php glass

চট্টগ্রামে ইন্দোনেশীয় পণ্য প্রদর্শনীতে ব্যাপক সাড়া

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

চট্টগ্রামে ইন্দোনেশীয় পণ্য প্রদর্শনীতে ব্যাপক ব্যাপক সাড়া পাওয়া গেছে। শনিবার মেলার শেষ দিন বিকেলে ব্যবসায়ী এবং ক্রেতা-দশনার্থীদের পদচারণায় মুখর হয়ে ওঠে মেলা প্রাঙ্গণ।

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রামে ইন্দোনেশীয় পণ্য প্রদর্শনীতে ব্যাপক ব্যাপক সাড়া পাওয়া গেছে। শনিবার মেলার শেষ দিন বিকেলে ব্যবসায়ী এবং ক্রেতা-দশনার্থীদের পদচারণায় মুখর হয়ে ওঠে মেলা প্রাঙ্গণ।

‘ডিসকভার ইন্দোনেশিয়া, বিউটি আনলিমিটেড’ স্লোগান নিয়ে নগরীর এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে গত বৃহস্পতিবার শুরু হয় এ প্রদর্শনী।

ইন্দোনেশীয় দূতাবাসের উদ্যোগে আয়োজিত এ প্রদর্শনীতে ব্যাপক সাড়া পাওয়া গেছে বলে দাবি করেছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত দেশটির রাষ্ট্রদূত এইচ ই জেট মিরজাল জায়েনউদ্দিনও।

এদিন বিকেলে মেলা প্রাঙ্গণে তিনি বাংলানিউজকে বলেন, চট্টগ্রামের ব্যবসায়ী এবং সাধারণ মানুষ ইন্দোনেশিয়ান পণ্যের প্রতি ব্যাপক আগ্রহ দেখিয়েছে।

গত দু’দিনে দু’টি ইন্দোনেশীয় টায়ার-টিউব কোম্পানি শুধু কার ও গাড়ির চাকা বিক্রির ৩ হাজার ২০০ মিলিয়ন ডলারের অর্ডার পেয়েছে বলেও জানান তিনি।

এছাড়া ফার্নিচার, ট্রেন ব্যবসা, নির্মাণ সামগ্রী, কেমিক্যাল এবং টেক্সাটাইল পণ্য আমদানিতে বাংলাদেশের বেশ কয়েকটি কোম্পানি আগ্রহ দেখিয়েছে বলে জানান রাষ্ট্রদূত।

জায়েনউদ্দিন বলেন, ইন্দোনশীয় কোম্পানির সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে ব্যবসায়া করতে আগ্রহী এমন অনেক ব্যবসায়ী মেলায় আমার সঙ্গে দেখা করে বৈঠক করার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।’

স্যাটেলাইট স্থাপনেও কিছু প্রতিষ্ঠান ইন্দোনেশিয়ার কাছ থেকে প্রযুক্তিগত সহযোগিতা চেয়েছে বলে জানান তিনি।
 
এদিকে মেলায় ক্রেতাদের আগ্রহ দেখে খুশি অংশগ্রহণকারী বিভিন্ন ইন্দোনেশীয় কোম্পানির বিক্রয় প্রতিনিধিরা।

‘বিশকেক রট্টান’ নামে একটি ফার্নিচার কোম্পানির ম্যানেজার বাংলানিউজকে জানান, মেলায় সিলেটের ‘মানাও’ এবং ঢাকার ‘জিলানী’ ফার্নিচার থেকে ৪০ হাজার ডলারের রপ্তানি আদেশ পেয়েছেন তারা।
তবে বুটিক, হস্তশিল্পজাত পণ্য ছাড়া প্রদর্শনীর অন্য পণ্য কেনার সুযোগ না থাকায় হতাশ হয়েছেন ক্রেতাদের অনেকে।

মেলায় আসা নারীদের অধিকাংশকেই বুটিক এবং কসমেটিকস পণ্যের স্টলে ভিড় করতে দেখা গেছে।  

নগরীর বহদ্দারহাট থেকে এসেছেন তিন বোন রিংকি, সায়মা ও তিশা। অনেক কিছু কেনার বাসনা নিয়ে মেলায় আসলেও কিছুই কেনার সুযোগ হয়নি তাদের।
 
এ ব্যাপারে জিটি রেডিয়াল টায়ার অ্যান্ড টিউব কোম্পানির বাংলাদেশী সত্তাধিকারী এম এম মোটরস’র ম্যানেজার মোহাম্মদ জুবায়ের বাংলানিউজকে বলেন, ‘অনেকেই এখানে আমাদের কাছ থেকে ডিসকাউনন্টে পণ্য কিনতে চাচ্ছেন। কিন্তু এখানে শুধু ডিসপ্লে করা হচ্ছে। এজন্য আগ্রহী ক্রেতাদের আমরা ডিস্ট্রিবিউটরদের সঙ্গে যোগাযোগের জন্য বলেছি।’
 
তিন দিনের মেলাতে হ্যান্ডি ক্রাফট, বুটিক, অটোমোবাইল, টেক্সটাইল, মিলিটারি ইক্যুইপমেন্ট, মোটরসাইকেল, সিরামিক ও ইন্দোনেশীয় স্ট্রাটেজিক ইন্ডাস্ট্রিয়াল প্রোডাক্ট নিয়ে প্রায় ২০ টির বেশি কোম্পানি অংশ নেয়।

এছাড়া সমন্বিত এ মেলায় ইন্দোনেশিয়ান রকমারি খাবারের পাশাপাশি পর্যটন শিল্প, শিক্ষা বৃত্তি সংক্রান্ত তথ্যের পাশাপাশি দেশটির সমৃদ্ধ সংস্কৃতি তুলে ধরে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, চলচ্চিত্র প্রদর্শনী, ঐতিহ্যবাহী পোশাক ও ফ্যাশন শো প্রদর্শন করা হচ্ছে।

রাত ৯টায় শেষ হবে জমকালো এ আয়োজন।

চট্টগ্রামে এটি দ্বিতীয় ইন্টিগ্রেটেড এক্সপো হলেও ইন্দোনেশীয় পণ্যের প্রদর্শনী এবারই প্রথম।

বাংলাদেশ সময়: ১৮১৭ ঘণ্টা, মার্চ ১৯, ২০১১

‘যুদ্ধে হিট অ্যান্ড রানে বিশ্বাসী ছিলাম’
ভারতে সেনা ক্যাম্প থেকে রাইফেল-গুলি চুরি, জরুরি সতর্কতা
মূল্য নিয়ন্ত্রণে ভারতের বাজার আগাম পর্যবেক্ষণ জরুরি
শিক্ষাঙ্গনে নৈরাজ্যের জন্য অসুস্থ রাজনীতি দায়ী
যেখানে মেসি-সুয়ারেজের চেয়ে এগিয়ে গ্রিজম্যান


চাকরির আবেদনে বয়সসীমা বাড়ানোর দাবি
রাঙ্গুনিয়ায় নুরুন্নাহার স্মৃতি বৃত্তি পরীক্ষা
সোনার স্বপ্ন জাগিয়েও পারলেন না আঁখি
ঘটছে দুর্ঘটনা, তবুও উল্টো পথে চলছে গাড়ি
কাতারকে হারিয়ে গালফ কাপের ফাইনালে সৌদি আরব