php glass

রমজানে ছোলায় মিলবে স্বস্তি

ইয়াসির আরাফাত রিপন, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

গুদামে থরে থরে সাজানো ছোলার বস্তা। ছবি: বাংলানিউজ

walton

ঢাকা: রমজানের অতি প্রয়োজনীয় খাদ্যপণ্য ছোলা। প্রতিবছর রমজান এলেই নানা অজুহাতে অতি মুনাফালোভী ব্যবসায়ীরা বাড়িয়ে দেন ছোলার দাম। আর বেশি দাম দিয়েই তা কিনতে হয় ক্রেতাদের। তবে এবার রমজানে ছোলায় স্বস্তি মিলবে বলে দাবি সংশ্লিষ্টদের।

তারা বলছেন, একদিকে বাজারে ছোলার পর্যাপ্ত মজুদ, অন্যদিকে নতুন আমদানির কারণে ছোলার সঙ্কট হবে না। গত বছরের তুলনায় এখন পর্যন্ত কেজিপ্রতি দুই থেকে তিন টাকা কম দামেই বিক্রি হচ্ছে ছোলা। আসন্ন রমজানের প্রথম সপ্তাহে তা আরও দু’তিন টাকা কমতে পারে বলে জানালেন পাইকারি ব্যবসায়ীরা।

রাজধানীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা গেছে, সোমবার (২৯ এপ্রিল) খুচরা বাজারে প্রতি কেজি ছোলা বিক্রি হয়েছে ৮৫ থেকে ৯০ টাকায়। এর মধ্যে অস্ট্রেলিয়ান ছোলা বিক্রি হয়েছে ৯০ টাকা কেজি, আর মিয়ানমারের ছোলা বিক্রি হয়েছে ৮৫ টাকা কেজি দরে। টিসিবির খোলা বাজারে প্রতি কেজি ছোলা বিক্রি করতে দেখা গেছে ৬০ টাকা কেজি দরে। অন্যদিকে পাইকারি বাজারে বিভিন্ন ছোলা বিক্রি হয়েছে ৭২ থেকে ৭৫ টাকার মধ্যে।

ক্রেতারা বলছেন, এখন পর্যন্ত ছোলার বাজার স্থিতিশীল রয়েছে। তবে কিছুটা শঙ্কার কথাও বলছেন তারা। তাদের মতে, যদি নিয়মিত বাজার মনিটরিং না করা হয় তাহলে রমজানের দু’একদিন আগেই হয়তো ছোলার দাম কেজি একশ’ টাকা ছাড়িয়ে যাবে।

আবদুল হাই নামে এক ক্রেতা টিসিবির খোলা বাজার থেকে ৬০ টাকা কেজি দরে ছোলা কেনেন। তিনি বাংলানিউজকে বলেন, এবার খোলা বাজারে ছোলার দাম স্বাভাবিক রয়েছে। তার মতে, গত বছরের রমজানের তুলনায় এবার ছোলা কেজিতে ৫ টাকা দাম কম। গত বছর মিয়ানমার থেকে আমদানি করা ছোলা ৯০ টাকা আর অস্ট্রেলিয়া থেকে আমদানি করা ছোলা ৯৫ টাকা বা ১০০ টাকা পর্যন্ত বিক্রি হয়েছে। তবে বাজার মনিটরিং না হলে প্রতিকেজি ছোলার দাম একশ’ টাকা ছাড়িয়ে যাবে বলে আশঙ্কা করেন তিনি।

অন্যদিকে রাজধানীর পাইকারি বাজার ঘুরে দেখা গেছে, গত বছরের তুলনায় কেজিতে দুই থেকে তিন টাকা কম দামে বিক্রি হচ্ছে ছোলা। চকবাজারের রহমতগঞ্জের ডালপট্টি ও মৌলভীবাজারের পাইকারি ব্যবসায়ীরা বলছেন, রমজানের আগে আরও কমতে পারে ছোলার দাম। এসব বাজারে মিয়ানমারের ছোলা প্রতিকেজি বিক্রি হচ্ছে ৭২ টাকা থেকে ৭৫ টাকা।

এসব বাজারে প্রতি ৫০ কেজি ওজনের বস্তার মিয়ানমারের ছোলা ৩৬০০ টাকা থেকে ৩৬৫০ টাকা, অস্ট্রেলিয়ান ছোলা প্রতি বস্তা ৩৭০০ টাকা থেকে ৩৭৫০ টাকায় বিক্রি করতে দেখা গেছে। ব্যবসায়ীদের মতে গত বছর প্রতি বস্তা ছোলা ৩৭০০ টাকা থেকে ৩৯০০ টাকা পর্যন্ত বিক্রি হয়েছে।

মৌলভীবাজারে ছোলার পাইকারি ব্যবসায়ী দেওয়ান ট্রেডার্সের সত্ত্বাধিকারী মো. হাবিব বাংলানিউজকে বলেন, গত বছরের তুলনায় এখন পর্যন্ত ছোলার দাম কেজিতে দুই থেকে তিন টাকা কম আছে। বাজারে ছোলার পর্যাপ্ত মজুদ আছে আবার নতুন করে ছোলার আমদানি হচ্ছে। সেক্ষেত্রে আরও দুই থেকে তিন টাকা কেজিতে কমতে পারে। তবে আসন্ন রমজানে ছোলার দাম বাড়বে না এটা শতভাগ নিশ্চিত। একই কথা জানালেন ডালপট্টির পা‌ইকারি ছোলা ব্যবসায়ী তিশা ট্রেডার্সের সত্ত্বাধিকারী স্বপন।

বাংলাদেশ সময়: ০৮৩৩ ঘণ্টা, এপ্রিল ৩০, ২০১৯
ইএআর/জেডএস

তুহিনের কণ্ঠে ‘রং তুলি’
ইউজিসি চেয়ারম্যানের সঙ্গে সাক্ষাতে সিআইইউর উপাচার্য
চামড়া খাতে ব্রিটিশ বাঙালিদের বিনিয়োগের আহ্বান 
মন্ত্রী ব্যবসায়ী হলে বাজেট দিতে পারবেন না, এটা ঠিক না
বাজেটে রেমিটেন্স প্রণোদনা, অনুপ্রেরণা পাবেন প্রবাসীরা


কালিহাতীতে যুবকের মরদেহ উদ্ধার
শুরুতেই উইকেট হারালো পাকিস্তান
টাঙ্গাইলকে দু’টি সাংগঠনিক জেলা করছে বিএনপি
ওসি মোয়াজ্জেম গ্রেফতারে নুসরাতের পরিবারে স্বস্তি
বাবাদের চোখে খুশির ঝিলিক, ঈদের খুশি