পুঁজিবাজারে সূচক কমলেও বেড়েছে লেনদেন

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ডিএসই ও সিএসই লোগো

walton

ঢাকা: সপ্তাহের তৃতীয় কার্যদিবস মঙ্গলবার (০৯ জুলাই) দেশের পুঁজিবাজারে সূচকের পতন হয়েছে। তবে এদিন দেশের প্রধান বাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) লেনদেন বেড়েছে।

এ নিয়ে টানা তিনদিন সূচকের পতন হলো শেয়ারবাজারে। গত রোব ও সোমবার সূচক কমেছে পুঁজিবাজারে। ডিএসই ও সিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

এদিন ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৩৯ পয়েন্ট কমে ৫ হাজার ২৮০ পয়েন্টে অবস্থান করছে। অপর দুই সূচকের মধ্যে শরিয়াহ সূচক ৯ পয়েন্ট ও ডিএসই-৩০ সূচক ১১ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ১২০৭ ও ১৮৭৫ পয়েন্টে।

ডিএসইতে ৫১২ কোটি ৯১ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। যা আগের দিনের চেয়ে ৮৮ কোটি টাকা বেশি। আগের দিন ডিএসইতে লেনদেন হয়েছিল ৪২৪ কোটি টাকার।

লেনদেন হওয়া ৩৫২টি কোম্পানির মধ্যে ৮৬টির শেয়ার ও ইউনিট দর কমেছে, বেড়েছে ২৪২টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৪টির দাম।

টাকার অংকে ডিএসইতে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হওয়া শীর্ষ ১০ প্রতিষ্ঠান হলো- রানার অটোমোবাইল, এশিয়ান টাইগার সন্ধানী লাইফ গ্রোথ ফান্ড, ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্স, জেএমআই সিরিঞ্জ, ইউনাইটেড পাওয়ার, সিনোবাংলা, গ্রামীণফোন, গ্লোবাল ইন্স্যুরেন্স এবং রূপালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স।

অপর শেয়ারবাজার সিএসই’র সার্বিক সূচক সিএএসপিআই এদিন ৯৯ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৬ হাজার ১৯১ পয়েন্টে। এদিন সিএসইতে হাত বদল হওয়া ২৭৬টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ৭৩টির, কমেছে ১৮১টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২২টির দর।

এদিন এ বাজারে ১৯ কোটি ৫১ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। যা আগের দিনের চেয়ে ৫ কোটি টাকা বেড়েছে। আগের দিন সিএসইতে লেনদেন হয়েছিল ১৪ কোটি টাকার।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৪০ ঘণ্টা, জুলাই ০৯, ২০১৯
এসএমএকে/ওএইচ/

ফতুল্লায় কয়েকটি বাড়ি ‘লকডাউন’
১ মাসের রেশন ৫শ পরিবারে দিল বাড্ডা থানা পুলিশ
রিমোট কাজে বিনামূল্যে ইজেনারেশনের ‘মাইক্রোসফট টিমস’
প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক প্রণোদনা প্যাকেজ সময়োপযোগী
চিলমারীতে নলকূপের গর্তে পড়ে শিশুর মৃত্যু


নওগাঁয় কিশোরীর মরদেহ উদ্ধার
করোনায় ক্ষতিগ্রস্তদের ত্রাণসামগ্রী দিল চায়না হারবার
১১ এপ্রিল পর্যন্ত গার্মেন্টস বন্ধ রাখতে লিগ্যাল নোটিশ
প্রধানমন্ত্রীর ঘোষিত প্যাকেজকে স্বাগত জানিয়েছেন মেনন
করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধে ঝুঁকিতে ইউরোপের ভবিষ্যৎ