাতেই খুন হতে হয়। এটা কখনো কাম্য নয়।’

তিনি আরও বলেন, সমাজকে সঠিকভাবে পরিচালনা করতে হলে প্রকৃতি থেকে শিক্ষা গ্রহণ করতে হবে।

প্রকৃতির সঙ্গে পরিচিত হওয়ার ক্ষেত্রে প্রাণিবিদ্যা বিভাগের শিক্ষা অত্যন্ত কার্যকর ভূমিকা পালন করতে পারে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

প্রাণিবিদ্যা বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মো: ফজলুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে জীববিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. সহিদ আকতার হুসাইন বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া অনুষ্ঠানে অধ্যাপক ড. আবু তৈয়ব আবু আহমদ, অধ্যাপক ড. নূরজাহান সরকার, অধ্যাপক            ড. শেফালী বেগম, অধ্যাপক ড. আমিনুল ইসলাম ভূঁইয়া, প্রয়াত অধ্যাপক ড. মাহমুদ-উল-আমীনের স্ত্রী অধ্যাপক জুবাইদা গুলশান আরা প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন নবীনবরণ ও বিদায় সংবর্ধনা উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. হামিদা খানম।

এর আগে উপাচার্য প্রাণিবিদ্যা বিভাগে এমিরিটাস অধ্যাপক ড. কাজী মো: জাকের হোসেন মিউজিয়াম এবং অধ্যাপক ড. মাহমুদ-উল-আমীন মিলনায়তনের উদ্বোধন করেন।

বাংলাদেশ সময় : ১৭০০, এপ্রিল ১৮, ২০১২

এমএইচ
সম্পাদনা : অশোকেশ রায়, অ্যাসিসট্যান্ট আউটপুট এডিটর

সারাদেশে একুশের প্রথম প্রহরে ভাষাশহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা
গর্বের সঙ্গে বাংলার ব্যবহার চায় ভারতের নদীয়ার প্রতিনিধিদল
ভেঙে পড়লো রাসিক মেয়র লিটনের সংবর্ধনা মঞ্চ
রামুতে বর্ণমালা হাতে হাজারো শিক্ষার্থীর কন্ঠে একুশের গান
ভাষাশহীদদের প্রতি বিরোধী দলীয়নেতা রওশনের শ্রদ্ধা


মাতৃভাষার জন্য ভালোবাসা
একুশে ফেব্রুয়ারি: বাঙালির আত্মপরিচয়ের দিন
বাংলায় দেওয়া রায়ে বঙ্গবন্ধুর সেই ভাষণ
প্রথম প্রহরেই কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে জনস্রোত
একুশের প্রথম প্রহরে উপচেপড়া ভিড় শহীদ মিনারে