বঙ্গবন্ধুর ছবি সংবলিত নতুন নোট অবমুক্ত করলেন প্রধানমন্ত্রী

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

বঙ্গবন্ধুর ছবি সংবলিত পাঁচ ধরনের নতুন নোট অবমুক্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে তিনি এ নোটগুলো অবমুক্ত করেন। এ সময় নতুন মুদ্রিত টাকার নমুনা প্রধানমন্ত্রীর হাতে তুলে দেওয়া হয়।

ঢাকা: বঙ্গবন্ধুর ছবি সংবলিত পাঁচ ধরনের নতুন নোট অবমুক্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে তিনি এ নোটগুলো অবমুক্ত করেন। এ সময় নতুন মুদ্রিত টাকার নমুনা প্রধানমন্ত্রীর হাতে তুলে দেওয়া হয়।

নোটগুলো হচ্ছে- দুই টাকা, পাঁচ টাকা, ১শ’ টাকা, ৫শ’ টাকা ও ১ হাজার টাকার।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘দেশে ১৫ আগস্টের হত্যাকা- না ঘটলে দেশ ১৫/২০ বছর আগেই বিশ্বসভায় মর্যাদার আসনে চলে যেত। কেননা উন্নয়নের যে মতাদর্শ ও কর্মকৌশল বঙ্গবন্ধু নিয়েছিলেন, তার ধারাবাহিকতাতেই দেশ অনেক দূর এগিয়ে যেত।’

এ সময় অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত, বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ড. আতিউর রহমান, বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তা ও প্রধানমন্ত্রীর অর্থবিষয়ক উপদেষ্টা উপস্থিত ছিলেন।

নতুন নোটের নকশায় বাংলাদেশের ইতিহাস ও ঐতিহ্য তুলে ধরা হয়েছে দাবি করে প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ‘এতে নতুন প্রজন্ম আমাদের ইতিহাস-ঐতিহ্য সম্পর্কে একটা ধারণা পাবে। তাছাড়া নতুন নোটগুলো দৃষ্টিপ্রতিবন্ধীরাও পরখ করে যেমন চিহ্নিত করতে পারবেন তেমনি নকল হওয়ারও কোনো সুযোগ থাকবে না।’

এ সময় প্রধানমন্ত্রী স্বাধীনতার চল্লিশ বছর উপলক্ষে এ স্মারক মুদ্রা চালু করার জন্য বাংলাদেশ ব্যাংককে ধন্যবাদ জানান।

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ ব্যাংক সব টাকার যোগানদাতা। তবে শুধু ব্যাংকে নয়, এ টাকা জনগণের হাতে হাতে পৌঁছানোর ব্যবস্থা করতে হবে। কারণ জনগণই দেশের সব টাকা ও সম্পদের মালিক।’

বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষ থেকে জানানো হয়, এ বছরের মধ্যেই বাঁকি তিনটি নোটেও বঙ্গবন্ধুর ছবিসহ ছাপা হবে।

নতুন এই নোটগুলো প্রাথমিকভাবে বাংলাদেশ ব্যাংকের মতিঝিল অফিসের কাউন্টার থেকে ইস্যু করা হবে, যা পরবর্তীতে বাংলাদেশ ব্যাংকের অন্যান্য অফিস ও সব বাণিজ্যিক ব্যাংক থেকে একই প্রক্রিয়ায় ইস্যু করা হবে।

এসব মূল্যমানের নতুন নোটের পাশাপাশি বর্তমানে প্রচলিত কাগজের নোট এবং ধাতব মুদ্রাও যথারীতি চালু থাকবে।

২ টাকা মূল্যমানের নোটের বৈশিষ্ট্য
অর্থসচিব মোহাম্মদ তারেক স্বাক্ষরিত এ নোটের সাইজ ১০০৬০ মিলিমিটার । সিনথেটিক ফাইবার মিশ্রিত অধিক টেকসই কাগজে মুদ্রিত। কাগজে জলছাপ হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতি। প্রতিকৃতির নিচে অতি উজ্বল ইলেক্ট্রোটাইপ জলছাপে ২ লেখা আছে। নোটে ২ মিলিমিটার চওড়া এমবেডেড্ নিরাপত্তা সুতা ব্যবহার করা হয়েছে। নোটের সামনের দিকে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি এবং পটভূমি বা ব্যাকগ্রাউন্ডে জাতীয় স্মৃতি সৌধ হালকা রংয়ে মুদ্রিত রয়েছে।

৫ টাকা মূল্যমানের ব্যাংকনোটের বৈশিষ্ট্য
বাংলাদেশ ব্যাংক গভর্নর আতিউর রহমান স্বাক্ষরিত এ নোটের সাইজ ১১৭৬০ মিলিমিটার । কাগজে জলছাপ হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি। প্রতিকৃতির নিচে অতি উজ্বল ইলেক্ট্রোটাইপ জলছাপে ৫ লেখা আছে । নোটের সামনের দিকে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি এবং পটভূমি বা ব্যাকগ্রাউন্ডে জাতীয় স্মৃতিসৌধ হালকা রংয়ে মুদ্রিত রয়েছে।
১০০ টাকা নোটের বৈশিষ্ট্য

গভর্নর আতিউর রহমান স্বাক্ষরিত এ নোটের সাইজ ১৪০৬২ মিলিমিটার। কাগজে জলছাপ হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি। নোটের ডানদিকে আড়াআড়িভাবে ইন্টাগি-ও কালিতে ৭টি লাইন আছে। হাতের স্পর্শে এগুলো সহজেই অনুভব করা যাবে। বাম পাশে ৪ মিলিমিটার চওড়া নিরাপত্তা সুতা।
৫০০ টাকা মূল্যমানের ব্যাংকনোটের বৈশিষ্ট্য

আতিউর রহমান স্বাক্ষরিত এ নোটের সাইজ ১৫২৬৫ মিলিমিটার। সিনথেটিক ফাইবার মিশ্রিত অধিক টেকসই কাগজে জলছাপ হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি। ইলেক্ট্রোটাইপ জলছাপে ৫০০ লেখা আছে। নোটের বাম পাশে আছে ৪ মিলিমিটার চওড়া নিরাপত্তা সুতা। যাতে বাংলাদেশ ব্যাংকের লগো ও ৫০০ টাকা লেখা আছে।
১০০০ টাকা মূল্যমানের ব্যাংকনোটের বৈশিষ্ট্য

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর আতিউর রহমান স্বাক্ষরিত এ নোটের সাইজ ১৬০৭০ মিলিমিটার। সিনথেটিক ফাইবার মিশ্রিত অধিক টেকসই কাগজে মুদ্রিত। কাগজে জলছাপ হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি ও তার নিচে অতি উজ্বল ইলেক্ট্রোটাইপ জলছাপে ১০০০ লেখা আছে। বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতির জলছাপের বামপাশে বাংলাদেশ ব্যাংকের মনোগ্রামের উজ্বলতর ইলেক্ট্রোটাইপ জলছাপ রয়েছে। নোটের সামনের দিকে ইন্টাগি-ও কালিতে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি মুদ্রিত। নোটটির ডানদিকে আড়াআড়িভাবে ইন্টাগি-ও কালিতে ৭টি লাইন আছে; হাতের স্পর্শে এগুলো সহজেই অনুভব করা যাবে। নোটের পিছনের দিকে ইন্টাগি-ও কালিতে জাতীয় সংসদ ভবন মুদ্রিত। নোটের বাম পাশে আছে ৪ মিলিমিটার চওড়া নিরাপত্তা সুতা। যাতে বাংলাদেশ ব্যাংকের লোগো ও ১০০০ টাকা লেখা আছে। সরাসরি তাকালে ‘লোগো ও ১০০০ লেখা সাদা দেখাবে। কিন্তু পাশ থেকে দেখলে বা ৯০ ডিগ্রীতে নোটটি ঘুরালে তা কালো দেখাবে। নোটের ডানদিকে অন্ধদের জন্য ৫টি ছোট বিন্দু রয়েছে যা হাতের স্পর্শে উচু-নিচু অনুভূত হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৪৭ ঘণ্টা, আগস্ট ১১, ২০১১

ময়মনসিংহে কর্মহীনদের পাশে মহানগর যুবলীগ
করোনো: সাতক্ষীরায় মানুষকে ঘরে ফেরাতে কঠোর হচ্ছে পুলিশ
কোয়ারেন্টিন না মানায় সিলেটে প্রবাসীকে জরিমানা
শিগগিরই প্রস্তুত হচ্ছে বসুন্ধরার হাসপাতাল 
করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশের পাশে থাকবে চীন


করপোরেট কর হার ১০ শতাংশ চায় বিসিআই 
গজারিয়ায় শিশুর মৃত্যুতে করোনা আতঙ্ক
অজ্ঞাত রোগে দীঘিনালা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি আরো ৮ শিশু
করোনা: টোকিও অলিম্পিকের নতুন সূচি ঘোষণা
অসহায়-দিনমজুর ২০০ পরিবারে ডবলমুরিং থানার সহায়তা