সূচকের মিশ্র প্রবণতায় পুঁজিবাজারে লেনদেন চলছে

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ডিএসই ও সিএসই লোগো

walton

ঢাকা: সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবস সোমবার (১১ মার্চ) দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচকের মিশ্র প্রবণতার মধ্য দিয়ে লেনদেন চলছে।

ডিএসই ও সিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।
 
লেনদেন শুরুর দেড় ঘণ্টা পর অর্থাৎ দুপুর ১২টার দিকে ডিএসইর সাধারণ সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের চেয়ে ২ পয়েন্ট বেড়ে পাঁচ হাজার ৭১২ পয়েন্টে অবস্থান করে। ডিএসই শরিয়াহ্ সূচক ৩ দশমিক ১২ পয়েন্ট বেড়ে এবং ডিএসই-৩০ সূচক ২ দশমিক ৭৭ পয়েন্ট বেড়ে যথাক্রমে ১৩১৪ ও ২০০৪ পয়েন্টে রয়েছে। এই সময়ের মধ্যে লেনদেন হয়েছে ১৭৪ কোটি ৩৭ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ইউনিট।
 
সোমবার এ সময়ে লেনদেন হওয়া কোম্পানিগুলোর মধ্যে দাম বেড়েছে ১৩৩টির, কমেছে ১৫৪টির এবং অপরির্বতিত রয়েছে ৬১টি কোম্পানির শেয়ার।
 
এদিকে, লেনদেন শুরুর প্রথম ৫ মিনিট পর ডিএসইএক্স ১২ পয়েন্ট বাড়ে। এরপর ১০টা ৪৫ মিনিটে সূচক ৫ পয়েন্ট কমে যায়। তবে বেলা ১১টার দিকে ৯ পয়েন্ট কমে পাঁচ হাজার ৭০৯ পয়েন্টে অবস্থান নেয়।
 
অপরদিকে সোমবার লেনদেনের ভিত্তিতে (টাকায়) শীর্ষ দশ কোম্পানি হলো- মুন্নু সিরামিক, লাফাজ হোলসিম, নূরানী, ডাচ-বাংলা ব্যাংক, প্রিমিয়ার ব্যাংক, সোহার্দ ইন্ডাস্ট্রিজ, সিঙ্গার বিডি, ন্যাশনাল পলিমার ও ইস্টার্ন হাউজিং।
 
এদিকে, অপর শেয়ারবাজারে সোমবার সিএসইতে সূচকের মিশ্র প্রবণতা লক্ষ্য করা গেছে। এদিন দুপুর ১২টায় সিএসইর সার্বিক মূল্যসূচক সিএএসপিআই ২৩ পয়েন্ট বেড়ে ১৭ হাজার ৪৯৩ পয়েন্টে অবস্থান করছে। এ সময়ের মধ্যে সিএসইতে লেনদেন হয়েছে চার কোটি ৪২ লাখ টাকা শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ইউনিট।
 
বাংলাদেশ সময়: ১২১৫ ঘণ্টা, মার্চ ১১, ২০১৯
এসএমএকে/এএ

যুক্তরাষ্ট্রে মৃতের সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়ালো
শ্রমিকদের ব্যাংক হিসাব খোলার শেষ সময় ২০ এপ্রিল
সিলেটে আইসোলেশনে বৃদ্ধার মৃত্যু
সংগীতজ্ঞ রবিশঙ্করের জন্ম
ইতিহাসের এই দিনে

সংগীতজ্ঞ রবিশঙ্করের জন্ম

করোনা চিকিৎসায় চীনের সাফল্য তুলে ধরলো হুয়াওয়ে


চট্টগ্রামে ৭টার পর থেকে বন্ধ দোকান, প্রবেশ মুখে চেকপোস্ট
মঙ্গলবার থেকে পটুয়াখালী শহরের প্রবেশ বন্ধ
সন্ধ্যা ৬টার পর রাজশাহীতে ওষুধ ছাড়া সব দোকান বন্ধ
১৬ এপ্রিলের মধ্যে শ্রমিকদের বেতন পরিশোধের অনুরোধ
এবার বাংলাদেশ ছাড়লো রাশিয়ার নাগরিকরাও