php glass

পাহাড়ের রসালো আনারসে কৃষকের হাসি

অপু দত্ত, স্টফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

আনারস। ছবি: বাংলানিউজ

walton

খাগড়াছড়ি: পার্বত্য অঞ্চলের উৎপাদিত কৃষিপণ্যের খ্যাতি রয়েছে দেশজুড়ে। এর মধ্যে আনারস অন্যতম। উর্বর মাটিতে বিষমুক্ত আনারস চাষ করে লাভের মুখ দেখছেন পাহাড়ের কৃষক। ক্রমে বাড়ছে আনারসচাষি ও জমির পরিমাণ। এবার খাগড়াছড়িতে আনারসের বাম্পার ফলন হয়েছে। স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে যাচ্ছে সুস্বাদু পাহাড়ি এই আনারস।

এদিকে গতবছরের তুলনায় এবার আনারসের ফলন ও লাভ ভালো হওয়ায় খুশি কৃষকও। কৃষি বিভাগ বলছে, আবহাওয়া ভালো থাকায় এবার ফলন ভালো হয়েছে।
 
প্রতিদিন খাগড়াছড়ি বাজার, মাটিরাঙ্গা, গুইমারা, মানিকছড়ির গাড়িটানাসহ জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে পাইকারি আনারস বিক্রি করা হচ্ছে। এসব আনারস চট্টগ্রাম, ঢাকাসহ যাচ্ছে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে। এছাড়াও জেলা-উপজেলার বাজারগুলোতে হাতের নাগালেই মিলছে রসালো আনারস। সবচেয়ে বেশি আনারসের চাষ হয়েছে রাঙামাটির নানিয়ারচর উপজেলা এবং খাগড়াছড়ির মহালছড়ি ও মানিকছড়ি উপজেলায়।
 
খাগড়াছড়ির মহালছড়ির বেতছড়ি এলাকার আনারসচাষি হিরঞ্জন চাকমা বলেন, এবছর দুই একর জায়গায় ৫০ হাজার আনারস চারা লাগিয়েছি। ফলনও হয়েছে ভালো। বাগান থেকেই সব আনারস পাইকারি দামে বিক্রি করে দিয়েছি। সামনের বছর আরো বড় পরিসরে আনারসের চাষ করবো।  
আনারস। ছবি: বাংলানিউজজেলা সদরে আনারস বিক্রি করতে আসা মহালছড়ির লেমুছড়ি এলাকার চাষি জহিরুল ইসলাম বলেন, গত বছর দুই কানি জমিতে ২০ হাজার আনারসের চারা লাগিয়েছি। সেবার ৭০ হাজার টাকা লাভ হয়েছিল। তবে এবার লাভ দ্বিগুণ।
 
কৃষি বিভাগ বলছে, পাহাড়ে হানিকুইন ও জায়েন্ট কিউ নামের দুই জাতের আনারস চাষ হয়। মূলত মে, জুন, জুলাই- এই তিন মাস ফলন পাওয়া যায়। গেলো বছর খাগড়াছড়িতে ১১ হাজার ৪৮ হেক্টর জায়গায় আনারস আবাদ হয়। যেখান থেকে উৎপাদন হয় ২০ হাজার ৩শ ৮১ মেট্রিক টন আনারস। আর এবছর আনারসের উৎপাদন তার চেয়ে বেশি হবে।
 
খাগড়াছড়ি কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মর্ত্তুজ আলী বলেন, এমনিতে পাহাড়ের মাটি অনেক উর্বর। তবে আবহাওয়ার কারণে কখনো ফলন ভালো হয় কখনো খারাপ। তবে চলতি বছর আবহাওয়া ভালো থাকায় ফলনও ভালো হয়েছে।
 
বাংলাদেশ সময়: ০৯২১ ঘণ্টা, জুন ২০, ২০১৯
এডি/এএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: খাগড়াছড়ি
সৈয়দপুরে অ্যাম্বুলেন্সের ধাক্কায় পথচারী নিহত
নেত্রকোণায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে দাদি-নাতির মৃত্যু
আধুনিক সেবা দিতে ঢাকা মেডিকেলে দেশের প্রথম সিবিআরএন
চুরি-ডাকাতি রোধে স্বেচ্ছাশ্রমে রাস্তা পরিস্কার
বিশ্বের ৮৫ শতাংশ ইলিশ উৎপাদন হয় বাংলাদেশে: খসরু


তৃণমূলের নেতাকর্মীরাই আ’লীগের মূল শক্তি: কৃষিমন্ত্রী
পূর্বধলায় ট্রাকচাপায় যুবক নিহত
‘কাঞ্চন পৌরসভা নির্বাচনে কেউ ঝামেলা করলে গুলি চালাবেন’
ছেলেধরা সন্দেহে নারীকে গণপিটুনি, রক্ষা করতে পুলিশ আহত
চিকিৎসা সংকট: দেশের স্বাস্থ্যসেবা মূলত শহরকেন্দ্রিক