php glass

বাজেটে স্থানীয় সরকারের জন্য বরাদ্দ যথেষ্ট নয়

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

চলতি অর্থবছরের জাতীয় বাজেটে স্থানীয় সরকারের জন্য যে বরাদ্দ ছিল তা আগের চেয়ে বেশি থাকলেও প্রয়োজনের তুলনায় যথেষ্ট ছিল না।

ঢাকা: চলতি অর্থবছরের জাতীয় বাজেটে স্থানীয় সরকারের জন্য যে বরাদ্দ ছিল তা আগের চেয়ে বেশি থাকলেও প্রয়োজনের তুলনায় যথেষ্ট ছিল না।

সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে গভার্নেন্স কোয়ালিশনসহ ৩৪টি সংগঠনের প্লাটফরম ‘গভার্নেন্স অ্যাডভোকেসি ফোরাম’ আয়োজিত ‘আসন্ন জাতীয় বাজেট  ও স্থানীয় সরকার’ শীর্ষক জাতীয় সেমিনারে বক্তারা এ অভিমত প্রকাশ করেন।

সেমিনারে বলা হয়, বর্তমান সরকারের নির্বাচনী ইশতেহার থেকে শুরু করে অর্থমন্ত্রীর বাজেট বক্তৃতায় বিকেন্দ্রীকরণ ও স্থানীয় সরকারের আর্থিক ক্ষমতায়নের যে সব প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল, বাজেট বরাদ্দের ক্ষেত্রে তার প্রতিফলন চোখে পড়ে না।

গভার্নেন্স অ্যাডভোকেসি ফোরাম-এর চেয়ারপার্সন ও পিকেএসএফ-এর চেয়ারম্যান ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ওয়েভ ফাউন্ডেশনের উপ-সমন্বয়কারী অনিরুদ্ধ রায়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি অ্যাডভোকেট মো. রহমত আলী, বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর অধ্যাপক ড. আতিউর রহমান, বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক এম. এম. আকাশ, বাংলাদেশ উপজেলা পরিষদ অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি হারুণ-অর-রশীদ হাওলাদার, মিউনিসিপাল অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ-এর মহাসচিব শামিম আল রাজি এবং বাংলাদেশ ইউনিয়ন পরিষদ ফোরাম-এর পক্ষে ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুল হক প্রমুখ।

সভাপতির বক্তব্যে গভার্নেন্স অ্যাডভোকেসি ফোরাম-এর চেয়ারপার্সন ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ বলেন, ‘আমাদের জাতীয় বাজেটকে হতে হবে উৎপাদনমুখী। এ প্রক্রিয়ায় সম্পৃক্ত করতে হবে তৃণমূলের সাধারণ মানুষকে। বিদ্যমান আঞ্চলিক বৈষম্য নিরসন স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে বাজেট প্রণয়নের কোনো বিকল্প নেই।’

এ ক্ষেত্রে সরকার ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে জনমুখী বাজেট প্রণয়ন করবে বলেও তিনি আশা প্রকাশ করেন।



অ্যাডভোকেট মো. রহমত আলী বলেন, ‘আমাদের সংবিধান ও বর্তমান স্থানীয় সরকার আইনে স্থানীয় উন্নয়নের বিষয়টি খুব সুস্পষ্টভাবেই উল্লেখ্য রয়েছে। কিন্তু যেভাবে দিকনির্দেশনা দেওয়া আছে সেভাবে বাজেট প্রণয়ন থেকে শুরু করে বাস্তবায়ন পর্যন্ত কোনো প্রক্রিয়াতেই এর প্রতিফলন দেখা যায় না।’

এ কারণে এখন পর্যন্ত দেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠিত হয়নি বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

ড. আতিউর রহমান বলেন, ‘স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে বাজেট প্রণয়ন করার বিষয়টি শুধু বর্তমান সরকারের নির্বাচনী অঙ্গীকার নয়, সাংবিধানিক দায়িত্বও বটে।’

তিনি বলেন, ‘সংবিধানে নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে স্থানীয় উন্নয়ন কার্যক্রম পরিচালনার কথা বলা আছে। গণতান্ত্রিক বিকেন্দ্রীকরণ নীতিমালার মাধ্যমে বাজেট প্রণয়ন প্রক্রিয়া স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে কেন্দ্রমূখী হওয়া প্রয়োজন। তাহলে বাজেটে স্থানীয় মানুষের আশা-আকাক্সক্ষার প্রতিফলন ঘটবে।’

অধ্যাপক এম. এম. আকাশ তার বক্তব্যে বলেন, ‘বিকেন্দ্রীভূত বাজেটের অর্থ হলো তৃণমূলের প্রত্যেক মানুষকে এ প্রক্রিয়ার সাথে যুক্ত করা।’

বাংলাদেশ সময় : ১৯৩০ ঘন্টা, মার্চ ২৮, ২০১১

‘সংগ্রামের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে’
রায়েরবাজার সৌধে সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা
মিরপুর শহীদ বুদ্ধিজীবী সৌধে জনতার ঢল
হানাদারদের রুখতে বোমা ফেলা হয় হার্ডিঞ্জ ব্রিজে
চলচ্চিত্রকার আমজাদ হোসেনকে হারানোর এক বছর


বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা
খুলনায় পাটকল শ্রমিকদের অনশন স্থগিত
১৪ ডিসেম্বর সিরাজগঞ্জ মুক্ত দিবস
সাভারে বিদেশি পিস্তলসহ ইউপি সদস্য আটক
রামুতে প্রজন্ম’৯৫ বৃত্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