ঢাকা, মঙ্গলবার, ৭ আশ্বিন ১৪২৭, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৩ সফর ১৪৪২

দিল্লি, কলকাতা, আগরতলা

পশ্চিমবঙ্গে করোনা রুখতে অভিনব পদ্ধতিতে লকডাউন

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩২৯ ঘণ্টা, জুলাই ২৩, ২০২০
পশ্চিমবঙ্গে করোনা রুখতে অভিনব পদ্ধতিতে লকডাউন লকডাউন সফল করতে বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই সচেষ্ট পুলিশ প্রশাসন।

কলকাতা: পশ্চিমবঙ্গে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে অভিনব পদ্ধতিতে লকডাউন চলছে।

সোমবার (২০ জুলাই) রাজ্যের প্রশাসনিক ভবন নবান্ন থেকে স্বরাষ্ট্রসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছিলেন, প্রতি সপ্তাহে দু’দিন করে ভোর ৬টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত রাজ্য সম্পূর্ণ লকডাউন থাকবে।

ফলে বৃহস্পতিবার (২৩ জুলাই) রাজ্যজুড়ে কড়া লকডাউন চলছে এবং চলবে শনিবার (২৫ জুলাই)। এছাড়া পরবর্তী সপ্তাহে বুধবার (২৯ জুলাই) লকডাউন থাকবে। ওই সপ্তাহে লকডাউনের আরেকটি দিন পরে ঘোষণা করা হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রসচিব। অর্থাৎ প্রতি সপ্তাহে দু’টি বিকল্প দিন সমগ্র রাজ্যে কড়া লকডাউন চলবে।

লকডাউন সফল করতে বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই সচেষ্ট পুলিশ প্রশাসন। জায়গায় জায়গায় ব্যারিকেড দেওয়া হয়েছে। অলি-গলিগুলোয় বিশেষ নজর রাখতে ওড়ানো হচ্ছে ড্রোন ক্যামেরা। সঠিক যুক্তি দেখাতে না পারা পথচারীদের জরিমানা এবং গ্রেফতার করা হচ্ছে। তবে রাজ্যের অধিকাংশ মানুষ লকডাউন মেনে নিজেদের ঘরবন্দি করে রেখেছেন।

রাজ্যের স্বরাষ্ট্রসচিব জানান, বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে কথা বলে ধারণা করা হচ্ছে, রাজ্যে কোথাও কোথাও গোষ্ঠী সংক্রমণ শুরু হয়েছে। এসব বিবেচনা করে সপ্তাহে দু’দিন লকডাউন জারি করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

প্রসঙ্গত, ভারতে গোষ্ঠী সংক্রমণ শুরু হয়েছে বলে সম্প্রতি দাবি করেছে ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন (আইএমএ)। পাশাপাশি কেরালায়ও গোষ্ঠী সংক্রমণের কথা মেনে নিয়েছেন ওই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন। এ প্রেক্ষাপটে প্রতিদিন পশ্চিমবঙ্গে যেভাবে সংক্রমণ বাড়ছে, তাতে গোষ্ঠী সংক্রমণের আশঙ্কা উড়িয়ে দেওয়া যায় না বলে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে মমতা সরকার।

রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তরের সর্বশেষ বুলেটিন অনুযায়ী, পশ্চিমবঙ্গে একদিনে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন ২ হাজার ২৯১ জন। ফলে বৃহস্পতিবার দুপুর পর্যন্ত রাজ্যে মোট শনাক্ত করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ৪৯ হাজার ৩২১। এছাড়া শেষ ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আরও ৩৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে রাজ্যে করোনায় মৃত বেড়ে হয়েছে ১ হাজার ২২১ জন। রাজ্যে এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ২৯ হাজার ৬৫০ জন।

অপরদিকে ভারতে শেষ ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত হয়েছেন ৪৫ হাজার ৭২০ জন। এ নিয়ে দেশটিতে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত শনাক্ত হলেন ১২ লাখ ৩৮ হাজার ৬৩৫ জন। তাদের মধ্যে মারা গেছেন ২৯ হাজার ৮৬১ জন।

বাংলাদেশ সময়: ১৩২৯ ঘণ্টা, জুলাই ২৩, ২০২০
ভিএস/এফএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa