বাংলাদেশ ফান্ডের প্রসপেক্টাস অনুমোদন

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

পুঁজিবাজারের বিপর্যয় ঠেকাতে গঠিত বাংলাদেশ ফান্ডের প্রসপেক্টাস অনুমোদন দিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (এসইসি)।

ঢাকা: পুঁজিবাজারের বিপর্যয় ঠেকাতে গঠিত বাংলাদেশ ফান্ডের প্রসপেক্টাস অনুমোদন দিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (এসইসি)।

এ অনুমোদনের ফলে ফান্ডটি প্রাথমিক গণ প্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে বাজার থেকে ৩ হাজার ৫০০ কোটি টাকা সংগ্রহ করতে পারবে।

বুধবার এসইসির কমিশন সভায় এ অনুমোদন দেওয়া হয়।

কমিশন সভা শেষে এসইসির মুখপাত্র ও নির্বাহী পরিচালক সাইফুর রহমান সাংবাদিকদের এ সব তথ্য জানান।

তিনি জানান, বাংলাদেশ ফান্ডের প্রসপেক্টাস অনুমোদন দিয়েছে এসইসি। বাংলাদেশ ফান্ডের ধাকার ৫ হাজার কোটি টাকা। তবে এরই মধ্যে ফান্ডটির উদ্যোক্তা অংশ দেড় হাজার কোটি টাকা সংগ্রহ করা হয়েছে।

এখন বাকি ৩ হাজার ৫০০ কোটি সংগ্রহ করা যাবে। এ টাকা প্রাথমিক গণ প্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে বাজার থেকে সংগ্রহ করতে পারবে।

জানা গেছে, পুঁজিবাজারের স্থিতিশীলতা ফেরানো ও তারল্য সংকট কমাতে গত ২৮  ফেব্রুয়ারি ৫ হাজার কোটি টাকা বাংলাদেশ ফান্ড গঠনের উদ্যোগ নেয় ইভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশ (আইসিবি)।

গত ৪ মে বাংলাদেশ ফান্ডের চূড়ান্ত অনুমোদন দেয় এসইসি। এরই পরিপ্রেক্ষিতে পরের দিন ৫ মে থেকে উদ্যোক্তা অংশ থেকে পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ শুরু করে ফান্ডটি। এটি একটি ওপেন এন্ড (মেয়াদহীন) আকৃতির মিউচ্যুয়াল ফান্ড।

এছাড়া ফান্ডটির প্রতি ইউনিটের দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ১০০টাকা। প্রতি ১০০টি ইউনিটে একটি মার্কেট লট। এই হিসাবে প্রতি লটের দাম পড়বে এক লাখ টাকা। আইসিবির ওটিসি মার্কেটে ফান্ডটি লেনদেন হবে।

ব্যক্তি ও প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা এতে বিনিয়োগ করতে পারবে। এ ফান্ডটির সম্পদ ব্যবস্থাপনা প্রতিষ্ঠান হিসেবে কাজ করছে আইসিবি অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি লিমিটেড।

৫ হাজার কোটি টাকার ফান্ডের মধ্যে ১ হাজার ৫০০ কোটি টাকা স্পন্সর অংশ এবং ৩ হাজার ৫০০ কোটি বিনিয়োগকারীদের উদ্দেশ্যে প্রাথমিকগণ প্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে বাজার থেকে সংগ্রহ করবে।

এছাড়া ফান্ডটি ৭৫ শতাংশ পুঁজিবাজারে এবং বাকি ২৫ শতাংশ মুদ্রাবাজারে বিনিয়োগ করা হবে। প্রয়োজনে ফান্ডটির আকার আরও বাড়ানো যেতে পারবে।

ইতোমধ্যে ফান্ডটি তাদের উদ্যোগক্তা অংশের ১ হাজার ৫০০ কোটি টাকা সংগ্রহ করা হয়েছে এবং বাজারে স্থিতিশীলতা আনয়নে তা ব্যবহার করা হচ্ছে।

বাংলাদেশ ফান্ড গঠনে আইসিবি সহ অন্যান্য উদ্যোক্তাদের মধ্যে রয়েছে সোনালী ব্যাংক,  জনতা ব্যাংক, অগ্রণী ব্যাংক, রূপালী ব্যাংক, সাধারণ বীমা করপোরেশন, বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক লিমিটেড (বিডিবিএল) ও জীবন বীমা কর্পোরেশন।

বাংলাদেশ সময়: ২০২২ ঘণ্টা, আগস্ট ১৭, ২০১১

কমেছে মাছ-মুরগি-সবজির দাম
সোশ্যাল মিডিয়ার বিরুদ্ধে নির্বাহী আদেশে ট্রাম্পের স্বাক্ষর
চিকিৎসাধীন চট্টগ্রামের শীর্ষ তিন করোনাযোদ্ধা
শনির দশা কাটছে না রাজশাহীর আমের
লিবিয়ায় বেঁচে যাওয়া বাংলাদেশি যে লোমহর্ষক বর্ণনা দিলেন


স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না পরিচ্ছন্নতা কর্মীরা
পত্নীতলায় সড়ক দুর্ঘটনায় ২ ভাইয়ের মৃত্যু
দৌলতদিয়া ঘাটে বাড়ছে যাত্রীদের চাপ
ফতুল্লায় করোনা আক্রান্ত হয়ে আ’লীগ নেতার মৃত্যু
ঠাকুরগাঁওয়ে প্রথম করোনার উপসর্গ নিয়ে এক যুবকের মৃত্যু