ঢাকা, সোমবার, ১০ কার্তিক ১৪২৭, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

অর্থনীতি-ব্যবসা

২ দিনে মিয়ানমার থেকে এলো ৪৫ মেট্রিক টন পেঁয়াজ 

সুনীল বড়ুয়া, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪১১ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১৯, ২০২০
২ দিনে মিয়ানমার থেকে এলো ৪৫ মেট্রিক টন পেঁয়াজ  ট্রলারে বস্তাবোঝাই পেঁয়াজ। ছবি: বাংলানিউজ

কক্সবাজার: প্রায় আড়াই মাস বন্ধ থাকার পর মিয়ানমার থেকে আবার পেঁয়াজ আমদানি শুরু হয়েছে। শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) ও শনিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) দুইদিনে ৪৫ মেট্রিক টন পেঁয়াজ কক্সবাজারের টেকনাফ স্থলবন্দরে এসে পৌঁছেছে।

এ দিন বাংলানিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন টেকনাফ স্থলবন্দরের ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ জসীম উদ্দীন।

তিনি জানান, জুন মাসের শেষ দিকে মংডু-আকিয়াব বন্দরে করোনারোগী শনাক্ত হওয়ায় মিয়ানমার থেকে পণ্য আমদানি বন্ধ ছিল। এ অবস্থায় প্রায় আড়াই মাস পর শুক্রবার দুইটি জাহাজে করে প্রায় ৩০ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আসে। শনিবার আরও একটি জাহাজ বন্দরে ভিড়েছে, সেখানেও আনুমানিক ১৫ মেট্রিক টন পেঁয়াজ হবে।

তিনি আরও জানান, শুক্রবার ও শনিবার সরকারি ছুটি থাকায় আমদানি করা পেঁয়াজের কাগজপত্র এখনও জমা হয়নি। তবে, যথাযথ প্রক্রিয়া শেষে খালাসের পর পেঁয়াজ বিভিন্ন এলাকায় পাঠানো হবে।

বন্দরে পেঁয়াজ খালাসের জন্য কাজ করছেন সেভেন স্টার নামের সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট।  

প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি আরফাতুল রহিম বাংলানিউজকে জানান, শুক্রবার ও শনিবার সরকারি ছুটির দিন হওয়ায় আমদানি করা পেঁয়াজ এখনও খালাস করা হয়নি। যে কারণে পেঁয়াজের বস্তাগুলো এখনও ট্রলারেই আছে।

টেকনাফ স্থলবন্দরের শুল্ক কর্মকর্তা মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন বাংলানিউজকে বলেন, উচ্চপর্যায়ে বৈঠকের পর মিয়ানমার থেকে পেঁয়াজ আমদানি শুরু হয়েছে। এসব পেঁয়াজ যত দ্রুত সম্ভব খালাস করে বাজারে পৌঁছানোর উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে।

টেকনাফ শুল্ক বিভাগ জানায়, মিয়ানমার থেকে এই বন্দর দিয়ে গত নভেম্বর মাসে ২১ হাজার ৫৬০ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে। এছাড়া অক্টোবর মাসে ২০ হাজার ৮৪৩ মেট্রিক টন, আগস্ট মাসে ৮৪ মেট্রিক টন এবং সর্বশেষ জুলাই মাসে এসেছিল ৮৩ মেট্রিক টন পেঁয়াজ।

এর আগে মংডু-আকিয়াব বন্দরে করোনারোগী শনাক্ত হওয়ার কারণে মিয়ানমার থেকে কোনো পণ্যবাহী বাণিজ্যিক ট্রলার টেকনাফ স্থলবন্দরে আসেনি।

বাংলাদেশ সময়: ১৪০৫ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১৯, ২০২০
এসবি/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa