php glass

বুকবিল্ডিং পদ্ধতিতে সংস্কার

১৫ কোম্পানির বাজারে আসা নিয়ে জটিলতা

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

বুকবিল্ডিং পদ্ধতিতে ১৫ কোম্পানির বাজারে আসা নিয়ে জটিলতা সৃষ্টি হয়েছে। এই কোম্পানিগুলো এরই মধ্যে রোডশো করেছে। এদিকে এসইসি বুকবিল্ডিং পদ্ধতির আইন সংস্কার করে নতুনভাবে চূড়ান্ত প্রস্তাব তৈরি করেছে।

ঢাকা: বুকবিল্ডিং পদ্ধতিতে ১৫ কোম্পানির বাজারে আসা নিয়ে জটিলতা সৃষ্টি হয়েছে।

এই কোম্পানিগুলো এরই মধ্যে রোডশো করেছে।

এদিকে এসইসি বুকবিল্ডিং পদ্ধতির আইন সংস্কার করে নতুনভাবে চূড়ান্ত প্রস্তাব তৈরি করেছে।

এই অবস্থায় কোম্পানিগুলোকে বাজারে আসতে হলে নতুন আইন অনুসরণ করতে হবে।

তাই রোডশো করে নির্দেশক মূল্য নির্ধারণ করা কোম্পানিগুলোর বাজারে আসা অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।  

বুকবিল্ডিং পদ্ধতিতে শেয়ার অতিমূল্যায়িত হয়ে বাজারে আসার অভিযোগে গত ১৯ জানুয়ারি এই পদ্ধতি সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেয় অর্থমন্ত্রণালয়।

মূলত: বর্তমান পরিস্থিতিতে শেয়ারের অতিমূল্যায়ন রোধ ও বাজার থেকে অতিরিক্ত অর্থ স্থানান্তর বন্ধে বুকবিল্ডিং পদ্ধতির কার্যকারিতা সাময়িকভাবে স্থগিত রাখা হয়।

প্রয়োজনীয় আইন সংশোধনের পর এ পদ্ধতি চালু করা হবে বলে জানায় সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়।

তবে আইপিও প্রক্রিয়ায় অনেকের টাকা আটকে যাওয়ার আশঙ্কা থেকে মবিল ও এমআই  সিমেন্ট এই দুইটি কোম্পানিকে বাজারে শর্তসাপেক্ষে তালিকাভুক্তির সুযোগ দেয়।

কিন্তু রোডশো করা কোম্পানিগুলোকে কি করা হবে তা নিয়ে এসইসি কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি।

এরই মধ্যে বুকবিল্ডিং পদ্ধতির সংশোধিত প্রস্তাব তৈরি করা হয়েছে। প্রস্তাবে কোম্পানির গড় পিই রেশিও (মূল্য আয় অনুপাত) রাখা হয়েছে ১৫।

পিই ১৫ এবং এনএভির ৫ গুণের মধ্যে যেটি কম হবে নির্দেশক মূল্য তার চেয়ে বেশি হতে পারবে না।

কিন্তু রোডশো করা কোম্পানিগুলোর পিই ১৫ এর বেশি। এছাড়া নির্দেশক মূল্য নির্ধারণে পিই ১৫ এবং এনএভির ৫ গুণের মধ্যে যেটি কম হবে তার চেয়ে বেশি না হওয়ার ফর্মুলাও অনুসরণ করা হয়নি।

এর মধ্যে যেসব কোম্পানি নির্দেশক মূল্য অনুযায়ী প্রাইভেট প্লেসমেন্ট দিয়েছে তাদের ক্ষেত্রে পুনরায় মূল্য নির্ধারণ করা সম্ভব নয়।

সেক্ষেত্রে এ কোম্পানিগুলোর বুকবিল্ডিং পদ্ধতিতে বাজারে আসার প্রক্রিয়া নিয়ে জটিলতা সৃষ্টির আশঙ্ক তৈরি করা হতে পারে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।


এসইসি’র সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ২০১০ সালের শেষ দিকে বাজার অতিমূল্যায়িত হয়ে পড়ে। বছরের শেষ সময়ে বাজার অতিমূল্যায়িত হওয়ার সুযোগ নিতে এই পদ্ধতিতে বাজারে আসতে প্রায় এক ডজন কোম্পানি রোড শো করে।

তালিকাভুক্তির শুরুতেই বুকবিল্ডিং পদ্ধতিতে আসা অধিকাংশ কোম্পানির পিই রেশিও ১৮ এর বেশি।

অথচ এসইসি এশীয় মহাদেশের স্টক মার্কেটের গড় পিই রেশিও ৮ এর মধ্যে । সে হিসেবে বুকবিল্ডিং পদ্ধতিতে অধিকাংশ শেয়ার অতিমূলায়িত হচ্ছে।

