নতুন ব্রোকারেজকে অনুমতি না দেওয়ার সিদ্ধান্তে ডিএসই-সিএসই’র ভিন্নমত

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

walton

বিভাগীয় শহরের বাইরে নতুন করে ব্রোকারেজ হাউজ খোলার অনুমতি না দেওয়ার সিদ্ধান্তের সঙ্গে ভিন্নমত পোষণ করেছে দেশের উভয় পুঁজিবাজার কর্তৃপক্ষ।

ঢাকা: বিভাগীয় শহরের বাইরে নতুন করে ব্রোকারেজ হাউজ খোলার অনুমতি না দেওয়ার সিদ্ধান্তের সঙ্গে ভিন্নমত পোষণ করেছে দেশের উভয় পুঁজিবাজার কর্তৃপক্ষ।

তারা বলছেন, এ সিদ্ধান্তের ফলে পুঁজিবাজারের বিকাশ বাধাগ্রস্ত হবে।

বাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (এসইসি) এই সিদ্ধান্ত দীর্ঘমেয়াদি হলে বাজারে নতুন বিনিয়োগকারীর প্রবেশ কমে যাবে, যা পুঁজিবাজারের সম্প্রসারণকে ক্ষতিগ্রস্ত করবে।

গত ৪ অক্টোবর বাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (এসইসি) বিভাগীয় শহরের বাইরে নতুন করে ব্রোকারেজ হাউজের শাখা খোলার অনুমতি না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়।

এ সিদ্ধান্তের পেছনে কমিশনের যুক্তি ছিল- পুঁজিবাজার সম্পর্কে পূর্ব ধারণা না থাকায় নতুন নতুন বিনিয়োগকারীরা কোম্পানির মৌলভিত্তি বা বাজার পরিস্থিতি পর্যালোচনা না করেই শেয়ার কেনা-বেচায় অংশ নেয়। এতে বাজারে অনেক শেয়ার অতিমূল্যায়িত হয়ে পড়।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সভাপতি মো. শাকিল বিজভী বাংলানিউজকে বলেন, ‘বিভাগীয় শহরের রাইরে নতুন করে ব্রোকারেজ হাউজ খোলার অনুমতি দীর্ঘদিন বন্ধ রাখা হলে পুঁজিবাজারের সম্প্রসারণ বাধাগ্রস্ত হবে। তবে এ সিদ্ধান্ত সাময়িক হলে সমস্যা নেই।

অন্যদিকে এসইসি’র যুক্তির সঙ্গে দ্বিমত পোষণ করেছেন চট্রগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সভাপতি মো. ফখরউদ্দিন আলী আহম্মেদও।

তিনি বলেন, ‘বিভাগীয় শহরের বাইরেও অনেক সচেতন লোক রয়েছে যারা পুঁজিবাজার সর্ম্পকে অনেক ভালো জ্ঞান রাখেন। আবারে কোনো কোনো বিভাগীয় শহরের পান দোকানদারও শেয়ারব্যবসা করছেন। ফলে এসইসি যে যুক্তিতে বিভাগীয় শহরের রাইরে নতুন করে ব্রোকারেজ হাউজ খোলার অনুমোদন না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তা ঠিক নয়।’

সিএসই সভাপতি আরো বলেন, ‘এসইসি হয়তো বাজার বেশ ঊর্ধ্বমুখী থাকায় এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। বাজার কারেকশন হলে হয়তো কমিশন এ সিদ্ধান্ত পরিবর্তন কররে বলে আমি আশা করি।’      

এসইসি’র নির্বাহী পরিচালক ও কমিশনের মুখপাত্র আনোয়ারুল কবীর ভুঁইয়া বাংলানিউজকে বলেন, ‘পুঁজিবাজারে তারল্য (টাকার) প্রবাহ বেড়ে যাওয়ায় বিনিয়োগকারীদের ঝুঁকি বেড়ে যাচ্ছে। নতুন বিনিয়োগকারীরা অনেক ক্ষেত্রেই বাজার পরিস্থিতি সম্পর্কে ভালোভাবে অবহিত না হয়ে ঝুঁকিপূর্ণ শেয়ারে বিনিয়োগ করেন। এই পরিস্থিতিতে বিনিয়োগকারীদের ঝুঁকির মাত্রা কমানোর জন্যই কমিশন এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে।’
 
বাংলাদেশ সময়: ১৫১৭ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৭, ২০১০

Nagad
ঘিওরে জমে উঠেছে নৌকার হাট
এক মিনিটও দুর্নীতির সঙ্গে থাকতে চাই না: স্বাস্থ্য সচিব
জাহাকে বর্ণবাদী মেসেজ, গ্রেফতার ১২ বছরের বালক
‘সাহেদের ব্যাপারে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সতর্কতা প্রয়োজন ছিল’
ধরা পড়লেই বলে হাওয়া ভবনের লোক: রিজভী


ঈদের এক সপ্তাহ আগেই বেতন-বোনাস পরিশোধের দাবি স্কপের
কুয়েতের নতুন রাষ্ট্রদূত মেজর জেনারেল আশিকুজ্জামান
ভারতের এক কিউরেটরের মৃত্যু
চলে গেলেন হলিউড অভিনেত্রী কেলি প্রেসটন
‘পাটশিল্পের সঙ্গে জড়িতরা অভিশপ্ত জীবনের দিকে ধাবিত হচ্ছেন’