ফারমার্স ব্যাংকের চিশতিসহ গ্রেফতার ৪

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ফারমার্স ব্যাংক ও দুদক লোগো

ঢাকা: ফারমার্স ব্যাংকে জালিয়াতির ঘটনায় ব্যাংকটির অডিট কমিটির সাবেক চেয়ারম্যান মাহবুবুল হক চিশতিসহ (বাবুল চিশতি) চারজনকে গ্রেফতার করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

মঙ্গলবার (১০ এপ্রিল) দুদকের একটি দল রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করে। এর আগে সকালে রাজধানীর গুলশান থানায় মামলা করে দুদক। মামলায় অভিযুক্ত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ১৬০ কোটি আত্মসাৎ ও মানিলন্ডারিংয়ের অভিযোগ আনা হয়।

চিশতি ছাড়া গ্রেফতার অন্য তিনজন হলেন-চিশতির ছেলে রাশেদুল হক চিশতি, ব্যাংকের এসভিপি জিয়াউদ্দিন আহমেদ এবং ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট মাসুদুর রহমান খান।

দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার ভট্টাচার্য বাংলানিউজকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তারা নিজেদের প্রভাব প্রতিপত্তি খাটিয়ে নিজেদের ২৫টি হিসাবে ব্যাংকিং নিয়মের ব্যত্যয় ঘটিয়ে ১৬০ কোটি টাকা হস্তান্তর করেছেন।

এর আগে গত ৩ এপ্রিল ফারমার্স ব্যাংক লিমিটেডের অডিট কমিটির সাবেক চেয়ারম্যান মাহবুবুল হক ও তার স্ত্রীসহ ১৭ জনের বিদেশ যাওয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে দুদক।

সম্প্রতি ব্যাংকটির চেয়ারম্যানের পদ ছাড়তে বাধ্য হন সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মহীউদ্দীন খান আলমগীর ও অডিট কমিটির চেয়ারম্যান মাহাবুবুল হক চিশতি। গত ১৯ ডিসেম্বর ব্যাংকটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) এ কে এম শামীমকেও অপসারণ করে বাংলাদেশ ব্যাংক।

নিষেধাজ্ঞা আরোপিত ব্যক্তিরা হলেন- ফারমার্স ব্যাংক লিমিটেডের অডিট কমিটির সাবেক চেয়ারম্যান মাহবুবুল হক চিশতির ছেলে রাশেদুল হক চিশতি, রিমি চিশতি, মাজেদুল হক চিশতি, ফারহানা আহমেদ, এ কে এম শামীম, আবদুল মোতালেব পটোয়ারী, গাজী সালাহউদ্দিন, জাহাঙ্গীর আলম মজুমদার, জিয়া উদ্দিন আহমেদ, লুৎফুল হক, মনিরুল হক, তাফাজ্জল হোসেন, মোহাম্মদ শামসুল হাসান ভূঁইয়া, মাহবুব আহমেদ ও মোহাম্মদ জাকির হোসেন।

এ ১৭ জন যেন দেশত্যাগ করতে না পারেন সেজন্য যথাযথ ব্যবস্থা নিতে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষকে ইতোমধ্যে অবহিত করা হয়। দুদকের উপ-পরিচালক সামছুল আলম স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে ওই নিষেধাজ্ঞার কথা জানানো হয়।

২০১৩ সালের ৩ জুন চতুর্থ প্রজন্মের ব্যাংক হিসেবে ফারমার্স ব্যাংকের কার্যক্রম শুরু হয়। বর্তমানে ব্যাংকটির শাখার সংখ্যা ৫৬ ও এটিএম বুথ রয়েছে ১১টি। প্রতিষ্ঠার পর থেকে ২০১৬ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত ব্যাংকটি মোট ঋণ বিতরণ করেছে ৪ হাজার ৪১৩ কোটি ৩৮ লাখ টাকা।

এর মধ্যে গত বছর এ ব্যাংক থেকে দেওয়া ঋণের পরিমাণ ছিল ১ হাজার ৮৩৯ কোটি ৭৯ লাখ টাকা। ২০১৬ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত ফারমার্স ব্যাংকের মোট আমানত সংগ্রহের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ৬৩ কোটি ৬১ লাখ টাকা। যা ২০১৫ সাল ছিল ৩ হাজার ৪৮২ কোটি ৬৬ লাখ টাকা।

বাংলাদেশ সময়: ১৫১২ ঘণ্টা, এপ্রিল ১০, ২০১৮
আরএম/আরবি/

রাঙামাটিতে ট্রাক-অটোরিকশা সংঘর্ষে আহত ৫
‘জাতীয়তাবাদী সাম্প্রদায়িক ঐক্য’র গ্রহণযোগ্যতা নেই
বেপরোয়া গ্রিন লাইনের ধাক্কায় প্রাণ গেলো যুবকের
কর্ণফুলী-আনোয়ারায় জাবেদকে পরিচয় করিয়ে দিলেন কাদের
আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে মোস্তফা কামালের ‘থ্রি নভেলস’
অস্কারে যাচ্ছে ‘ডুব’
খালেদার বড়পুকুরিয়া খনি মামলার চার্জ শুনানি ২৫ অক্টোবর
ঝিনাইদহে জামায়াত-শিবিরের ২ কর্মীসহ আটক ৬৬
মহেশপুরে ট্রাকচাপায় স্কুলছাত্র নিহত
‘রাহুলকা পুরা খানদান চোর’, বললেন সীতারাম