পিপিপি নিয়ে ওয়ার্কিং সেশন

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (ডিসিসিআই), মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (এমসিসিআই) এবং ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প ফাউন্ডেশনের (এসএমইএফ) সহযোগিতায় ‘অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি তরান্বিত করণে সরকারী-বেসরকারী উদ্যোগের প্রয়োজনীয়তা’ শীর্ষক জাতীয় কনফারেন্সের ওয়ার্কিং সেশন মঙ্গলবার রূপসী বাংলা হোটেলে অনুষ্ঠিত হয়।

ঢাকা: ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (ডিসিসিআই), মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (এমসিসিআই) এবং ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প ফাউন্ডেশনের (এসএমইএফ) সহযোগিতায় ‘অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি তরান্বিত করণে সরকারী-বেসরকারী উদ্যোগের প্রয়োজনীয়তা’ শীর্ষক জাতীয় কনফারেন্সের ওয়ার্কিং সেশন মঙ্গলবার রূপসী বাংলা হোটেলে অনুষ্ঠিত হয়।  

সাবেক মুখ্য সচিব এম এ করিম সেশন চেয়ারপার্সন হিসাবে উপস্থিত ছিলেন। নির্ধারিত আলোচনায় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব মর্তুজা রেজা চৌধুরী, বিনিয়োগ বোর্ডের (সদস্য) খাইরুল আনাম, পরিকল্পনা কমিশনের জিইডি প্রধান ফখরুল আহসান, অর্থ মন্ত্রণালয়ের অতিরক্ত সচিব মোহাম্মদ মোসলেম চৌধুরী, এসএমই ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক সৈয়দ রেজওয়ানুল কবির, পিপিপি (সরকারি-বেসরকারি অংশীদারি) কার্যালয়ের ডেপুটি ম্যানেজার উত্তম কুমার কর্মকার এবং এমসিসিআই ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নিহাদ কবীরসহ ব্যবসায়ী প্রতিনিধিরা অংশ নেন।
 
ঢাকা চেম্বার সভাপতি আসিফ ইব্রাহীম ওয়ার্কিং সেশনে মূলপ্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। তিনি বলেন, ডিসিসিআই, এমসিসিআই এবং এসএমই ফাউন্ডেশন যৌথভাবে বিজনেস ইনিশিয়েটিভ লিডিং ডেভেলপমেন্ট (বিল্ড) নামক একটি প্রকল্প গ্রহণ করেছে, এখানে প্রাথমিক পর্যায়ে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ, অর্থনৈতিক কর্মকা-, এসএমই উন্নয়ন এবং ট্যাক্স ও অন্যান্য বিষয়ক চারটি ওয়ার্কিং  গ্রুপ থাকবে।

আসিফ ইব্রাহীম বলেন, বিল্ডের মূল উদ্দেশ্য হলো, বস্তুনিষ্ঠ গবেষণায় প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে কার্যকর ও ফলপ্রসূ সরকারি-বেসরকারি পর্যায়ে আলোচনা, সুনির্দিষ্ট বাণিজ্যিক রিফমর্স এবং বিনিয়োগ সহায়ক পরিবেশ তৈরি করা।
 
এম এ করিম বলেন, ‘বিল্ড হলো সরকারি ও বেসরকারি খাতের মধ্যে সমন্বয়ের একটি প্ল্যাটফরম, যার মাধ্যমে সফল বাণিজ্য পরিবেশ তৈরির জন্য সুপারিশ দেওয়া হবে। তিনি বেসরকারি খাতের উন্নয়নের জন্য বাংলাদেশের প্রতিযোগিতার সক্ষমতা অর্জনের উপর জোর দেন।

মর্তুজা রেজা চৌধুরী বলেন, ‘বর্তমান সরকার দেশে ব্যবসা সহায়ক পরিবেশ তৈরি, ব্যবসায় ব্যয় কমানোর জন্য কাজ করে যাচ্ছে।’ তিনি জানান, ইতিমধ্যে রেজিস্ট্রার অব জয়েন্ট স্টক কোম্পানির অফিসকে অটোমেশন (স্বয়ংক্রিয়) করা হয়েছে এবং ইপিবিকে অটোমেশনের আওতায় নিয়ে আসা হবে। তিনি আঞ্চলিক ব্যবসা-বাণিজ্য বৃদ্ধি এবং সরকারি ও বেসরকারি খাতের মধ্যে দূরত্ব কমানোর ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন।

ফখরুল আহসান বলেন, ষষ্ঠ পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনায় বেসরকারি খাতকে এগিয়ে আসার সুযোগ রাখা হয়েছে। সরকার বিদ্যুৎ, জ্বালানি, মানব সম্পদ উন্নয়ন, সমুদ্র ও স্থল বন্দর উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে।

মোহাম্মদ মোসলেম চৌধুরী বলেন, সরকার পিপিপি (সরকারি-বেসরকারি অংশীদারি) কাঠামোকে আরও ব্যবসা সহায়ক করতে আগ্রহী এবং পিপিপি সেলের মাধ্যমে ওয়ান স্টপ সার্ভিস দেওয়া হবে।

এমসিসিআইয়ের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নিহাদ কবীর বলেন, বিল্ড হলো একটি স্থায়ী ভিত্তি। তিনি সরকারি ও বেসরকারি খাতের মধ্যে আরও বেশি আলোচনার ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন।

বাংলাদেশ সময়: ২১১৫ ঘণ্টা, ১৮ অক্টোবর, ২০১১

করোনায় দিশেহারা বোয়িং, ১২ হাজার কর্মী ছাঁটাই
কাঁঠালবাড়ী ঘাটে যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড় 
কমেছে মাছ-মুরগি-সবজির দাম
সোশ্যাল মিডিয়ার বিরুদ্ধে নির্বাহী আদেশে ট্রাম্পের স্বাক্ষর
চিকিৎসাধীন চট্টগ্রামের শীর্ষ তিন করোনাযোদ্ধা


শনির দশা কাটছে না রাজশাহীর আমের
লিবিয়ায় বেঁচে যাওয়া বাংলাদেশি যে লোমহর্ষক বর্ণনা দিলেন
স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না পরিচ্ছন্নতা কর্মীরা
পত্নীতলায় সড়ক দুর্ঘটনায় ২ ভাইয়ের মৃত্যু
দৌলতদিয়া ঘাটে বাড়ছে যাত্রীদের চাপ