জানা যায়, গত ডিসেম্বর থেকে জানুয়ারির মধ্যে জিএমজি এয়ারলাইন্স, গোল্ডেন হারভেস্ট, বাংলাদেশ সাব মেরিন কেবল, ফার ইস্ট নিটিং অ্যান্ড ডায়িং ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড, আনন্দ শিপইয়ার্ড অ্যান্ড স্লিপওয়েজ লিমিটেড, অরিয়ন ফার্মা লিমিটেড, পিএইচপি ফ্লোট গ্লাস, সামিট শিপিং লিমিটেড, কেওয়াইসিআর কয়েল ইন্ডাস্ট্রিজ, অ্যাগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজ, কেয়া কটন মিলস, নাভানা রিয়েল এস্টেট লিমিটেড, লঙ্কা-বাংলা সিকিউরিটিজ, ইউনিক হোটেল অ্যান্ড রিসোর্টস (হোটেল ওয়েস্টিন) ও অ্যালায়েন্স হোল্ডিংস লিমিটেড বুকবিল্ডিং পদ্ধতিতে বাজারে আসার জন্য রোড শো করে নির্দেশক মূল্য নির্ধারন করেছে।

গত ১২ জানুয়ারি রোড শো করেছে জিএমজি এয়ারলাইন্স ও গোল্ডেন হারভেস্ট। জিএমজি এয়ারলাইন্স ৬ কোটি ও গোল্ডেন হারভেস্ট ৩ কোটি শেয়ার ছাড়বে।

১৩ জানুয়ারি রোড শো’ করেছে সরকারি প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ সাব মেরিন কেবল কোম্পানি লিমিটেড।

এ কোম্পানিটি ৩ কোটি ১০ লাখ শেয়ার ছাড়বে।

১৬ জানুয়ারি রোড শো করেছে ফার ইস্ট নিটিং অ্যান্ড ডায়িং ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড।

কোম্পানিটি ৩ কোটি শেয়ার ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছে।

১৭ জানুয়ারি রোড শো করেছে জাহাজ নির্মাণ শিল্পের প্রথম কোম্পানি আনন্দ শিপইয়ার্ড অ্যান্ড সিøপওয়েজ লিমিটেড। কোম্পানিটি মোট ৩ কোটি শেয়ার ছাড়বে।

১৮ জানুয়ারি রোড শো’ করেছে অরিয়ন ফার্মা লিমিটেড এবং পিএইচপি ফোট গ্লাস ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড।

এর মধ্যে অরিয়ন ফার্মা ৪ কোটি শেয়ার ছাড়বে। অন্যদিকে পিএইচপি ফোট গ্লাস ৩ কোটি শেয়ার ছেড়ে পুঁজিবাজার থেকে মূলধন সংগ্রহ করবে। ২০ জানুয়ারি রোড শো করেছে সামিট গ্রুপের প্রতিষ্ঠান সামিট শিপিং লিমিটেড। কোম্পানিটি ৩ কোটি শেয়ার ছাড়বে।  


রোডশো করা কোম্পানিগুলো সম্পর্কে এসইসি’র এক উর্ধ্বতন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বাংলানিউজকে জানান, শুধুমাত্র লঙ্কাবাংলা সিকিউরিটিজ ও কেয়া কটন আইপিও’র জন্য আবেদন করেছে।

অন্যদিকে ইউনিক হোটেলকে এরই মধ্যে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, সংশোধিত আইনে কোম্পানিগুলোর বাজারে আসা নিয়ে জটিলতা সৃষ্টি হবে।

তিনি বলেন, যেহেতু বুকবিল্ডিং পদ্ধতি সংশোধনের আগেই এ কোম্পানিগুলো বাজার আসার প্রক্রিয়া শুরু করেছে।

তাই ওই কোম্পানিগুলো নতুন আইনের আওতায় নাকি আগের নিয়মেই বাজারে আাসতে পারবে সে বিষয়ে এখনো কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি।

বাংলাদেশ সময়: ১৮০৩ ঘন্টা, মার্চ  ১৭, ২০১১

সড়ক অপসারণ ইউএনওর নেতৃত্বে
গাজীপুরে ডায়রিয়ার প্রকোপ, একজনের মৃত্যু 
এআরএফের সভাপতি আশরাফ আলী, সাধারণ সম্পাদক মাকসুদুল হাসান
বড় জয়ে মুশফিকদের শুভ সূচনা 
আত্মহত্যা করতে চেয়েছিলেন নেহা কাক্কর


দেশের অষ্টম শক্তিশালী ব্র্যান্ড স্বপ্ন
এবার শুরু হবে এক দফার আন্দোলন: মিনু
পরীক্ষামূলক চালু হলো ঢাকা-সিকিম বাস সার্ভিস
টেকনাফে পাল্টাপাল্টি ছুরিকাঘাতে জামাই-শাশুড়ি খুন
ময়মনসিংহে ককটেল বিস্ফোরণে আহত ১০