php glass

এক পক্ষের বর্জন সত্ত্বেও রোববারই বিজিএমইএ’র নির্বাচন

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

এক পক্ষের বর্জন সত্ত্বেও রোববার অনুষ্ঠিত হচ্ছে বাংলাদেশ তৈরি পোশাক প্রস্তুত ও রফতানিকারক সমিতির (বিজিএমইএ) ২০১১-১২ সেশনের পরিচালনা পর্ষদের দ্বিবার্ষিক নির্বাচন। নির্বাচনের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে নির্বাচন পরিচালনা বোর্ড।

ঢাকা : এক পক্ষের বর্জন সত্ত্বেও রোববার অনুষ্ঠিত হচ্ছে বাংলাদেশ তৈরি পোশাক প্রস্তুত ও রফতানিকারক সমিতির (বিজিএমইএ) ২০১১-১২ সেশনের পরিচালনা পর্ষদের দ্বিবার্ষিক নির্বাচন। নির্বাচনের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে নির্বাচন পরিচালনা বোর্ড।

নির্বাচনে সম্মিলিত পরিষদ এবং সম্মিলিত ফোরাম নামের দুটি প্যানেল প্রতিদ্বন্দ্বিতার প্রস্তুতি নিলেও ভোটার তালিকায় ত্রুটি থাকার অভিযোগ এনে শেষ পর্যন্ত নির্বাচন থেকে সরে গেছেন ফোরাম প্যানেলের নেতা ও বিজিএমইএ’র সাবেক সভাপতি আনোয়ার-উল-আলম চৌধুরী পারভেজ। ফলে একপক্ষীয়ভাবেই এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ঢাকা ও চট্টগ্রামে একযোগে ভোট গ্রহণ চলবে। নির্বাচনে ঢাকায় ২০টি এবং চট্টগ্রামে ৭টি পদসহ মোট ২৭টি পদের জন্য ভোট গ্রহণ করা হবে। নির্বাচিত ২৭ জন পরিচালকই দুই বছরের জন্য বিজিএমইএ’র পরবর্তী একজন সভাপতি, প্রথম সহ-সভাপতি, দ্বিতীয় সহ-সভাপতি ও দুইজন সহ-সভাপতি নির্বাচিত করবেন। এবার প্রথম সহ-সভাপতি নির্বাচিত হবেন চট্টগ্রাম থেকে।

নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত সম্মিলিত পরিষদ। এ পরিষদের নেতৃত্ব দিচ্ছেন বিজিএমইএ’র বর্তমান সহ-সভাপতি সফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন।

অপরদিকে নির্বাচন বর্জনের পক্ষে যুক্তি দিয়ে আনোয়ার-উল-আলম চৌধুরী পারভেজ বলেন, বিজিএমইএতে যেভাবে নির্বাচন করার চেষ্টা করা হচ্ছে তা যেকোন গণতান্ত্রিক মূল্যবোধের পরিপন্থী। আমরা মনে করি ২০ মার্চ সুষ্ঠু নির্বাচন হবে না। এটা হবে প্রহসনের নির্বাচন। এছাড়া প্রয়োজনীয় কাগজপত্র চেয়ে যেসব চিঠি দেয়া হয়েছে, অনেকে সে চিঠি পাননি বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

প্রসঙ্গত, এর আগে ভোটার তালিকা হালনাগাদ করার কারণ দেখিয়ে বিজিএমইএ’র নির্বাচন এক দফা পেছানো হয়েছিল। প্রথম নির্বাচন হওয়ার কথা ছিল ২৪ ফেব্রুয়ারি। ১৯ ফেব্রুয়ারি তা পিছিয়ে ২০ মার্চ করা হয়।

এদিকে ফোরাম প্যানেলের অভিযোগ অস্বীকার করে বিজিএমই সভাপতি সালাম মুর্শেদী বলেন, ৭১১ জনকেই চিঠি পাঠানো হয়েছে। এরই মধ্যে চিঠি পাওয়া ৪০৬ জন তাদের ফাইল জমা দিয়েছেন। এছাড়া বাণিজ্যমন্ত্রীর নির্দেশে রেজিস্ট্রি অব জয়েন্ট স্টক থেকে ৭১১ জনের তথ্য যাচাই হয়ে গতকাল বুধবার নির্বাচন বোর্ডের কাছে এসেছে। নির্বাচন বোর্ড সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত রাখতে কাল রোববার নির্বাচন হবে।

এক পক্ষের নির্বাচন বর্জন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আশা করছি নির্বাচনে উভয় প্যানেলই প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে।’

 তিনি আরও বলেন, ‘২২৫ জনের নামের তালিকা টানিয়ে দেয়া হয়েছে। তাদের কেউ যদি ভোট চলাকালে কাগজপত্র নিয়ে আসে তাকেই ভোট দিতে দেয়া হবে।’

জানা গেছে, বিজিএমইএ’র চূড়ান্ত ভোটার সংখ্যা হচ্ছে ৩ হাজার ২৮। এর মধ্যে ঢাকায় ২ হাজার ৪৪৩ জন এবং চট্টগ্রামে ৫৮৫ জন। তবে ভুয়া ভোটার পাওয়া গেছে ২২৫ জন।

বাংলাদেশ সময়: ২২৪৫ ঘণ্টা, ১৯ মার্র্চ, ২০১১

একই কারখানায় ২ বছরে তিন বার আগুন
সু চির অস্বীকার: রোহিঙ্গারা বললেন ‘মিথ্যুক’
সোলায়মানের পদত্যাগ নিয়ে জামায়াতে তোলপাড়
রাজশাহীর মধ্য শহর থেকে বাস টার্মিনাল সরবে আগামী বছর
স্মার্ট রেফ্রিজারেটরের বিজ্ঞাপনে মাশরাফি


নেপিদোতে বাংলাদেশ-মিয়ানমার সেনাপ্রধানদের বৈঠক
এবার রাজ্যসভায়ও পাস হলো ‘বিতর্কিত’ নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল
আগুনের সূত্রপাত ‘গ্যাস রুমে’, নেভাতে গিয়েই দগ্ধ শ্রমিকরা
বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কার্যক্রম উদ্বোধন করলেন মেয়র আতিকুল
মেডিক্যাল বোর্ডের রিপোর্ট কোর্টে, শুনানি বৃহস্পতিবার