তিন কারণে বাগেরহাটের চিংড়ি ঘেরে মড়ক

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

মরে ভেসে উঠেছে চিংড়ি মাছ। ছবি: বাংলানিউজ

walton

বাগেরহাট: তিন কারণে বাগেরহাটের তিন উপজেলার মৎস্য ঘেরগুলোতে হঠাৎ করে মড়ক লাগে বলে জানিয়েছেন মৎস্য বিভাগ।

কারণগুলো হল- অধিক ঘনত্বে মাছ ছাড়া (শতাংশ প্রতি যে পরিমাণ মাছ চাষ করা যায়, তার থেকে বেশি পরিমাণ মাছ ছাড়া), পানির গভীরতা ঠিক না রাখা ও অতিরিক্ত খাবার দেওয়ার ফলে ঘেরের পানির অক্সিজেন কমে যাওয়া। 

বুধবার (২৫ সেপ্টেম্বর) বিকেলে জেলা মৎস্য কর্মকর্তা ড. মো. খালেদ কনক সাংবাদিকদের বিষয়টি জানান। তখন তিনি বৃষ্টি ও বৈরি আবহাওয়ার কথাও যোগ করেন।

>>>আরও পড়ুন...চিংড়িতে মড়ক, দিশেহারা চাষি

খালেদ কনক বলেন, এক রাতে জেলার তিন উপজেলার এতো পরিমাণ মাছ মারা যাওয়া চাষিদের জন্য বিপর্যয়ের। চাষিদের ক্ষতির পরিমাণের বিষয়টি আমরা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবগত করেছি। সনাতন পদ্ধতিতে মাছ চাষের ফলে অনেক চাষিরা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। চিংড়ি মাছ চাষের যে বৈজ্ঞানিক ও আধুনিক পদ্ধতি রয়েছে সে পদ্ধতিতে মাছ চাষ করে চাষিদের এই ক্ষতি পুষিয়ে আনতে আমরা পরামর্শ দিচ্ছি।

বাগেরহাট জেলায় ৫২ হাজার ৯০৫ হেক্টর আয়তনের জমিতে ৭৩ হাজার ২৭০টি চিংড়ি ঘের রয়েছে। এর মধ্যে ৪৯ হাজার ৩০৯টি গলদা চিংড়ির ঘের রয়েছে। গত বছর জেলায় চিংড়ির মোট উৎপাদন ছিল ৩২ হাজার ৮০১ মেট্রিক টন।

শনিবার (২১ সেপ্টেম্বর) রাতে হঠাৎ বৃষ্টিতে চিংড়ি ঘেরের পানিতে অক্সিজেনের মাত্রা কমে যাওয়ায় ফকিরহাট, মোল্লাহাট ও চিতলমারী উপজেলার কয়েক হাজার ঘেরের চিংড়ি মাছ মরে যায়। এতে চাষিদের প্রায় ৫০ কোটি টাকার উপরে ক্ষয়ক্ষতি হয়।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৮০৪ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৯
এনটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: বাগেরহাট
Nagad
সেদিন কেঁদেছিল বাংলাদেশ
শেখ হাসিনার কারাবন্দি দিবস বৃহস্পতিবার
নিল আর্মস্ট্রংয়ের চাঁদে যাত্রা
শাহজাহান সিরাজের দাফন সম্পন্ন
ডিএসসিসিতে সন্ধ্যা ৬টা থেকে বর্জ্য সংগ্রহ শুরু


কামরাঙ্গীরচরে সিনিয়র-জুনিয়র মারামারি, ছুরিকাঘাতে যুবক খুন
আগোরা স্মাইল হিরো খুলনার হাবিবুর রহমান
দেবহাটা থানায় সাহেদ করিমের বিরুদ্ধে অস্ত্র মামলা
প্রথমবারের মতো পালিত বিশ্ব যুব দক্ষতা দিবস
আড়াইহাজারে মাদক কারবারি আটক